ট্রাম্পের ভক্ত বিন লাদেনের ভাগনি

বিজ্ঞাপন
default-image

জো বাইডেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হলে নাইন-ইলেভেনের মতো আরেকটি সন্ত্রাসী হামলার ঘটনা ঘটতে পারে। বিস্ময়কর শোনালেও এ সতর্কবার্তা দিয়েছেন খোদ ২০০১ সালের ১১ সেপ্টেম্বর টুইন টাওয়ার হামলার মূল হোতা ওসামা বিন লাদেনের এক ভাগনি নূর বিন লাদেন।

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

নূর বিন লাদেন ২০১৫ সালে ডোনাল্ড ট্রাম্পের প্রেসিডেন্ট পদে প্রার্থিতা ঘোষণার পর থেকেই তাঁকে সমর্থন জানিয়ে আসছেন। শুধু যুক্তরাষ্ট্র নয়, সামগ্রিকভাবে পশ্চিমা সভ্যতার ভবিষ্যতের জন্যও ট্রাম্পের পুনর্নির্বাচিত হওয়াটাকে জরুরি মনে করছেন তিনি।

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
সন্ত্রাসীদের হামলার সুযোগ পাওয়ার আগেই ট্রাম্প বিদেশি হুমকির হাত থেকে যুক্তরাষ্ট্র ও দেশের জনগণকে সুরক্ষিত করতে সক্ষম হয়েছেন। সন্ত্রাস নির্মূলে যথেষ্ট দক্ষতা দেখিয়েছেন তিনি
নুর বিন লাদেন, ওসামা বিন লাদেনের ভাগনি

নিউইয়র্ক পোস্টকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে ৩৩ বছর বয়সী নূর বিন লাদেন বলেন, ‘আমি ট্রাম্পের সংকল্পের প্রশংসা করি। ওবামা ও বাইডেন প্রশাসনের অধীনে আইএসআইএস (ইসলামিক স্টেট) দীর্ঘস্থায়ী হয়েছিল। ফলে তারা ইউরোপে আসতে সক্ষম হয়। কিন্তু সন্ত্রাসীদের হামলার সুযোগ পাওয়ার আগেই ট্রাম্প বিদেশি হুমকির হাত থেকে যুক্তরাষ্ট্র ও দেশের জনগণকে সুরক্ষিত করতে সক্ষম হয়েছেন। সন্ত্রাস নির্মূলে যথেষ্ট দক্ষতা দেখিয়েছেন তিনি।’

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

গত ১৯ বছরে ইউরোপের বিভিন্ন দেশে হওয়া সন্ত্রাসী হামলার কথা উল্লেখ করে নূর বিন লাদেন বলেন, ‘র‍্যাডিক্যাল ইসলাম আমাদের সমাজে পুরোপুরি অনুপ্রবেশ করেছে।’

ওসামা বিন লাদেনের ভাগনি নূর বিন লাদেন সুইজারল্যান্ডে বসবাস করেন। কিন্তু তিনি নিজেকে ‘অন্তরে আমেরিকান’ বলে মনে করেন। একটি মার্কিন পতাকা তিনি ১২ বছর বয়স থেকেই নিজ কক্ষে ঝুলিয়ে রেখেছেন। ছুটিতে যুক্তরাষ্ট্র ভ্রমণে আসা তাঁর স্বপ্ন বলে তিনি জানান।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0
বিজ্ঞাপন