default-image

করোনাভাইরাস প্রতিরোধে যুক্তরাষ্ট্র ও কানাডার ব্যস্ততম সীমান্ত পারাপার বন্ধের মেয়াদ আরও এক মাস বাড়িয়েছে কানাডা সরকার। কানাডার জননিরাপত্তামন্ত্রী বিল ব্লেয়ার ১৮ সেপ্টেম্বর বলেছেন, কানাডাবাসীকে সুরক্ষিত রাখতে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্র-কানাডা সীমান্ত বন্ধের মেয়াদ ২১ সেপ্টেম্বর শেষ হওয়ার কথা ছিল। তবে এখন তা আগামী ২১ অক্টোবর পর্যন্ত বর্ধিত করা হলো।

বিজ্ঞাপন
করোনাভাইরাস প্রতিরোধে যুক্তরাষ্ট্র ও কানাডার ব্যস্ততম সীমান্ত পারাপার গত ১৮ মার্চ বন্ধ করে দেয় দুই দেশের সরকার। করোনা পরিস্থিতির উন্নতি না হওয়ায় প্রতি মাসে সীমান্ত বন্ধের মেয়াদ এক মাস করে বাড়ানো হয়েছে। এ নিয়ে ছয়বার এ নিষেধাজ্ঞার মেয়াদ বাড়ানো হলো

করোনাভাইরাস প্রতিরোধে যুক্তরাষ্ট্র ও কানাডার ব্যস্ততম সীমান্ত পারাপার গত ১৮ মার্চ বন্ধ করে দেয় দুই দেশের সরকার। করোনা পরিস্থিতির উন্নতি না হওয়ায় প্রতি মাসে সীমান্ত বন্ধের মেয়াদ এক মাস করে বাড়ানো হয়েছে। এ নিয়ে ছয়বার এ নিষেধাজ্ঞার মেয়াদ বাড়ানো হলো। তবে জরুরি সেবা, স্বাস্থ্যসেবা, এয়ারলাইনস ক্রু ও ট্রাক চালকদের মতো জরুরি কর্মীদের সীমান্ত দিয়ে পারাপারের অনুমতি রয়েছে। ট্রাকচালকেরা উভয় দিক থেকে খাদ্য, চিকিৎসা সামগ্রীসহ জরুরি মালামাল পারাপার করে থাকেন।

বিজ্ঞাপন
জরুরি সেবা, স্বাস্থ্যসেবা, এয়ারলাইনস ক্রু ও ট্রাক চালকদের মতো জরুরি কর্মীদের সীমান্ত দিয়ে পারাপারের অনুমতি রয়েছে

দীর্ঘদিন নিষেধাজ্ঞা থাকায় সীমান্তের অন্য পারে থাকা মানুষ দুর্ভোগে পড়বে এবং অর্থনীতিতে বড় ধরনের প্রভাব ফেলবে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। বিশেষ করে মিশিগানের পর্যটনশিল্পের ওপর এর ব্যাপক প্রভাব পড়বে বলে অভিজ্ঞ মহল মনে করে। কানাডা থেকে প্রতিবছর বিপুলসংখ্যক মানুষ মিশিগানে আসেন।

মন্তব্য পড়ুন 0