default-image

উত্তর আমেরিকার দেশ হাইতির প্রেসিডেন্টের পদত্যাগের দাবিতে বিক্ষোভ করেছেন দেশটির বহু জনগণ। গতকাল রোববার প্রেসিডেন্টের বর্তমান মেয়াদের শেষ দিন ছিল দাবি করে বিক্ষোভকারীরা তাঁকে ক্ষমতা থেকে সরে যেতে বলেন। খবর বিবিসির।
অন্যদিকে হাইতির প্রেসিডেন্ট জোভেনাল মোউস বলেছেন, তাঁর শাসনকাল শেষ হওয়ার আগে বিরোধী দলের কেউ  তাঁকে হত্যা করার চেষ্টা করেছেন। ক্ষমতাচ্যুত করার চেষ্টা করেছেন। প্রেসিডেন্টের দাবি, ২০২২ সালের ফেব্রুয়ারিতে তাঁর কার্যকাল শেষ হবে।

এই রাজনৈতিক টানাপোড়েনে দেশটির একজন শীর্ষ বিচারক ও একজন ঊর্ধ্বতন পুলিশ কর্মকর্তাসহ কমপক্ষে ২৩ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে বলে কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে।

বিজ্ঞাপন

বিরোধীরা বলছেন, তাঁর ক্ষমতায় থাকার মেয়াদ রোববার শেষ হয়েছে। তিনি পদত্যাগ করতে অস্বীকার করায় বিক্ষোভকারীরা রাজধানী পোর্ট-অব-প্রিন্স এবং অন্যান্য শহরগুলোর রাস্তায় বিক্ষোভ করছেন।

একজন প্রতিবাদকারী বলেন, ‘দেশের প্রেসিডেন্ট দেশের সংবিধান লঙ্ঘন করছেন, এটা মেনে নেওয়া যায় না, তাঁর উচিত সংবিধানকে সম্মান করা।’

রাষ্ট্রপতি মোউসের বিরোধীরা বলেছেন, ২০১৬ সালে বিতর্কিত ভোটের পরে যে অস্থির সময় চলছে তার সময়কাল এখন শেষে হয়েছে। ২০১৯ সালে আইনসভা নির্বাচন স্থগিত করার পর প্রেসিডেন্ট মোউসে এখন তাঁর শাসনকালের দ্বিতীয় মেয়াদে পা দিয়েছেন।

এখন যদি তিনি ক্ষমতাচ্যুত না হওয়ার পরিকল্পনা করেন, তাহলে তাঁকে সামনে আরও বিক্ষোভের মুখোমুখি হতে হবে।

যুক্তরাষ্ট্র থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন