default-image

ক্ষমতা গ্রহণের প্রথম দিন থেকে প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন নির্বাহী আদেশের মাধ্যমে অভিবাসন নীতিতে ব্যাপক পরিবর্তন এনেছেন। তাঁর প্রশাসন সদ্য সাবেক প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের যুগের বহু অভিবাসন নীতিমালা বাদ দিয়েছে। এর মধ্যে একটি হচ্ছে পাবলিক চার্জ। করোনাকালে ট্রাম্পের পাবলিক চার্জ অভিবাসন নীতি ছিল সবচেয়ে বিতর্কিত অভিবাসন আইন।

২০১৯ সালে তৎকালীন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের পাবলিক চার্জ অভিবাসন আইন অনুযায়ী, যে সব অভিবাসী সরকারি সহায়তা গ্রহণ করবে, তাদের গ্রিন কার্ড দেওয়া হতো না। ফলে, করোনা মহামারিতে যুক্তরাষ্ট্রে বেকার বহু অভিবাসী পরিবার এখনো দিনের পর দিন সংসার চালাতে হিমশিম খাচ্ছে। এদের অনেকে ঠিকমতো দুবেলা খেতে পারছে না। আবার অনেক অভিবাসী গ্রিনকার্ড ও নাগরিকত্ব না পাওয়ার ভয়ে ফেডারেল খাদ্য সহায়তা প্রোগ্রামগুলোতে বাধ্য হয়ে অংশ নিচ্ছে না।

এদিকে অভিবাসীদের অনেকের সন্তান যুক্তরাষ্ট্রে জন্ম নিলেও তারা ভয়ে সরকারি কোনো সহায়তা নিচ্ছে না। ফলে বহু শিশু না খেয়ে দিন কাটাচ্ছে। ফিডিং আমেরিকা নামক সংস্থার দেওয়া তথ্যমতে, যুক্তরাষ্ট্রে ১৭ মিলিয়ন শিশু বা প্রতি চারজন শিশুর মধ্যে একটি শিশু প্রতিদিন অর্ধাহারে বা অনাহারে কাটায় এবং এদের বেশির ভাগই অভিবাসী পরিবারের সন্তান।

বিজ্ঞাপন

বর্তমান প্রেসিডেন্ট বাইডেনের নির্দেশ অনুযায়ী, ১৬ মার্চি থেকে গ্রিনকার্ড পাওয়ার ক্ষেত্রে ২০১৯ সালের ‘পাবলিক চার্জ’ বিধিনিষেধ কার্যকর করা বন্ধ রাখা হয়েছে। যুক্তরাষ্ট্রের হোমল্যান্ড সিকিউরিটি এই আইন বর্তমানে প্রয়োগও করছে না বলে জানা যায়। হোমল্যান্ড সিকিউরিটি বিভাগের বর্তমান সেক্রেটারি আলেজান্দ্রো মায়োরকাস এক বিবৃতিতে বলেন, ‘২০১৯ সালের পাবলিক চার্জ বিধিটি আমাদের দেশের মূল্যবোধের সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখে বাস্তবায়ন হয়নি। যারা সরকারি স্বাস্থ্য সুবিধা ও অন্যান্য পরিষেবা নিচ্ছে, এটি তাদের জন্য এক ধরনের শাস্তি।’

আইন ও সামাজিকনীতি কেন্দ্রের নির্বাহী পরিচালক অলিভিয়া গোল্ডেন ১৬ মার্চ নেওয়া প্রেসিডেন্ট বাইডেনের এই পদক্ষেপের প্রশংসা করেছেন। তবে তিনি আনুষ্ঠানিকভাবে ২০১৯ সালের নিয়মটি বাদ দেওয়ার ঘোষণা দিতে বাইডেন প্রশাসনের প্রতি আহ্বান জানান।

এই নীতিমালার বিপক্ষে জনসচেতনতা বাড়াতে এবং অভিবাসী পরিবারগুলো যাতে নিরাপদে স্বাস্থ্যসেবা ও তাদের প্রয়োজনীয় সরকারি সহায়তা পায়, তা নিশ্চিত করতে জনগণকে সচেতন করার অলিভিয়া আহ্বান জানান।

অন্যদিকে এ পর্যন্ত যুক্তরাষ্ট্রে ১১টি অঙ্গরাজ্যের একটি সংঘবদ্ধ জোট প্রেসিডেন্ট বাইডেনের অভিবাসন নীতির বিরুদ্ধে আইনি লড়াইয়ে নামার প্রস্তুতি নিচ্ছে। এসব অঙ্গরাজ্যের মধ্যে রয়েছে অ্যারিজোনা, অ্যালাবামা, আরকানসাস, ইন্ডিয়ানা, মিজৌরি, লুইজিয়ানা, মিসিসিপি, মন্টানা, ওকলাহোমা, টেক্সাস এবং ওয়েস্ট ভার্জিনিয়া।

জানা যায়, এই ১১টি অঙ্গরাজ্যের এই সংঘবদ্ধ জোট পাবলিক চার্জ বাতিল করার বাইডেন প্রশাসনের পদক্ষেপকে চ্যালেঞ্জ জানাতে আদালতের মামলা করেছে।

যুক্তরাষ্ট্র থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন