default-image

আমেরিকার মিশিগান অঙ্গরাজ্যের ডেট্রয়েট শহরের ক্যাসিনো থেকে অভিনব কায়দায় লাখো ডলার হাতিয়ে নিয়েছেন এক ব্যক্তি। হার্পার উডস শহরের জন ক্রিস্টোফার কোলেটি নামের ওই ব্যক্তি বিভিন্ন মানুষের মুখের কৃত্রিম মুখোশ ব্যবহার করে এই ডলার চুরি করেছেন। তাঁকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

পুলিশ জানায়, ডেট্রয়েট শহরের এমজিএম গ্র্যান্ড ক্যাসিনো ও মিজৌরি অঙ্গরাজ্যের কানসাস শহরের ক্যাসিনো থেকে কোলেটি হাজার হাজার ডলার চুরি করেছেন। নিজেকে বয়স্ক ব্যক্তি হিসেবে পরিচিত করার জন্য তিনি বেশ কিছু মানুষের মুখের কৃত্রিম মুখোশ ব্যবহার করতেন। ৫৫ বছর বয়সী কোলেটির বিরুদ্ধে তার জালিয়াতি, পরিচয় চুরি, অ্যাক্সেস ডিভাইস জালিয়াতি সম্পর্কিত ক্রিয়াকলাপের অভিযোগ আনা হয়েছে।

এফবিআই তদন্তকারীরা ২৩ জুলাই এ–সংক্রান্ত একটি বিবরণ প্রকাশ করেছেন। সেখানে বলা হয়েছে, কোলেটি কীভাবে ২০১৯ সালের মে মাসে ডেট্রয়েটের এমজিএম গ্র্যান্ড ক্যাসিনো থেকে কমপক্ষে ১০ জনের কাছ থেকে কমপক্ষে এক লাখ ডলার এবং মার্চ মাসে কানসাসের মায়েটায় প্রাইরি ব্র্যান্ড ক্যাসিনো থেকে কয়েকজনের কাছ থেকে ২০ হাজার ডলারের বেশি হাতিয়ে নিয়েছিলেন। কোলেটি একাধিক কৃত্রিম মুখোশ, বিভিন্ন ধরনের টুপি, চশমা ও সার্জিক্যাল মাস্ক, ওয়াকার ব্যবহার করে বিভিন্ন ছদ্মবেশ ধারণ করেন। নকল পরিচয়পত্র, ড্রাইভিং লাইসেন্স ব্যবহার করে ক্যাসিনো যাত্রীদের প্রতারণা করার একটি বিস্তৃত পরিকল্পনা তৈরি করেছিলেন তিনি। অননুমোদিত ই-চেক তৈরির জন্য অবৈধভাবে অন্যের ব্যক্তিগত তথ্য দিয়ে ক্যাসিনোর অভ্যন্তরে গ্লোবাল পেমেন্ট কিয়স্ক থেকে অর্থও উত্তোলন করেছেন।

আদালতের নথি থেকে জানা গেছে, কোলেটির কাছে ৮৩ জনের নামে ড্রাইভিং লাইসেন্স, ১৪ জনের নামে বিমা কার্ড, ছয়টি ওয়াটার ড্রাইভার সার্টিফিকেশন কার্ড, দুটি বিঙ্গাম্পটন বিশ্ববিদ্যালয়ের স্টাফ আইডি কার্ড, বিভিন্ন ক্যাসিনোর ১৯টি খেলোয়াড় কার্ড এবং অ্যালাইস মাইকেল হ্যারিস নামে একটি সোশ্যাল সিকিউরিটি কার্ড জব্দ করা হয়েছে। ১৭ জুলাই ডেট্রয়েটের একটি আদালতে তাঁর বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে। কানসাস পুলিশ তাঁকে গ্রেপ্তার করেছে। বিচারের জন্য তাঁকে মিশিগানে ফিরিয়ে আনা হবে।

বিজ্ঞাপন
যুক্তরাষ্ট্র থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন