default-image

ধর্ষণ-গুম-খুনের বিরুদ্ধে দুর্বার আন্দোলন গড়ে তোলার সংকল্প এবং খালেদা জিয়ার স্থায়ী মুক্তি ও তারেক রহমানের বিরুদ্ধে মামলা প্রত্যাহারের জানিয়ে নিউইয়র্কে ২৬ অক্টোবর যুবদলের ৪২তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত হয়েছে। অনুষ্ঠানে শিগগিরই যুক্তরাষ্ট্র শাখা যুবদলের কমিটি গঠনের ঘোষণা দেওয়া হয়।

যুক্তরাষ্ট্র সরকারের করোনার স্বাস্থ্যবিধি মেনে যুক্তরাষ্ট্র যুবদলের উদ্যোগে বিপুলসংখ্যক নেতা-কর্মী দুই পর্বের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর অনুষ্ঠানে যোগ দেন।

প্রথম পর্বে জ্যাকসন হাইটসের ডাইভার্সিটি প্লাজায় বেলুন উড়িয়ে কর্মসূচির উদ্বোধন ঘোষণা করেন কেন্দ্রীয় যুবদলের নেতা এম এ বাতিন। অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ও জাসাসের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক চিত্রনায়ক হেলাল খান, জাসাসের আন্তর্জাতিক সম্পাদক আবু তাহের, যুক্তরাষ্ট্র শাখা বিএনপির সাবেক সাধারণ সম্পাদক মোস্তফা কামাল পাশা, মুক্তিযোদ্ধা দলের সভাপতি বাবরউদ্দিন, বিএনপির নেতা মাহফুজুল মাওলা, মোশারফ হোসেন ও এম এ সবুর, ছাত্রদলের সেক্রেটারি মাজহারুল ইসলাম প্রমুখ। সভাপতিত্ব করেন প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদ্‌যাপন কমিটির আহ্বায়ক যুবনেতা আতিকুল হক। যৌথভাবে সভা পরিচালনা করেন সদস্যসচিব সোহরাব হোসেন ও প্রধান সমন্বয়কারী বদিউল আলম।

বিজ্ঞাপন

বৃষ্টির কারণে দ্বিতীয় পর্বে ‘আন্দোলন-সংগ্রাম আর গৌরবের ৪২ বছর’ শীর্ষক আলোচনা সভা হয় জ্যাকসন হাইটসে ইটজি চায়নিজ রেস্টুরেন্টে। এ সময় সমবেত নেতা-কর্মীরা দেড় দশক আগে গঠিত যুক্তরাষ্ট্র শাখা যুবদলের কমিটি ভেঙে দিয়ে সময়ের পরীক্ষিত নেতা-কর্মীর সমন্বয়ে নতুন কমিটি গঠনের দাবি জানান।

অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি হেলাল খান বলেন, ‘বাংলাদেশের গণতন্ত্র আজ বিপন্ন, মানুষের নিরাপত্তা নেই, ধর্ষণ-খুন-রাহাজানি নিত্য-নৈমিত্তিক ব্যাপারে পরিণত হয়েছে। এহেন অবস্থার অবসানে সুশৃঙ্খল আন্দোলনের বিকল্প নেই। নব্বইয়ের স্বৈরাচারী হটাও আন্দোলনের ন্যায় যুবসমাজকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে। সে আহ্বানেই জাতীয়তাবাদী যুবদল তার প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালন করছে।’

হেলাল খান বলেন, দীর্ঘ সময় ধরে যুক্তরাষ্ট্র বিএনপি ও অঙ্গসংগঠনের ত্যাগী নেতারা যেভাবে আন্দোলন সংগ্রাম করছে, শিগগিরই তাদের মূল্যায়ন করা হবে। অচিরেই ঘোষণা করা হবে যুবদলের নতুন কমিটি। বিএনপির হাইকমান্ড এ নিয়ে কাজ শুরু করেছে।

যুক্তরাষ্ট্র শাখা যুবদলের জ্যেষ্ঠ সহসভাপতি আশরাফউদ্দিনের সার্বিক তত্ত্বাবধানে অনুষ্ঠানের প্রধান বক্তা যুবনেতা এম এ বাতিন বলেন, ‘যুবদলের নতুন কমিটি হলেই প্রবাস থেকে আন্দোলন সূচনা করা সহজ হবে।’

বিশেষ অতিথি বিএনপির সাবেক সাধারণ সম্পাদক মোস্তফা কামাল বলেন, ‘এখন দলাদলির সময় নয়। খালেদা জিয়াকে স্থায়ীভাবে মুক্তি ব্যতীত বাংলাদেশ স্বৈরাচার মুক্ত হবে না। সে জন্য সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে আন্দোলনে ঝাঁপিয়ে পড়তে হবে।’

অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন আরও বক্তৃতা করেন যুক্তরাষ্ট্র শাখা মুক্তিযোদ্ধা দলের সভাপতি বাবরউদ্দিন, জাসাসের সভাপতি ও কেন্দ্রীয় জাসাসের আন্তর্জাতিক সম্পাদক আবু তাহের, সেক্রেটারি কাওসার আহমেদ, বিএনপি নেতা মাহফুজুল মাওলা, মোশারফ হোসেন, মাকসুদ এইচ চৌধুরী, মাজহারুল ইসলাম, শাহাদত হোসেন প্রমুখ। বক্তারা এই সরকারকে হটাতে সব গণতান্ত্রিক শক্তির ঐক্য কামনা করেন।

অনুষ্ঠানের শেষ পর্যায়ে বাংলাদেশ থেকে টেলিফোন বিশেষ শুভেচ্ছা বার্তা দেন যুবদলের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক সুলতান সালাউদ্দিন।

অনুষ্ঠানের শুরুতে যুক্তরাষ্ট্র শাখা যুবদলের সাংগঠনিক সম্পাদক ওয়েছ আহমেদ পবিত্র কোরআন শরিফ থেকে তিলাওয়াত করেন। প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর আলোচনায় আরও অংশ নেন প্রকৌলশী সায়েম রহমান, হুমায়ূন কবীর, জাহাঙ্গীর সোহরাওয়ার্দী, আনোয়ার হোসেন, নাসির উদ্দিন, সিদ্দিক হোসেন, সুমন রহমান, মোহাম্মদ মান্নান, মঞ্জুর মোর্শেদ, মেহরাব রাজা চৌধুরী, মনসুর আহমেদ, রুহেলুজ্জামান চৌধুরী, ফারহান আহমেদ, ইকবাল খান গোফরান প্রমুখ।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0