default-image

মাঝারি ও গুরুতর পর্যায়ের কোভিড–১৯ প্রতিরোধে জনসন অ্যান্ড জনসনের তৈরি টিকা ৬৬ শতাংশ কার্যকর। বিশ্বব্যাপী তৃতীয় ধাপের পরীক্ষামূলক প্রয়োগে এই ফলাফল পাওয়া গেছে। তবে জনসন জানিয়েছে, শুধু গুরুতর পর্যায়ের কোভিড–১৯ প্রতিরোধে টিকাটি ৮৫ শতাংশ কার্যকর। জনসন এক ডোজের এই টিকা তৈরি করছে।


মার্কিন সংবাদমাধ্যম সিএনএনের খবরে বলা হয়েছে, আজ শুক্রবার এই ফলাফল প্রকাশ করেছে জনসন অ্যান্ড জনসন। প্রতিষ্ঠানটির পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, শুধু যুক্তরাষ্ট্রে সহনীয় ও গুরুতর রোগ প্রতিরোধে তাদের তৈরি টিকা ৭২ শতাংশ কার্যকর বলে দেখা গেছে।


কার্যকারিতার প্রশ্নে জনসনের টিকা বাকিগুলো থেকে কিছুটা ভিন্ন। ফাইজার–বায়োএনটেক ও মডার্নার তৈরি করোনার টিকা প্রায় ৯৫ শতাংশ কার্যকর বলে জানা গিয়েছিল। সে তুলনায় জনসনের তৈরি টিকার কার্যকারিতা তুলনামূলক কম।
জনসন অ্যান্ড জনসনের টিকাটির সম্ভাব্য নাম ‘জ্যানসেন’। অন্য টিকা দুই ডোজ প্রয়োজন হলেও জনসন অ্যান্ড জনসনের টিকার মাত্র এক ডোজ প্রয়োজন হবে। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, এক ডোজের টিকা হিসেবে এর কার্যকারিতা খারাপ নয়।
যুক্তরাষ্ট্রে চূড়ান্ত টিকা পরীক্ষায় বা তৃতীয় ধাপের পরীক্ষায় জনসন অ্যান্ড জনসনের টিকাটি তালিকায় চতুর্থ। টিকা পরীক্ষার ক্ষেত্রে জনসন অ্যান্ড জনসনের পরীক্ষাটি সবচেয়ে বড় পরিসরে করা হয়েছে। গত ২৩ সেপ্টেম্বর থেকে যুক্তরাষ্ট্রে করোনাভাইরাসের টিকা পরীক্ষার তৃতীয় ধাপ শুরু করেছিল জনসন। যুক্তরাষ্ট্র ছাড়াও টিকাটির পরীক্ষা চালানো হয় আর্জেন্টিনা, ব্রাজিল, চিলি, কলম্বিয়া, মেক্সিকো, পেরু ও দক্ষিণ আফ্রিকায়।

বিজ্ঞাপন


জনসনের টিকা তৈরিতে মানুষের কাছ থেকে পাওয়া অ্যাডেনোভাইরাস ব্যবহার করা হয়েছে। ফাইজার–বায়োএনটেক ও মডার্নার তৈরি করোনা টিকায় ব্যবহার করা হয়েছে এমআরএনএ প্রযুক্তি।


বিশেষজ্ঞরা বলছেন, মহামারি প্রতিরোধে জনসন অ্যান্ড জনসনের তৈরি করোনার টিকা যুক্তরাষ্ট্রসহ সারা বিশ্বে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে। মার্কিন রোগ বিশেষজ্ঞ অ্যান্থনি ফাউসি বলেছেন, জনসনের টিকা কার্যকর প্রমাণিত হওয়ায় এটি যুক্তরাষ্ট্রের স্বাস্থ্য ব্যবস্থার ওপর চাপ কমাবে বলে তিনি মনে করেন।


জনসনের টিকার কার্যকারিতা দেশ ও অঞ্চলভেদে একেক রকম হয়েছে। যেমন: যুক্তরাষ্ট্রে টিকাটি ৭২ শতাংশ, লাতিন আমেরিকায় ৬৬ শতাংশ ও দক্ষিণ আফ্রিকায় ৫৭ শতাংশ কার্যকর বলে প্রমাণিত হয়েছে। টিকা প্রয়োগের এক মাস পর কার্যকারিতা পরীক্ষা করা হয়।

যুক্তরাষ্ট্র থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন