default-image

মার্কিন নির্বাচনের ভোটগ্রহণ শেষের পথে। এর মধ্যে ইন্ডিয়ানা অঙ্গরাজ্যে ভোটগ্রহণ শেষে ফল আসতে শুরু করেছে। স্বাভাবিকভাবেই অঙ্গরাজ্যটিতে জয় পেতে যাচ্ছেন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। আর অনুমিতভাবেই হাড্ডাহাড্ডি লড়াই চলছে ফ্লোরিডায়।

বার্তা সংস্থা রয়টার্সের তথ্যমতে, ইন্ডিয়ানা অঙ্গরাজ্যে এখন পর্যন্ত মোট গৃহীত ভোটের ১৬ শতাংশের গণনা শেষ হয়েছে। এর মধ্যে ডোনাল্ড ট্রাম্প পেয়েছেন ৬৬ দশমিক ৩ শতাংশ ভোট। আর বাইডেন পেয়েছে ৩১ দশমিক ৫ শতাংশ ভোট। অঙ্গরাজ্যটিতে মোট ১১টি ইলেকটোরাল ভোট রয়েছে।

রয়টার্সের তথ্যমতে, হাড্ডাহাড্ডি লড়াই চলছে ফ্লোরিডায়। অঙ্গরাজ্যটির মোট সম্ভাব্য ভোটের ৮৯ শতাংশ এরই মধ্যে গণনা হয়েছে। সেখানে ট্রাম্পের পক্ষে ৫০ শতাংশ ও বাইডেনের পক্ষে ৪৮ দশমিক ৭ শতাংশ ভোট পড়েছে। ফলে অঙ্গরাজ্যটির ২৯টি ইলেকটোরাল ভোট শেষ পর্যন্ত কোন দিকে যায়, তা একেবারে অনিশ্চিত এখনো।

এ ছাড়া ভারমন্ট ও নিউ হ্যাম্পশায়ার অঙ্গরাজ্যের মোট সম্ভাব্য ভোটের ৫ শতাংশ গণনা করা হয়েছে। দুই অঙ্গরাজ্যেই এখন পর্যন্ত ট্রাম্প থেকে বড় ব্যবধানে এগিয়ে রয়েছেন জো বাইডেন। ভারমন্টে গণনা হওয়া ভোটের ৬২ দশমিক ৫ শতাংশ বাইডেন ও ৩৪ দশমিক ৬ শতাংশ ট্রাম্প পেয়েছেন। আর নিউ হ্যাম্পশায়ারের গণনা হওয়া ভোটের ৫৭ দশমিক ৯ শতাংশ বাইডেন ও ৪১ দশমিক ৩ শতাংশ ট্রাম্প পেয়েছেন। ভারমন্ট ও নিউ হ্যাম্পশায়ারে যথাক্রমে ৩টি ও ৪টি করে ইলেকটোরাল ভোট রয়েছে।

বিজ্ঞাপন

ভোট গণনা চলছে গুরুত্বপূর্ণ অঙ্গরাজ্য ওহাইওতে। ১৮টি ইলেকটোরাল ভোট থাকা এ অঙ্গরাজ্যের সম্ভাব্য ভোটের ৪১ শতাংশ এরই মধ্যে গণনা হয়েছে। এর মধ্যে বাইডেনের পক্ষে ৫৫ শতাংশের বেশি ও ট্রাম্পের পক্ষে ৪৩ দশমিক ২ শতাংশ ভোট পড়েছে।

ভার্জিনিয়া অঙ্গরাজ্যের ১৮ শতাংশ ভোট এখন পর্যন্ত গণনা হয়েছে। এর মধ্যে ডোনাল্ড ট্রাম্প পেয়েছেন ৫৮ শতাংশ ও বাইডেন পেয়েছেন ৪১ শতাংশ ভোট। এই অঙ্গরাজ্যে রয়েছে ১৩টি ইলেকটোরাল ভোট। পাশের অঙ্গরাজ্য ওয়েস্ট ভার্জিনিয়ায় অবশ্য এগিয়ে রয়েছেন বাইডেন। সেখানে গণনা হওয়া ৪ শতাংশ ভোটের মধ্যে বাইডেনের পক্ষে পড়েছে ৫০ দশমিক ৮ শতাংশ ভোট। আর ট্রাম্পের পক্ষে পড়েছে ৪৭ দশমিক ৪ শতাংশ ভোট। এই অঙ্গরাজ্যে ইলেকটোরাল ভোট রয়েছে ৫টি।

ভোট গণনা শুরু হয়েছে পেনসিলভানিয়া অঙ্গরাজ্যেও। যতটা খবর পাওয়া গেছে তাতে এখন পর্যন্ত গণনা হওয়া ভোটে বড় ব্যবধানে এগিয়ে রয়েছে বাইডেন। এই অঙ্গরাজ্যের ২০টি ইলেকটোরাল ভোটকে এবার ফল নির্ধারণী হিসেবে বিবেচনা করা হচ্ছে।

বিস্ময়কর হলেও সত্য রিপাবলিকান অঙ্গরাজ্য টেক্সাস এবার সুইং স্টেটের কাতারে। এখন পর্যন্ত অঙ্গরাজ্যটির ১০ শতাংশ ভোট গণনা করা হয়েছে। এর মধ্যে বাইডেন পেয়েছেন ৫৮ দশমিক ৩ শতাংশ ভোট। আর ট্রাম্প পেয়েছেন ৪০ দশমিক ৩ শতাংশ ভোট। ফলে অঙ্গরাজ্যটির ৩৮টি ইলেকটোরাল ভোট নিয়ে রিপাবলিকানদের মধ্যে তৈরি হওয়া শঙ্কা একেবারে অমূলক নয় বলেই মনে হচ্ছে।

কেনটাকি অঙ্গরাজ্যের ৩৮ শতাংশ ভোট এরই মধ্যে গণনা হয়েছে। এর মধ্যে ট্রাম্পের পক্ষে পড়েছে ৬৫ শতাংশের বেশি ভোট। আর বাইডেনের পক্ষে পড়েছে ৩৩ শতাংশের বেশি ভোট। ফলে এবারও অঙ্গরাজ্যটির ৮টি ইলেকটোরাল ভোট ট্রাম্প পাচ্ছেন বলে ধরে নেওয়া যায়।

টেনেসি ও সাউথ ক্যারোলাইনায় সম্ভাব্য ভোটের ৫ শতাংশের বেশি এরই মধ্যে গণনা হয়েছে। এর মধ্যে টেনেসিতে ট্রাম্প বড় ব্যবধানে এগিয়ে রয়েছেন বাইডেন থেকে, যেখানে ১১টি ইলেকটোরাল ভোট রয়েছে। সেখানে ট্রাম্পের পক্ষে ভোট পড়েছে ৭৪ দশমিক ৪ শতাংশ। আর বাইডেনের পক্ষে ২৪ দশমিক ৬ শতাংশ। সাউথ ক্যারোলাইনায় বাইডেন এগিয়ে, যেখানে রয়েছে ৯টি ইলেকটোরাল ভোট। মোট গণনা হওয়া ভোটের মধ্যে ৫২ শতাংশের বেশি পড়েছে বাইডেনের পক্ষে। আর ট্রাম্পের পক্ষে পড়েছে ৪৬ শতাংশ ভোট।

এ ছাড়া ইলিনয়, ওকলাহোমা, মিসৌরির মতো অঙ্গরাজ্যগুলো রিপাবলিকান নিয়ন্ত্রণেই রয়েছে। গুরুত্বপূর্ণ অঙ্গরাজ্য মিশিগান ও জর্জিয়ায়ও এগিয়ে রয়েছেন ট্রাম্প।

নির্বাচনের ফল মাত্রই আসতে শুরু করেছে। সময়ের সঙ্গে এতে পরিবর্তন হবে। তবে রয়টার্সের পূর্বাভাস বলছে, এখন পর্যন্ত ভোট গণনা শুরু হওয়া অঙ্গরাজ্যগুলোর ইলেকটোরাল কলেজগুলোকে হিসাবে ধরলে ট্রাম্পের দিকে যাচ্ছে ৪২টি ও বাইডেনের দিকে ৪৪টি ইলেকটোরাল ভোট যাচ্ছে। তবে এটি স্থির কোনো সংখ্যা নয়। এতে পরিবর্তন আসবে।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0