default-image

প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন ঐতিহাসিক এক পদক্ষেপ নিয়েছেন। যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসে প্রথমবারের মতো একজন নারীকে তিডনি সামরিক সচিব হিসেবে মনোনয়ন দিয়েছেন। ওই নারীর নাম ক্রিস্টিন ওয়ার্মাথ। তাঁর নিয়োগ চূড়ান্ত হলে যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসে তিনিই হবেন প্রথম নারী সামরিক সচিব।

ক্রিস্টিন ওয়ার্মাথ ওবামা প্রশাসনের শেষ বছরগুলোতে পেন্টাগনের শীর্ষ নীতি প্রণয়নকারী কর্মকর্তা হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছিলেন। মার্কিন সেনাবাহিনীতে সেক্রেটারি পদে এর আগে কখনো কোনো নারী দায়িত্ব পালন করেননি। সেক্রেটারি হিসেবে তাঁর যোগদানের সিদ্ধান্ত সিনেটে চূড়ান্ত হবে।পেন্টাগনে কাজ করার পূর্ব অভিজ্ঞতা থেকে বারাক ওবামার প্রশাসনের সময় ক্রিস্টিন জাতীয় সুরক্ষা কাউন্সিলের প্রতিরক্ষা নীতি পরিচালকের দায়িত্ব পালন করেছিলেন।

ক্রিস্টিন সম্প্রতি রান্ড করপোরেশনে আন্তর্জাতিক সুরক্ষা ও প্রতিরক্ষা নীতি কেন্দ্রের পরিচালক হিসেবে কাজ করেছেন। তিনি পেন্টাগনে বাইডেন ট্রানজিশন দলের একজন প্রভাবশালী ব্যক্তি ছিলেন, যেখানে তিনি বাইডেন-হ্যারিস ডিফেন্স এজেন্সি পর্যালোচনা দলের নেতৃত্ব দিয়েছিলেন।

বিজ্ঞাপন

ক্রিস্টিনকে নিয়ে মন্তব্য করতে গিয়ে প্রতিরক্ষামন্ত্রী লয়েড অস্টিন বলেন, ‘ক্রিস্টিন যুক্তরাষ্ট্র ও আমাদের দেশের সুরক্ষার জন্য নিবেদিত একজন কর্মী ও সত্যিকারের দেশপ্রেমিক।’ তিনি আরও বলেন, ক্রিস্টিন আইএসআইএসের বিরুদ্ধে শক্ত অবস্থান নিতে ও এশিয়ার দেশগুলোতে ভারসাম্য আনতে সক্ষম হয়েছিলেন।

অস্টিন মনে করেন, ‘ক্রিস্টিনের দক্ষ নেতৃত্বগুণ চীনের চ্যালেঞ্জ এবং রাশিয়া, ইরান ও উত্তর কোরিয়া থেকে উদ্ভূত রাষ্ট্রবিরোধী হুমকিসহ আজকের বৈশ্বিক হুমকি মোকাবিলা এবং কৌশল নির্ধারণে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে।’

পেন্টাগনের আরও দুজন শীর্ষ পদে ক্যালিফোর্নিয়ার সাবেক রেপ. গিল সিসনেরোস আন্ডার সেক্রেটারি পদে এবং সুসান্না ব্লুম সিএপিইর পরিচালক হিসেবে নিয়োগ পেয়েছেন।

সিসনেরোস ডেমোক্রেটিক প্রতিনিধি হিসেবে ক্যালিফোর্নিয়ার ৩৯তম কংগ্রেসনাল আসন থেকে নির্বাচিত প্রতিনিধি হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছিলেন। সুসান্না ব্লুম সেন্টার ফর অ্যা নিউ আমেরিকান সিকিউরিটির (সিএনএএস) সিনিয়র ফেলো ও প্রতিরক্ষা প্রোগ্রামের পরিচালক ছিলেন।

যুক্তরাষ্ট্র থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন