মিশিগানে প্রাইমারি নির্বাচনে দুই বাংলাদেশির জয়

বিজ্ঞাপন
default-image

আমেরিকার মিশিগান অঙ্গরাজ্যে ৪ আগস্ট অনুষ্ঠিত প্রাইমারি নির্বাচনে বাংলাদেশি-আমেরিকান চারজন প্রার্থী বিভিন্ন পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। এর মধ্যে দুজন ডেলিগেট প্রার্থী নির্বাচনে জয় পেয়েছেন। তাঁরা হলেন ওয়ারেন সিটির ওয়ারেন ম্যাকম্ব ডেলিগেট পদপ্রার্থী খাজা শাহাব আহমদ ও হ্যামট্রামাক সিটির ৫ নম্বর প্রিসিঙ্কটের ডেলিগেট পদপ্রার্থী মিনহাজ রাসেল চৌধুরী।

বাংলাদেশি প্রার্থীরা সবাই ডেমোক্রেটিক পার্টির প্রার্থী। যাঁরা এ নির্বাচনে জিতেছেন, তাঁরা আগামী নভেম্বরের নির্বাচনে রিপাবলিকান পার্টির প্রার্থীদের সঙ্গে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন। নির্বাচনে ডেলিগেট পদপ্রার্থী দুজন বাংলাদেশি জিতলেও গুরুত্বপূর্ণ পদগুলোতে বাংলাদেশি-আমেরিকানদের ফলাফল আশাব্যঞ্জক নয়। নির্বাচনে হাউস অব রিপ্রেজেনটেটিভ পদে ডিস্ট্রিক্ট ৪ থেকে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছিলেন বাংলাদেশি-আমেরিকান শাহাব আহমেদ। এই পদে ডেমোক্রেটিক পার্টির ১১ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছিলেন। নির্বাচিত হয়েছেন আব্রাহাম আইয়াস। তিনি ৫ হাজার ২০৮ ভোট পেয়ে জিতেছেন। মোট ৩৭ শতাংশ ভোট পেয়েছেন তিনি। তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী মিশেল পেয়েছেন ২ হাজার ২৩ ভোট। শাহাব আহমেদ পেয়েছেন ৮৫৩ ভোট।

ওয়েন কাউন্টির ডিস্ট্রিক্ট ৩ থেকে কমিশনার পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছিলেন মোহাম্মদ কামরুল হাসান। এই পদে ডেমোক্রেটিক দলের প্রার্থী ছিলেন দুজন। এখানে দুজনের মধ্যে সরাসরি প্রতিদ্বন্দ্বিতা হয়েছে। এ প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত ৯৮ শতাংশ প্রিসিঙ্কটের ভোট গণনা করা হয়েছে। এর মধ্যে মার্তা স্কট পেয়েছেন ১০ হাজার ৭৬১ ভোট এবং কামরুল হাসান পেয়েছেন ৩ হাজার ৪৮১ ভোট। স্কট পেয়েছেন ৭৫ শতাংশ ও কামরুল হাসান পেয়েছেন ২৪ শতাংশ ভোট।

নির্বাচিত ডেলিগেট পদপ্রার্থীর মধ্যে একজন হলেন ওয়ারেন সিটির ওয়ারেন ম্যাকম্ব ডেলিগেট পদপ্রার্থী খাজা শাহাব আহমদ, ওয়ারেন সিটি ডেমোক্রেটিক পার্টির অফিশিয়াল ডাইভার্সিটি চেয়ারম্যান। এ ছাড়া তিনি মিশিগান বাংলাদেশি-আমেরিকান ডেমোক্রেটিক ককাসের স্ট্যান্ডিং কমিটির চেয়ারম্যান।

হ্যামট্রামাক সিটির ৫ নম্বর প্রিসিঙ্কটের বিজয়ী ডেলিগেট পদপ্রার্থী বাংলাদেশি-আমেরিকান মিনহাজ রাসেল চৌধুরী। তিনি মিশিগান ডেমোক্রেটিক পার্টির ১৪তম কংগ্রেস ডিস্ট্রিক্টের ভাইস চেয়ারম্যান। প্রথম আলো উত্তর আমেরিকাকে তিনি বলেন, ‘এই বিজয় বাংলাদেশিদের বিজয়, আমাদের কমিউনিটির সবার বিজয়।’ সবাইকে নিয়ে তিনি কাজ করতে চান বলেও জানান।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0
বিজ্ঞাপন