লেবার ডেতেও প্রচারে ট্রাম্প-বাইডেন

বিজ্ঞাপন
default-image

যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় নির্বাচনের আগে বড় ছুটির দিনে লেবার ডেতেও প্রার্থীদের দিন কেটেছে প্রচারণায়। দেশটিতে বড় ছুটির দিন লেবার ডে পালিত হয় সেপ্টেম্বর মাসের প্রথম সোমবার।

৬ সেপ্টেম্বর ডেমোক্রেটিক দল থেকে প্রেসিডেন্ট প্রার্থী জো বাইডেন প্রচারণা সেরেছেন পেনসিলভানিয়ায়। প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প হোয়াইট হাউসের প্রেস ব্রিফিংকে ব্যবহার করেছেন তাঁর প্রচার কাজে। দুই দলের ভাইস প্রেসিডেন্ট প্রার্থীই সফর করেছেন উইসকনসিনে।

একই দিনে জো বাইডেন বলেছেন, ডোনাল্ড ট্রাম্প যাপন করেন মিথ্যা, লোভ আর স্বার্থপরতার জীবন। অন্যদিকে ট্রাম্প বলেছেন, বাইডেন আর তাঁর সহযোগী দেশকে এবং দেশের অর্থনীতিকে ধ্বংস করে দেবেন।

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
রাজ্যের জনমতে কিছুটা পিছিয়ে থাকলেও দলের জাতীয় কনভেনশনের পর পেনসিলভানিয়ায় ট্রাম্পের পরিস্থিতির উন্নতি হচ্ছে। একাধিক জনমত জরিপে দেখানো হয়েছে, এ রাজ্যে দুই প্রার্থীর জনমতের অবস্থান খুব কাছাকাছি চলে এসেছে

যুক্তরাষ্ট্রের নির্বাচন পূর্ব লেবার ডের সপ্তাহান্তকে প্রার্থীদের অলস প্রচারণার এক মাইল ফলক হিসেবে ধরা হয়। নির্বাচনের মাত্র দুই মাসেরও কম সময় বাকি। লেবার ডের পর থেকে নির্বাচনী প্রচারের দৌড় শুরু হয়। কোভিড-১৯ এ নাকাল হওয়া যুক্তরাষ্ট্রের নির্বাচনী মাঠ এবারে একেবারেই ভিন্ন হয়ে উঠেছে।

লেবার ডেতে যুক্তরাষ্ট্রের শ্রমিক সংগঠনগুলো প্রতি বছর ব্যস্ত থাকে অধিকার আদায়ের নানা সমাবেশ নিয়ে। এবারেও সভা-সমাবেশ হয়েছে সীমিত পরিসরে। ডেমোক্রেটিক প্রার্থী জো বাইডেন সভা করেছেন পেনসিলভানিয়ার হ্যারিসবার্গে। এবারের নির্বাচনে জয়ের জন্য এ রাজ্যে ডোনাল্ড ট্রাম্পকে তাঁর হারাতে হবে। রাজ্যের সাম্প্রতিক ভোটের গতি প্রকৃতি কখনো ডেমোক্র্যাটদের পক্ষে, কখনো রিপাবলিকানদের পক্ষে। ২০১৬ সালের নির্বাচনে এ রাজ্যে অল্প ভোটে জিতেছিলেন ট্রাম্প।

রাজ্যের জনমতে কিছুটা পিছিয়ে থাকলেও দলের জাতীয় কনভেনশনের পর পেনসিলভানিয়ায় ট্রাম্পের পরিস্থিতির উন্নতি হচ্ছে। একাধিক জনমত জরিপে দেখানো হয়েছে, এ রাজ্যে দুই প্রার্থীর জনমতের অবস্থান খুব কাছাকাছি চলে এসেছে। হ্যারিসবার্গ নগরীর শ্রমিক নেতাদের এক সমাবেশে দেওয়া বক্তব্যে জো বাইডেন বলেছেন, যুক্তরাষ্ট্রের শ্রমিকেরা নিজেদের মানদণ্ডে জীবন যাপন করেন। ট্রাম্পের জীবন যাপন মিথ্যে, লোভ আর স্বার্থপরতার।

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
default-image

৬ সেপ্টেম্বর সকালেই ডোনাল্ড ট্রাম্প তাঁর প্রেস ব্রিফিং করেছেন। হোয়াইট হাউসে করা প্রেস ব্রিফিংয়ে তিনি তাঁর অধীনে যুক্তরাষ্ট্রের উজ্জ্বল অর্থনৈতিক সম্ভাবনার কথা বলেন। অতি উদারনৈতিক নীতির কারণে জো বাইডেন ও তাঁর ভাইস প্রেসিডেন্ট কমলা হ্যারিস মিলে দেশের অর্থনীতিকে ধ্বংস করে দেবেন বলে তিনি উল্লেখ করেন।

এবারের লেবার ডেতে যুক্তরাষ্ট্রের শ্রমিকদের তাড়িত করছে কর্মহীনতা। করোনাভাইরাসে সবচেয়ে বেশি মানুষের মৃত্যুর দেশে লাখো শ্রমজীবী পরিবার নাজুক পরিস্থিতিতে পড়েছে। জনস্বাস্থ্য থেকে শুরু করে অর্থনীতির চাঞ্চল্য নিয়ে ভাবিত শ্রমজীবীদের মধ্যে নির্বাচনী প্রচারে উঠে এসেছে সাম্প্রতিক নাগরিক আন্দোলন।

লেবার ডেতে উসকনসিন সফর করেছেন ভাইস প্রেসিডেন্ট মাইক পেন্সও। ২০১৬ সালের নির্বাচনে এ রাজ্যেও ট্রাম্প অল্প ভোটে জয়লাভ করেছিলেন। এবারের নির্বাচনে জো বাইডেনের জয়ের জন্য উইসকনসিনেও ট্রাম্পকে হারাতে হবে।

গত মাসে পুলিশের হাতে গুলিবিদ্ধ জ্যাকব ব্ল্যাকের ঘটনায় রাজ্যে নাগরিক আন্দোলন আবার উসকে উঠেছে। উইসকনসিনের কৃষ্ণাঙ্গ ভোটার জয় পরাজয়ের জন্য জরুরি। নিজেকে কৃষ্ণাঙ্গ ঘোষণা দেওয়া কমলা হ্যারিস ৬ সেপ্টেম্বর মিলওয়াকি বিমানবন্দরে পৌঁছালে তাঁকে জ্যাকব ব্ল্যাকের পরিবারের লোকজন স্বাগত জানান। বিমানবন্দর থেকেই কমলা হ্যারিস হাসপাতালে থাকা গুলিবিদ্ধ ব্ল্যাকের সঙ্গে কথা বলেন। কথা বলেন তাঁকে স্বাগত জানাতে আসা ব্ল্যাকের স্বজনদের সঙ্গে।

অতি উদারনৈতিক নীতির কারণে জো বাইডেন ও তাঁর ভাইস প্রেসিডেন্ট কমলা হ্যারিস মিলে দেশের অর্থনীতিকে ধ্বংস করে দেবেন
মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
default-image

কমলা হ্যারিসের এ জনসংযোগে উইসকনসিনে কৃষ্ণাঙ্গ ভোটারদের মধ্যে প্রভাব পড়বে বলে মনে করা হচ্ছে। গত সপ্তাহে জো বাইডেনও উইসকনসিন সফর করেন। তিনিও সেখানে জ্যাকব ব্ল্যাকের পরিবারের সঙ্গে কথা বলেন। অপরদিকে নাগরিক আন্দোলনে উত্তপ্ত উইসকনসিনে না যাওয়ার অনুরোধ উপেক্ষা করে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প রাজ্যটি সফর করেন। তিনি সেখানে পুলিশ ও ব্যবসায়ীদের সঙ্গে সভা করেন। নাগরিক আন্দোলনের নামে সহিংসতায় যেসব ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে, সেসবের মালিকদের সঙ্গে ট্রাম্প সভা করেন। তিনি লুটপাট আর নৈরাজ্যবাদীদের হাত থেকে দেশকে রক্ষার কথা বলেন। ডেমোক্রেটিক প্রার্থীকে এসব নৈরাজ্যবাদীদের সমর্থক বলে চিহ্নিত করেন।

ভাইস প্রেসিডেন্ট মাইক পেন্স তাঁর ৬ সেপ্টেম্বরের সফরেও কৃষ্ণাঙ্গ নেতাদের সঙ্গে কোনো সভা করেননি। জ্যাকব ব্ল্যাকের পরিবার বা নাগরিক আন্দোলনের কোনো পক্ষের সঙ্গে তাঁর কোনো কর্মসূচি ছিল না।

কমলা হ্যারিস উইসকনসিনে কৃষ্ণাঙ্গ ব্যবসায়ী নেতাদের সঙ্গে সভা করেছেন। সেখানে তিনি শ্রমের মর্যাদা ও মানুষের মর্যাদাপূর্ণ জীবনের নিশ্চয়তা নিয়ে কথা বলেন।

পেনসিলভানিয়ার লেনকাস্টার নগরীতে শ্রমিক নেতাদের সভায় জো বাইডেন বলেছেন, প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প সাধারণ মানুষের সমস্যা নিয়ে ভাবিত নয়।

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
default-image

বাইডেনের প্রচার শিবির থেকে জানানো হয়েছে, লেবার ডে সামনে রেখে আমেরিকার বেশ কয়েকটি শ্রমিক ইউনিয়ন এবং শ্রমিক জোট তাদের প্রতি নির্বাচনে সমর্থনের ঘোষণা দিয়েছে। বাইডেনের প্রচার শিবির থেকে লেবার ডে সপ্তাহান্তের প্রচারকে বেশ সফল মনে করা হচ্ছে। শ্রমিক ইউনিয়নগুলোর সমর্থনের পর যুক্তরাষ্ট্রজুড়ে লাখো শ্রমিকেরা বাইডেন-হ্যারিসকে ভোট দানে এগিয়ে আসবে বলে প্রচার শিবির থেকে মনে করে হচ্ছে।

সাধারণ জরিপে দেখা যাচ্ছে, যুক্তরাষ্ট্রের লোকজন নির্বাচনে দেশের অর্থনীতিকেই গুরুত্ব দিচ্ছেন। করোনাভাইরাসের কারণে নাকাল আমেরিকার অর্থনীতি অনেকটাই মুখ থুবড়ে পড়েছে। কল-কারখানা পুরোদমে চালু হয়নি। বেকার সমস্যা মন্দাকালীন অবস্থার মতো। প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প বলছেন, তিনি দ্রুতই অর্থনীতিকে ঘুরিয়ে দিতে পারবেন।

জো বাইডেন আবারও বলেছেন, করোনাভাইরাস মোকাবিলায় প্রেসিডেন্টের ব্যর্থতার কারণেই দেশ আজ এমন অবস্থায় পৌঁছেছে। বহু মানুষের মৃত্যু হয়েছে। অর্থনৈতিক মন্দা অবস্থার জন্যও প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পকেই দায়ী করছেন জো বাইডেন।

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
করোনাভাইরাস মোকাবিলায় প্রেসিডেন্টের ব্যর্থতার কারণেই দেশ আজ এমন অবস্থায় পৌঁছেছে। বহু মানুষের মৃত্যু হয়েছে। অর্থনৈতিক মন্দা অবস্থার জন্যও প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প দায়ী
জো বাইডেন

যুক্তরাষ্ট্রের অর্থনীতির দৈন্য দশায় নিম্ন আয়ের লোকজনই বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। কর্মহীনতাও নিম্ন আয়ের শ্রমিকদের মধ্যে বেশি। যুক্তরাষ্ট্রের শ্রমিকদের সংগ্রামের ইতিহাস স্মরণ করা হয় লেবার ডে পালন করার মধ্য দিয়ে। এবারের এ দিনটিতে যুক্তরাষ্ট্রের কর্মজীবী শ্রমিকেরা দেখছে, আসছে নির্বাচনে কোনো প্রার্থী তাঁদের জীবন মর্যাদার উন্নয়নে কার্যকর ভূমিকা রাখতে পারবেন। ডেমোক্রেটিক দলের সমর্থকেরা মনে করছেন, জো বাইডেন ও কমলা হ্যারিস যুক্তরাষ্ট্রের কর্মজীবীদের আস্থার বার্তাটিই পৌঁছে দিতে সক্ষম হয়েছেন এ সপ্তাহের প্রচারে।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0
বিজ্ঞাপন