default-image

করোনা পরবর্তী জটিলতায় আনোয়ার মোর্শেদ চাকলাদার ওরফে বাবুল (৫২) নামের জর্জিয়াপ্রবাসী এক বাংলাদেশির মৃত্যু হয়েছে (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)। ৫ ফেব্রুয়ারি পার্শ্ববর্তী অঙ্গরাজ্য টেনেসির একটি হাসপাতালে তাঁর মৃত্যু হয়।

মরহুম আনোয়ার মোর্শেদ জর্জিয়া অঙ্গরাজ্যের নরক্রস সিটির বাসিন্দা হলেও সম্প্রতি ব্যবসা সংক্রান্ত কাজে টেনেসি অঙ্গরাজ্যের মরিসটাউন সিটিতে পরিবার নিয়ে বাস করতেন। ছয় মাস আগে সেখানেই তিনি করোনায় সংক্রমিত হয়েছিলেন। করোনা থেকে সেরে উঠলেও শারীরিক দুর্বলতাসহ নানা জটিলতায় ভুগছিলেন তিনি।

বিজ্ঞাপন

পরিবারের অভিযোগ, করোনায় সংক্রমিত হওয়ার পর আনোয়ার মোর্শেদকে ত্রুটিপূর্ণ ভেন্টিলেশনে রাখা হয়েছিল। ৩ ফেব্রুয়ারি ভেন্টিলেশন দেওয়ার জায়গা দিয়ে তাঁর রক্তক্ষরণ হরে সঙ্গে সঙ্গে স্থানীয় ইউনিভার্সিটি অব টেনেসি মেডিকেল সেন্টারে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে শারীরিক অবস্থার কোনো উন্নতি না হলে পরে হেলিকপ্টারে রাজ্যের চ্যাটানুগা সিটির পার্কসাইড মেডিকেল সেন্টার নিয়ে যাওয়া হয়। ৫ ফেব্রুয়ারি সেখানেই তিনি শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করেন।

বাংলাদেশের জামালপুর জেলার মাদারগঞ্জ উপজেলার বাসিন্দা আনোয়ার মোর্শেদ মৃত্যুকালে স্ত্রী ও দুই ছেলেসহ বহু গুণগ্রাহী রেখে গেছেন।

বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব জর্জিয়া সূত্রে জানা গেছে, আনোয়ার মোর্শেদের মরদেহ টেনেসি থেকে ৬ ফেব্রুয়ারি জর্জিয়ায় নিয়ে যাওয়া হবে। সেখানে স্থানীয় আত্তাকোয়া মসজিদে তাঁর জানাজা অনুষ্ঠিত হবে। জানাজা শেষে জর্জিয়ার নিউটন কাউন্টির কভিনটন শহরের মুসলিম কবরস্থানে তাঁকে দাফন করা হবে।

যুক্তরাষ্ট্র থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন