অস্বস্তিতে বিমানকর্মীরা

বিজ্ঞাপন

যুক্তরাষ্ট্রে বর্ণবাদবিরোধী আন্দোলনে গোটা জাতি বিভক্ত। দেশের দুই প্রধান রাজনৈতিক দল এ বিষয়ে দুই মেরুতে অবস্থান করছে। আর এরই মধ্যে আমেরিকান এয়ারলাইনস ঘোষণা করেছে, তারা তাদের ফ্লাইট অ্যাটেন্ডেন্ট বা বিমানবালাদের দায়িত্ব পালনকালে তাঁদের ইউনিফর্মে ‘ব্ল্যাক লাইভস ম্যাটার’ শীর্ষক পিনটি পরতে দেবে। এই জনপ্রিয় এয়ারলাইনস সংস্থাটি তাদের নিজস্ব পিন ডিজাইনের ওপরও কাজ করছে বলে জানা গেছে।

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

৬ সেপ্টেম্বর আমেরিকান এয়ারলাইনস এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলেছে, ‘স্পষ্টতই আমরা এমন এক সময়ে বাস করছি, যেখানে আমাদের সমাজে বর্ণবাদের এই গুরুত্বপূর্ণ ইস্যু নিয়ে সংলাপ খুবই গুরুত্বপূর্ণ। যুক্তরাষ্ট্র সবাইকে এ দেশে স্বাগত জানায়। আমাদের দেশ ও বিশ্বের প্রতিচ্ছবি প্রতিনিধিত্ব করতে একটি অন্তর্ভুক্তিমূলক সংস্কৃতি ধারণ করতে আমরা প্রতিশ্রুতিবদ্ধ।’

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

আমেরিকান এয়ারলাইনসের এই ঘোষণার ফলে কিছু ফ্লাইট অ্যাটেন্ডেন্টের মধ্যে মিশ্র প্রতিক্রিয়া লক্ষ্য করা গেছে। আমেরিকান এয়ারলাইনসের একজন বিমানবালা নিউইয়র্ক পোস্টকে বলেন, ‘আমি এই পিন পরায় অপরাধবোধ করি, গুরুতর অপরাধ। আমার স্বামী একজন আইন প্রয়োগকারী কর্মকর্তা, যেমনটি ছিলেন আমার মৃত বাবাও। সবার জীবনের মূল্য আছে—শুধু একটি সম্প্রদায় নয়। এটা পুরোপুরি হতাশাজনক যে আমাদের দেশ, আমাদের পুলিশের পক্ষে সমর্থন দেখাতে পারে না। তবে যখন একটি বিতর্কিত সংস্থা বিএলএম পক্ষে আমেরিকান এয়ারলাইনস সমর্থন পক্ষপাতদুষ্ট।’

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

অন্য আরেকজন ফ্লাইট অ্যাটেন্ডেন্ট ফক্স নিউজকে বলেন, বিএলএম পিনের অনুমতি পেলে তিনি পোশাকে ট্রাম্প পিন পরবেন। অন্যরা ভয় পান, তারা পিন না পরলে বর্ণবাদী বলে বিবেচিত হবে। রাজনৈতিক অধিকারের কেউ কেউ এই অবস্থান নিয়ে আমেরিকান এয়ারলাইনস বর্জন করার আহ্বান জানিয়েছে।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0
বিজ্ঞাপন