default-image

মার্কিন ওষুধ কোম্পানি মডার্না বলেছে, দক্ষিণ আফ্রিকায় পাওয়া করোনার নতুন ধরনের বিরুদ্ধে বর্তমান টিকার ডোজ কম কাজ করছে। তাই কোম্পানি টিকার বিকল্প ভার্সন পরীক্ষার পরিকল্পনা করছে। বুস্টার টিকা নিয়ে দ্রুত কাজ শুরু করছে তারা।

এর আগে কোম্পানির পক্ষ থেকে দাবি করা হয়েছিল, যুক্তরাজ্য ও দক্ষিণ আফ্রিকায় পাওয়া করোনাভাইরাসের নতুন দুটি স্ট্রেইনকে নিষ্ক্রিয় করতে সক্ষম এমন অ্যান্টিবডি তৈরিতে তাদের তৈরি করোনা টিকা সক্ষম হয়েছে। আজ সোমবার এ সম্পর্কিত এক বিবৃতিতে এ কথা জানিয়েছে প্রতিষ্ঠানটি।

মার্কিন সংবাদমাধ্যম সিএনএনের প্রতিবেদনে বলা হয়, যুক্তরাজ্য ও দক্ষিণ আফ্রিকায় বিস্তার পাওয়া করোনাভাইরাসের নতুন দুটি স্ট্রেইন নিয়ে শঙ্কা তৈরি হয়েছে এরই মধ্যে। নতুন এই দুই স্ট্রেইন অন্যগুলোর চেয়ে বেশি প্রাণঘাতি বলে সতর্ক করেছেন স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা। এরই মধ্যে যুক্তরাজ্যে পাওয়া ভাইরাসটির নতুন ধরনটি যুক্তরাষ্ট্রেও ছড়িয়ে পড়েছে। এই প্রেক্ষাপটে মডার্নার পক্ষ থেকে দেওয়া এই বিবৃতি আশার আলো দেখাচ্ছিল।

উল্লেখ্য, করোনাভাইরাসের নতুন একটি ধরন প্রথম যুক্তরাজ্যে শনাক্ত হলেও এটি এরই মধ্যে ৪৫টি দেশে ছড়িয়ে পড়েছে। আর দক্ষিণ আফ্রিকায় প্রথম পাওয়া নতুন স্ট্রেইনটি এরই মধ্যে ২০টি দেশে ছড়িয়ে পড়েছে। যুক্তরাষ্ট্রে প্রথমটি এরই মধ্যে ছড়িয়ে পড়লেও এখনো সেখানে দ্বিতীয়টির দেখা মেলেনি। তবে মার্কিন স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞদের ধারণা, দক্ষিণ আফ্রিকায় পাওয়া নতুন স্ট্রেইনটিও যুক্তরাষ্ট্রে ছড়াতে শুরু করেছে।

বিজ্ঞাপন

ইতিপূর্বে মডার্নার বিবৃতিতে দাবি করা হয়, দ্রুত ছড়িয়ে পড়া করোনাভাইরাসের নতুন স্ট্রেইন দুটির বিরুদ্ধে মডার্নার তৈরি টিকার দুই ডোজ সুরক্ষা দেবে বলে আশা করা হচ্ছে। প্রতিষ্ঠানটির চালানো গবেষণায় দেখা গেছে, প্রথম যুক্তরাজ্যে শনাক্ত হওয়া ভাইরাসটির নতুন স্ট্রেইন তাদের তৈরি টিকার কার্যকারিতার ওপর তেমন প্রভাব ফেলে না।

অন্যদিকে দক্ষিণ আফ্রিকায় পাওয়া স্ট্রেইন নিয়ে শুরুতে পরিচালিত গবেষণার ফল খুব একটা আশাব্যঞ্জক ছিল না। প্রথম দিককার গবেষণায় দেখা যায়, নতুন এই স্ট্রেইনের বিরুদ্ধে বিদ্যমান টিকা পুরোপুরি কার্যকর নয়। তবে এখন প্রতিষ্ঠানটি বলছে, করোনার নতুন এই স্ট্রেইনের বিরুদ্ধেও তাদের টিকা কার্যকর বলে তারা আশা করছে। শুরুতে এই স্ট্রেইন টিকার ভাইরাস নিষ্ক্রিয় করার ক্ষমতা ছয় ভাগের এক ভাগে নামিয়ে আনে বলে প্রমাণ মিললেও এখন দেখা যাচ্ছে, টিকার কার্যকারিতা কমালেও তা এখনো সুরক্ষা দেওয়ার পর্যায়ে রয়েছে।

ডিউক ইউনিভার্সিটির মেডিকেল সেন্টারের ভাইরাস বিশেষজ্ঞ ডেভিড মন্টেফিওরি সিএনএনকে বলেন, পুরোপুরি নিশ্চিত না হলেও নতুন স্ট্রেইনের বিরুদ্ধেও মডার্নার টিকা কার্যকর হবে বলে তিনি আশাবাদী। তবে বিষয়টি নিয়ে তিনি সতর্ক অবস্থানে রয়েছেন। তিনি বলেন, ‘কার্যকারিতা কিছুটা কমলেও সুরক্ষা দেওয়ার জন্য তা এখনো যথেষ্ট কার্যকর বলে মনে হয়। নতুন স্ট্রেইনের বিরুদ্ধে এই টিকা ৭০-৮০ শতাংশ কার্যকর বলে আমি আশা করি।’

যুক্তরাষ্ট্র থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন