default-image

মার্কিন সুপ্রিম কোর্টের সদ্যপ্রয়াত বিচারক রুথ ব্যাডার গিনসবার্গের সম্ভাব্য উত্তরসূরির নাম আগামী শুক্র বা শনিবার ঘোষণা করা হতে পারে বলে জানিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। আজ সোমবার ‘ফক্স অ্যান্ড ফ্রেন্ডসে’ দেওয়া সাক্ষাৎকারে তিনি এ কথা জানিয়েছেন।

দুটি সূত্রের বরাত দিয়ে মার্কিন সংবাদমাধ্যম সিএনএন জানিয়েছে, নারী অধিকার আইকনে রূপান্তরিত হওয়া ও উদারনৈতিক হিসেবে খ্যাতিসম্পন্ন সুপ্রিম কোর্টের বিচারক রুথ ব্যাডার গিনসবার্গের মারা যাওয়ার পর থেকেই তাঁর উত্তরসূরি কে হবেন, তা নিয়ে জল্পনা চলছে। রিপাবলিকানরা চাইছেন দ্রুততার সঙ্গে এ পদে নিয়োগ দিতে। গত শনিবার নর্থ ক্যারোলাইনা সফর ও গতকাল রোববার গলফ কোর্সে অবকাশ যাপনের সময়ও ফোনে নিজের উপদেষ্টাদের সঙ্গে বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করেছেন। এসব আলোচনা থেকে এটা স্পষ্ট যে, তিনি খুব দ্রুত নিয়োগ দিতে চান।

বিজ্ঞাপন
default-image

আজ সোমবার এ-বিষয়ক জল্পনার অবসান ঘটিয়ে তিনি ফক্স অ্যান্ড ফ্রেন্ডসকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে বলেন, ‘আমরা (গিনসবার্গকে) সম্মান জানাতে চাই। আশা করি শুক্র অথবা শনিবার এটা (নাম ঘোষণা) হবে। আমি যতটা বুঝতে পারছি, তাতে বৃহস্পতি বা শুক্রবার তাঁর শেষকৃত্য অনুষ্ঠিত হতে পারে। বিচারক গিনসবার্গকে শ্রদ্ধা জানাতে এ জন্য আমাদের অপেক্ষা করা উচিত। তাই আমরা শুক্র অথবা শনিবারের দিকে তাকিয়ে আছি।’

আগেই বলা হয়েছে রিপাবলিকানরা চাইছেন দ্রুততার সঙ্গে গিনসবার্গের শূন্যস্থান পূরণ করতে। প্রেসিডেন্টের উপদেষ্টাদের একাংশ এ জন্য গিনসবার্গের উত্তরসূরির নাম ঘোষণার করতে তোড়জোড় শুরু করে। এ ক্ষেত্রে তাঁরা এমনকি গিনসবার্গের শেষকৃত্যের জন্য অপেক্ষা করতেও রাজি নন। অন্যদিকে উপদেষ্টাদের অন্য অংশ বলছেন, গিনসবার্গের শেষকৃত্যের আগে কোনো নাম ঘোষণা করলে তাঁকে অসম্মান করা হবে। বিষয়টি মানুষ ভালোভাবে নেবে না। নির্বাচনের আগে ডেমোক্র্যাটরাও একটি ইস্যু পেয়ে যাবে।

বিজ্ঞাপন

এই প্রেক্ষাপটে দাঁড়িয়ে ডোনাল্ড ট্রাম্প বলা যায় নিরাপদ বিকল্পটিই বেছে নিয়েছেন। আগামী শুক্রবার বা শনিবার তিনি সম্ভাব্য ব্যক্তির নাম ঘোষণা করবেন। সিএনএন জানায়, এরই মধ্যে সম্ভাব্য উত্তরসূরির একটি তালিকা করা হয়েছে। এই তালিকা কেটেছেঁটে পাঁচজনে নামিয়ে আনা হয়েছে বলেও ফক্স নিউজকে জানিয়েছেন ডোনাল্ড ট্রাম্প।

ডোনাল্ড ট্রাম্প ফক্স নিউজকে বলেন, তালিকা পাঁচজনে নামিয়ে আনা হয়েছে। তাঁদের মধ্যে যেকোনো একজন হতে পারেন।

এর পরপরই অবশ্য ট্রাম্প বলেন চারজনের কথা। এর মধ্যে দুজনের নাম তিনি প্রকাশ করেছেন। এরা হলেন অ্যামি কোনি ব্যারেট ও বারবারা লাগোয়া। এ দুজনের মধ্যে ব্যারেটকে নিয়েই আলোচনা বেশি হচ্ছে। ২০১৮ সালে সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতি নিয়োগের সময়ও তিনি প্রেসিডেন্টের ছোট তালিকায় ছিলেন। পরে অবশ্য ব্রেট কাভানা এ পদে নিয়োগ পান। তবে ট্রাম্প জানিয়েছিলেন, গিনসবার্গের জন্যই ব্যারেটকে তিনি রেখে দিয়েছেন।

মন্তব্য পড়ুন 0