বিজ্ঞাপন
default-image

‘আমেরিকা উদ্ধার’ প্রণোদনা আইন নিয়ে বক্তব্য দেওয়ার পর প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনকে এ নিয়ে প্রশ্ন করা হয়। ট্রাম্প সরাসরি মঞ্চে এসে টিকা গ্রহণের আহ্বান জানালে ভালো হয় কিনা—এমন প্রশ্নের জবাবে বাইডেন বলেছেন, ‘মেক আমেরিকা গ্রেট’ অনুসারীদের উদ্দেশ্যে টিকা দেওয়ার জন্য আহ্বানের চেয়েও তিনি গুরুত্ব দিচ্ছেন স্থানীয় নেতৃত্বকে এগিয়ে আসার জন্য। স্থানীয় চিকিৎসক, ধর্মীয় নেতা, কমিউনিটি সংগঠকসহ অন্যান্য সংগঠকদের এ নিয়ে এগিয়ে আসার জন্য প্রেসিডেন্ট বাইডেন আহ্বান জানিয়েছেন।

ডোনাল্ড ট্রাম্প দুই সপ্তাহ আগে ফ্লোরিডায় দেওয়া এক বক্তব্যে বলেছেন, সবাই যেন টিকা গ্রহণ করেন। তবে তিনি কোভিড-১৯ টিকা যে নিরাপদ, এ নিয়ে কিছু বলেননি। স্বাস্থ্যসেবীরা মনে করেন, যুক্তরাষ্ট্রজুড়ে ট্রাম্পের বহু রক্ষণশীল অনুসারীদের মধ্যে টিকা গ্রহণে এখনো সংশয় বিরাজ করছে। অধিকাংশ জনগণকে টিকা না দেওয়া হলে কাঙ্ক্ষিত ফল পাওয়া যাবে না বলে স্বাস্থ্যসেবীরা আগে থেকেই সতর্ক করে দিয়েছেন।

default-image

যুক্তরাষ্ট্রের শীর্ষ সংক্রামক ব্যাধি বিশেষজ্ঞ অ্যান্থনি ফাউসি আশা করছেন, সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প তাঁর সমর্থকদের করোনার টিকা নিতে উৎসাহিত করবেন। একই সঙ্গে করোনাকালে স্বাস্থ্য সুরক্ষায় যেসব নিষেধাজ্ঞা রয়েছে, সমর্থকদের তা মেনে চলতে বলবেন ট্রাম্প।

১৪ মার্চ মার্কিন গণমাধ্যম এনবিসির মিট দ্য প্রেস অনুষ্ঠানে অংশ নিয়ে ফাউসি বলেন, ‘রাজনৈতিক মতাদর্শের কারণে সুনির্দিষ্ট একটি দলের সমর্থকদের বড় একটি অংশ টিকা নিতে চাইছেন না। এটা কোনো কাজের কথা নয়।’

এ সময় ট্রাম্পের উদ্দেশে ফাউসি বলেন, ‘আমি আশা করব তিনি (ট্রাম্প) তাঁর সমর্থকদের টিকা নিতে বলবেন।’

হোয়াইট হাউস ছাড়ার আগে গত জানুয়ারিতে করোনাভাইরাসের টিকা নিয়েছিলেন যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ও সাবেক ফার্স্ট লেডি মেলানিয়া ট্রাম্প। নাম প্রকাশ না করার শর্তে সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্টের এক উপদেষ্টা জানিয়েছিলেন, ট্রাম্প ও মেলানিয়া জানুয়ারিতে হোয়াইট হাউসে টিকা নিয়েছিলেন। কিন্তু তাঁদের করোনার টিকা নেওয়ার সময়ের কোনো ছবি নেই। অথচ বিশ্বের যত প্রেসিডেন্ট এ পর্যন্ত করোনার টিকা নিয়েছেন, তাঁদের প্রায় সবারই টিকা নেওয়ার ছবি বা ভিডিওচিত্র রয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্র থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন