default-image

হোয়াইট হাউসের অনেক জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তা ও রিপাবলিকান পার্টির নির্বাচনী প্রচার শিবিরের কয়েকজন কর্মকর্তা ট্রাম্পের কাছ থেকে দূরে সরে যাচ্ছেন। হোয়াইট হাউস সূত্রে এই তথ্য জানিয়েছে, মার্কিন সংবাদমাধ্যম সিএনএন।

সিএনএন বলছে, পেনসিলভানিয়া ও জর্জিয়ায় বর্তমানে ভোটের যে অবস্থা, তাতে ট্রাম্পের পুনরায় প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হওয়ার সম্ভাবনা কমে এসেছে। এ অবস্থায় হোয়াইট হাউসের কিছু জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তা ও নিজ দলের প্রচার শিবিরের কয়েকজন কর্মকর্তা প্রেসিডেন্টের সঙ্গে ক্রমে দূরত্ব সৃষ্টি করছেন।

সিএনএনের কাছে নির্বাচনের দৌড়ে ‘সব শেষ’ বলে মন্তব্য করেন ট্রাম্প প্রশাসনের অন্যতম এক উপদেষ্টা। ট্রাম্প নির্বাচনের ফলাফল মেনে নেবেন কিনা, তা নিয়ে ওঠা প্রশ্ন ক্রমে জোরালো হচ্ছে। প্রশ্ন হলো নির্বাচনের ফল ঘোষণার পর ট্রাম্পের পদক্ষেপ কী হবে? এ বিষয়ে নিজের উদ্বেগের কথা জানান এই কর্মকর্তা।

বিজ্ঞাপন

এই উপদেষ্টার দাবি, স্থানীয় সময় বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় হোয়াইট হাউসের সম্মেলন কক্ষে মিথ্যা বিবৃতি দিয়ে বক্তব্য দিয়েছেন ট্রাম্প। এর পর ট্রাম্প প্রশাসনের অনেক কর্মকর্তা তাঁদের বিভাগীয় প্রধানদের কাছে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের পরবর্তী করণীয় নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেন। ট্রাম্পের পরবর্তী পদক্ষেপ কী হতে পারে—এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘সৃষ্টি কর্তা ছাড়া আর কে জানেন!’

ট্রাম্পের নির্বাচনী প্রচার শিবিরের আরেক উপদেষ্টা জানান, চুরি হয়ে যাওয়া নির্বাচনের দাবি তুলে একা হয়ে যাচ্ছেন ট্রাম্প। ট্রাম্পের নির্বাচনে কারচুপি হওয়ার দাবি প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘তিনি (ট্রাম্প) এখানে একা।’

সিএনএনের ওই সূত্রমতে, ট্রাম্পের আশপাশে এখনো অনেকেই আছেন, যারা প্রেসিডেন্ট যা শুনতে চান তাই বলছেন। যেটি এই নাটককে চলমান রাখছে। ট্রাম্পের জন্য আরও চাপের বিষয় হচ্ছে, রিপাবলিকান দল ও ট্রাম্প প্রশাসনের অনেক কর্মকর্তা এখনই ২০২০ সালের নির্বাচন ভুলে ২০২৪ সালের কথা ভাবতে শুরু করেছেন।

মন্তব্য পড়ুন 0