default-image

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ভোট জালিয়াতি তদন্তের অনুমতি দিয়েছেন মার্কিন অ্যাটর্নি জেনারেল উইলিয়াম বার। এর প্রতিবাদে বিচার বিভাগের নির্বাচন সংক্রান্ত ফৌজদারি অপরাধবিষয়ক শীর্ষ আইনজীবী রিচার্ড পিলগার পদত্যাগ করেছেন।

সিএনএন–এর প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, রাজ্যগুলোতে চূড়ান্ত ফল ঘোষণার আগে নির্বাচনে অনিয়মের অভিযোগ তদন্ত করা উচিত বলে অ্যাটর্নি জেনারেল উইলিয়াম বার ফেডারেল প্রসিকিউটরদের জানিয়েছেন। এই মন্তব্যের প্রতিবাদে স্থানীয় সময় ৯ নভেম্বর এক ইমেইল বার্তা দিয়ে পদত্যাগ করেছেন প্রসিকিউটর রিচার্ড পিলগার।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, রিচার্ড পিলগার পদত্যাগ করলেও বিচার বিভাগের অন্যান্য পদে থাকবেন কিনা, তা স্পষ্ট করে বলেননি।

বিজ্ঞাপন

গত ৩ নভেম্বর যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী জো বাইডেনের কাছে বিপুল ব্যবধানে হারেন ডোনাল্ড ট্রাম্প। এর পরই নির্বাচনে ভোট চুরির অভিযোগ তোলেন তিনি। এই অভিযোগে আইনি লড়াইয়ের প্রস্তুতিও শুরু করেছেন ট্রাম্প। পেনসিলভানিয়ায় বাইডেনের জয় ঠেকাতে জরুরি ভিত্তিতে আদালতের নির্দেশনা চেয়েছে ট্রাম্পের নির্বাচনী শিবির।

প্রতিবেদনে বলা হয়, অ্যাটর্নি জেনারেল উইলিয়াম বার ফেডারেল প্রসিকিউটরদের বলেছেন, মাকিন নির্বাচনে ভোট জালিয়াতির অভিযোগ উঠেছে। এই অভিযোগ যদি সত্যি হয়, তাহলে দেশের নির্বাচন ব্যবস্থার ওপর মানুষের আস্থা উঠে যাবে। তাই, এই অভিযোগের ব্যাপারে প্রত্যক্ষদর্শীর সাক্ষাৎকার নিয়ে তদন্ত করা উচিত। এতে নির্বাচন ব্যবস্থার ওপর জনগণের আস্থা থাকবে।

এই মন্তব্যের প্রতিবাদ করে রিচার্ড পিলগার এক ইমেইল বার্তায় বলেছেন, এর পর আফসোস নিয়ে অবশ্যই এই পদ থেকে আমি পদত্যাগ করছি।

মন্তব্য পড়ুন 0