default-image

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প অবশেষে প্রকাশ্যে কথা বলতে আসছেন। বিষয়টি জানিয়ে তিনি টুইট করেছেন। আজ সোমবার বিবিসি অনলাইনের প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়।

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ডেমোক্রেটিক পার্টির প্রার্থী জো বাইডেন জয়ী বলে গত শনিবার ঘোষণা আসে। সেদিন পেনসিলভানিয়ার ফল বাইডেনের পক্ষে এলে প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হওয়ার জন্য প্রয়োজনীয় ইলেক্টোরাল কলেজ ভোট পেয়ে যান তিনি।

বিজ্ঞাপন

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট হতে ২৭০টি ইলেক্টোরাল কলেজ ভোট প্রয়োজন। এখন পর্যন্ত বাইডেনের ইলেক্টোরাল কলেজ ভোটের সংখ্যা ২৭৯। ট্রাম্পের ২১৪। এখনো আলাস্কা, অ্যারিজোনা, জর্জিয়া ও নর্থ ক্যারোলাইনার ফল পাওয়া যায়নি।

মার্কিন সংবাদমাধ্যমে বাইডেনের বিজয় ঘোষণার সময় তাঁর রিপাবলিকান প্রতিপক্ষ প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প ভার্জিনিয়ায় নিজের গলফ ক্লাবে গলফ খেলছিলেন। পরাজিত হওয়ার পর থেকে এখন পর্যন্ত ট্রাম্প প্রকাশ্যে এসে কথা বলেননি। তবে তিনি এ সময়ে বিবৃতি দিয়েছেন। যথারীতি টুইটও করেছেন।

৯ নভেম্বর এক টুইটে ট্রাম্প জানান, যুক্তরাষ্ট্রের স্থানীয় সময় রাত আটটায় তিনি ডানপন্থী রেডিও উপস্থাপক মার্ক লেভিনের সঙ্গে কথা বলবেন।

ট্রাম্প তাঁর টুইটে উল্লেখ করেছেন, তিনি মেইল ব্যালট নিয়ে কথা বলবেন।

বিবিসি জানিয়েছে, ট্রাম্পের টুইট থেকে মনে হয়, ভোট গণনা নিয়ে আগে তোলা বিভিন্ন অভিযোগেরই পুনরাবৃত্তি করতে পারেন তিনি।

ট্রাম্প ভোট গণনার ক্ষেত্রে কারচুপি-জালিয়াতির অভিযোগ করে আসছেন। তবে এসব অভিযোগের পক্ষে কোনো প্রমাণ হাজির করেননি তিনি।

ভোট গণনার মধ্যেই ট্রাম্প দাবি করেন, নির্বাচনে তিনি জয়ী হয়েছেন। তিনি পরাজয় মানবেন না।

ভোটে কারচুপিসহ বিভিন্ন অভিযোগে কয়েকটি অঙ্গরাজ্যে ইতিমধ্যে ট্রাম্পের পক্ষে মামলা হয়েছে। ট্রাম্প ভোট নিয়ে সুপ্রিম কোর্টে যাবেন বলে হুমকি দিয়ে রেখেছেন।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0