নিউ হ্যাম্পশায়ার রাজ্য

রিপাবলিকান দলের প্রাইমারিতে জয়ী আবুল বি খান

বিজ্ঞাপন
default-image

যুক্তরাষ্ট্রের নিউ হ্যাম্পশায়ার অঙ্গরাজ্যের আইন সভার সদস্য পদে রিপাবলিকান দলের প্রাইমারি বা প্রাথমিক বাছাই নির্বাচনে জয়ী হয়েছেন বাংলাদেশি বাংশোদ্ভূত মার্কিন আবুল বি খান।

৮ সেপ্টেম্বর নিউ হ্যাম্পশায়ারে রিপাবলিকান দলের প্রাইমার অনুষ্ঠিত হয়। এতে জয়ী হয়ে অঙ্গরাজ্যের আইন সভার সদস্য পদে লড়াইয়ের টিকিট পান আবুল বি খান।

যুক্তরাষ্ট্রের রাজনীতিতে সরকারের কোন পদে দলীয় মনোনয়ন পেতে ভোটারদের সমর্থন প্রয়োজন হয়। এ জন্য মূল নির্বাচনের আগে প্রত্যেক দলের প্রাইমারি নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। এতে সাধারণ ভোটাররা তাদের ভোট দিয়ে থাকেন।

অঙ্গরাজ্যের ডিস্ট্রিক্ট রকিংহাম ২০-এ রিপাবলিকান দলের স্টেট হাউজ অব রিপ্রেজেনটেটিভ প্রার্থী হিসেবে ভোটে নির্বাচিত হন আবুল বি খান। ডিস্ট্রিক্ট–২০–এ স্টেট রিপ্রেজেনটেটিভের তিনটি পদে রিপাবলিকান দলে ছয়জন প্রার্থী ছিলেন।

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

এদের মধ্যে তিনজন নির্বাচনে জয়ী হয়ে দলের মনোনয়ন পেয়েছেন। আবুল বি খানের প্রতিদ্বন্দ্বী ছিলেন তিনজন। নির্বাচনে সাধারণ ভোটাররা তিনজনের মধ্যে তাঁকে নির্বাচিত করেন। এদিন ডেমোক্র্যাট দলেরও প্রাইমারি নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়।

তবে অঙ্গরাজ্যের ডিস্ট্রিক্ট-২০ আসনে ডেমোক্র্যাট দলের কোনো নির্বাচন হয়নি। এই ডিস্ট্রিক্টে তিনটি পদে ডেমোক্র্যাট দলে প্রার্থীদের নিজ দলে কোনো প্রতিদ্বন্দ্বী ছিল না। মার্কিন রাজনীতিতে নিউ হ্যাম্পশায়ার অঙ্গরাজ্য বরাবরই রিপাবলিকান পার্টির দখলে।

বাংলাদেশি আমেরিকান আবুল খান টানা তিনবার এখানকার স্টেট হাউজ অব রিপ্রেজেনটেটিভের সদস্য। দলীয় মনোনয়নে বিজয়ী হওয়ায় রিপাবলিকান সমর্থিত এলাকা হিসেবে এবারের মূল নির্বাচনেও তিনি জয়ী হবেন বলে ধারণা করছেন সবাই।

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

আগামী ৩ নভেম্বর মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের সঙ্গে নিউ হ্যাম্পশায়ার স্টেট হাউজ অব রিপ্রেজেনটেটিভ পদেও নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। আটলান্টিক মহাসাগরের তীরে নিউ হ্যাম্পশায়ারের অঙ্গরাজ্যের সিব্রুক সিটির সিলেক্টম্যান (মেয়র) হিসেবেও ১২ বছর ধরে দায়িত্ব পালন করছেন আবুল খান। আরও তিন বছর তিনি এ পদে দায়িত্বে থাকবেন। যুক্তরাষ্ট্রে সম্প্রতি নির্মিত তৃতীয় সবচেয়ে বড় পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রের জন্য সিব্রুক শহর সুপরিচিত।

আবুল বি খানের জন্ম বাংলাদেশের পিরোজপুরের ভান্ডারিয়ায়। ১৯৮১ সালে তিনি যুক্তরাষ্ট্রে পাড়ি দেন। তার স্ত্রী মর্জিয়া খান একজন গৃহিণী এবং এই দম্পতির এক মেয়ে ও এক ছেলে রয়েছে।

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

প্রসঙ্গত, যুক্তরাষ্ট্রের জর্জিয়া স্টেট সিনেটর হিসেবে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হতে চলেছেন বাংলাদেশি আমেরিকান শেখ রহমান। পেনসিলভানিয়া অঙ্গরাজ্যের অডিটর জেনারেল পদে প্রার্থিতার জন্য ডেমোক্রেটিক প্রাইমারি নির্বাচনে বিজয়ী হয়েছেন বাংলাদেশি নীনা আহমেদ। এ ছাড়া মার্কিন কংগ্রেসে টেক্সাস থেকে একমাত্র বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত হিসেবে কংগ্রেসের নিম্নকক্ষ হাউজ অব রিপ্রেজেনটেটিভসে ডেমোক্রেটিক দলের হয়ে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন ডোনা ইমাম।

আগামী ৩ নভেম্বর অনুষ্ঠিত হচ্ছে মার্কিন নির্বাচন। এ নির্বাচনে প্রেসিডেন্ট পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন ক্ষমতাসীন রিপাবলিকান প্রার্থী প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ও ডেমোক্র্যাট প্রার্থী জো বাইডেন।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0
বিজ্ঞাপন