default-image

আসন্ন মার্কিন নির্বাচনে জনপ্রিয়তার জরিপে জো বাইডেন এগিয়ে থাকলেও কোনো আশঙ্কাই উড়িয়ে দিচ্ছে না ডেমোক্র্যাট শিবির। প্রচার শিবির থেকে তাই ডেমোক্রেটিক দলের কর্মীদের জরিপের ফলে বিভ্রান্ত না হওয়ার কথা বলা হচ্ছে। শেষ মুহূর্ত পর্যন্ত নির্বাচনের মাঠে থাকার নির্দেশ দেওয়া হচ্ছে প্রচার কর্মীদের। জরিপের ফলাফলের চেয়েও নির্বাচন বেশি প্রতিদ্বন্দ্বিতার হবে বলে স্মরণ করিয়ে দেওয়া হচ্ছে বাইডেন শিবির থেকে।

অ্যারিজোনা ও নর্থ ক্যারোলাইনার নির্বাচনী মাঠের কথা উল্লেখ করে বাইডেনের প্রচার শিবির থেকে ১৭ অক্টোবর সমর্থকদের কাছে তিন পৃষ্ঠার একটি চিঠি পাঠানো হয়েছে। চিঠিতে বাইডেনের প্রচার ব্যবস্থাপক জেন ও’ম্যালি ডিলন সমর্থকদের নির্বাচনের অনিশ্চয়তার কথা স্মরণ করিয়ে দিয়েছেন।

বিজ্ঞাপন
default-image

২০১৬ সালের জনমত জরিপ এবং ট্রাম্পের নির্বাচিত হওয়ার কথা স্মরণ করিয়ে চিঠিতে বলা হয়েছে, এবারের নির্বাচনের বাস্তবতা অনেক কঠিন। টুইটার আর টিভি দেখে যারা ভবিষ্যদ্বাণী করছেন, তাঁদের ধারণার চেয়েও মাঠের বাস্তবতা এবার ভিন্ন হবে।

জরিপে যেভাবে বাইডেনকে অগ্রগামী দেখানো হচ্ছে, কোনো কোনো ব্যাটলগ্রাউন্ড রাজ্যের জরিপের এমন ফলে বিভ্রান্ত না হওয়ার জন্য বলা হয়েছে। জেন ও’ম্যালি ডিলন চিঠিতে বলেছেন, সবচেয়ে ভালো জরিপের ফলাফলের সঙ্গেও বাস্তবতার অমিল পাওয়া যায় অনেক সময়।

ভোট না দেওয়া পর্যন্ত ব্যাটলগ্রাউন্ড রাজ্যের জরিপ নিয়ে খুব উৎসাহী না হওয়ার জন্য বাইডেনের প্রচারণা শিবির থেকে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে। সমর্থক ও প্রচার কর্মীদের বাইডেন শিবির থেকে বলে দেওয়া হয়েছে, ধরে নিতে হবে নির্বাচনের মাঠে অবস্থা সমানে সমান প্রতিযোগিতার হবে।

বিজ্ঞাপন
যদি আমরা ২০১৬ সাল থেকে শিক্ষা নিই, তাহলে ডোনাল্ড ট্রাম্পকে খাটো করে দেখার কোনো কারণ নেই। যেকোনো অবস্থা থেকে যেকোনো অস্বাভাবিক অবস্থার সৃষ্টি করতে পারঙ্গম ট্রাম্পকে শেষ মুহূর্ত পর্যন্ত গুরুত্ব দিয়ে দেখতে হবে
জেন ও’ম্যালি ডিলন, বাইডেনের প্রচার ব্যবস্থাপক

শেষ মুহূর্তে প্রচার কর্মী ও সমর্থকদের ওপর চাপ দেওয়ার জন্য এ চিঠি দেওয়া হয়েছে বলে মনে করা হচ্ছে। নির্বাচনে ডাকযোগে হোক আর কেন্দ্রে উপস্থিত হয়ে হোক, সমর্থকদের সর্বোচ্চ ভোট প্রদান নিশ্চিত করার প্রয়াস নিয়েছে ডেমোক্রেটিক দলের প্রচার শিবির।

প্রচার ব্যবস্থাপক জেন ও’ম্যালি ডিলন বলেছেন, যদি আমরা ২০১৬ সাল থেকে শিক্ষা নিই, তাহলে ডোনাল্ড ট্রাম্পকে খাটো করে দেখার কোনো কারণ নেই। যেকোনো অবস্থা থেকে যেকোনো অস্বাভাবিক অবস্থার সৃষ্টি করতে পারঙ্গম ট্রাম্পকে শেষ মুহূর্ত পর্যন্ত গুরুত্ব দিয়ে দেখতে হবে।

বাইডেনের প্রচার শিবির থেকে দুর্দান্ত প্রচার চালানো হচ্ছে। শুরুর দিকে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প একাই প্রচার চালালেও এখন প্রচার বেশ জমে উঠেছে। ডেমোক্রেটিক দলের তহবিলে অর্থের প্রবাহও সন্তোষজনক পর্যায়ে। প্রচার তহবিল সংগ্রহের দিকেও ডেমোক্রেটিক দলের এগিয়ে থাকা একটা বড় ঘটনা।

ব্যাটলগ্রাউন্ড রাজ্যগুলোতে বাইডেনের প্রচার শিবিরের ৩৫০০ পেশাদার নির্বাচনী কর্মী কাজ করছেন। মূলত ১৭টি রাজ্য টার্গেট করে বেশি প্রচার চালানো হচ্ছে।

ডেমোক্রেটিক দলের পক্ষ থেকে শেষ মুহূর্তে চাঁদা দিয়ে প্রচারকে বেগবান রাখার আহ্বান জানানো হয়েছে। সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম ও অনলাইনে ডেমোক্রেটিক দলের প্রচার শিবির চাঁদা দাতাদের সহযোগিতা কামনা করেছে।

মন্তব্য পড়ুন 0