default-image

মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে দিনের প্রথম প্রহরে ভোট দেওয়ার ঐতিহ্য তাদের। অনেকটা রাত ১২টা এক মিনিটে শহীদ মিনারে ভাষা শহীদদের প্রতি পুষ্পস্তবক অর্পণের মতো। এবারে এই ঐতিহ্যের কিছুটা ব্যত্যয় ঘটছে। করোনা মহামারির কারণে নিউ হ্যাম্পশায়ার রাজ্যের সেই এলাকায় সোমবার মধ্যরাতের পর সব ভোট গ্রহণ করা যাচ্ছে না।

কর্তৃপক্ষ বলেছে, তারা ঐতিহ্য ধরে রাখার চেষ্টা করছে। একটি কেন্দ্রে আর কয়েক ঘণ্টা পরই সশরীরে ভোটের দিনের প্রথম ভোট দেবেন ওই এলাকার ভোটাররা।

নিউ হ্যাম্পশায়ার রাজ্যের ডিক্সভিল নচ, মিলসফিল্ড এবং হার্টস কমিউনিটিতে মধ্যরাতের এমন ভোট হয়ে থাকে। হার্টস কেন্দ্রের দায়িত্বে থাকা নির্বাচনী কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, করোনা মহামারির কারণে তাঁরা এবার এই ভোটের আয়োজন করতে পারছেন না। দায়িত্বপ্রাপ্ত নির্বাচনী কর্মকর্তা মার্ক ডিনডর্ফ বলেন, এবার মধ্যরাতে ভোট গ্রহণ করা সম্ভব হচ্ছে না। এ নিয়ে তাদের মন খারাপের কথা জানিয়েছেন। কোভিড-১৯-এর কারণেই এমনটি করতে হচ্ছে বলে জানান তিনি।

ওই এলাকায় ৪৮ জন ভোটার রয়েছেন। নির্বাচনের দিন মঙ্গলবার তারা ভোট দেবেন দীর্ঘদিনের ঐতিহ্য ভেঙে। সকাল ১১টা থেকে সন্ধ্যা সাতটা পর্যন্ত এই ভোটগ্রহণের ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। টাউন হলে নির্বাচনী বুথ থাকবে।

মিলসফিল্ড নামের এলাকায় আছেন ২২ জন নিবন্ধিত ভোটার। তারা জড়ো হচ্ছেন মধ্যরাতে। লং হ্যাভেন নামক রেস্টুরেন্টে এই ভোটাররা তাদের ভোট দেওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছেন আর কয়েক ঘণ্টা পরই।

বিজ্ঞাপন
মিলসফিল্ড এলাকায় ৫-৬ মিনিটের মধ্যে প্রতি বছর ফলাফল পাওয়া যায়। এবারে করোনা মহামারির কারণে একটু বেশি সময় লাগবে বলে নির্বাচনী কর্মকর্তারা জানিয়েছেন। এ কেন্দ্রে ১৬ জন রিপাবলিকান তালিকাভুক্ত ভোটার রয়েছেন, তিনজন ডেমোক্র্যাট ও তিনজন কোন নির্দলীয় রেজিস্টার্ড ভোটার আছেন

ইলেকশন বোর্ডের সমন্বয়ক উয়েইন উরসো বলেন, ‘আমরা নিরাপদেই কাজটি করতে যাবতীয় ব্যবস্থা নিয়েছি।’ মহামারির জন্য কিছু সাবধানতা অবলম্বনের কথা জানানা তিনি।

২২ জনের জন্য বেশ দূরত্ব বজায় রেখে ভোটকেন্দ্র প্রস্তুত করা হয়েছে। মধ্যরাতে আসা ভোট কেন্দ্রে সবাইকে মাস্ক পরে আসতে হবে। সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে অবস্থান নিতে হবে।

মিলসফিল্ড এলাকায় ৫-৬ মিনিটের মধ্যে প্রতি বছর ফলাফল পাওয়া যায়। এবারে করোনা মহামারির কারণে একটু বেশি সময় লাগবে বলে নির্বাচনী কর্মকর্তারা জানিয়েছেন। এ কেন্দ্রে ১৬ জন রিপাবলিকান তালিকাভুক্ত ভোটার রয়েছেন, তিনজন ডেমোক্র্যাট ও তিনজন কোন নির্দলীয় রেজিস্টার্ড ভোটার আছেন।

প্রথম প্রহরের ভোটে এ কেন্দ্রে রিপাবলিকান প্রার্থী ডোনাল্ড ট্রাম্প জয় লাভ করবেন বলে মনে করা হচ্ছে। বরাবরের মতো সোমবার মধ্যরাতের পর মঙ্গলবার প্রথম প্রহরে রিপাবলিকান দল তাদের পক্ষে একটা ফলাফল হাতে নিয়ে ঘুমাতে যাবেন। হয়তো নির্ঘুম সময় কাটাবেন কট্টর সমর্থকেরা। নির্বাচনী জনমত জরিপ এবার শেষ মুহূর্ত পর্যন্ত তাদের বড় বেশি তাড়া করে যাবে।

মন্তব্য পড়ুন 0