বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

এদিকে ক্যাথি হকুলও রাজ্য গভর্নর পদে প্রার্থী হবেন। রাজ্যের বাফেলো এলাকাসহ নগরকেন্দ্রের বাইরে তাঁর জনপ্রিয়তা দ্রুতই টের পাওয়া যাচ্ছে। তিনি নিজেও সক্রিয় হয়ে উঠেছেন। লেফটেন্যান্ট গভর্নরসহ অন্যান্য পদে টেনে নিচ্ছেন মিশ্র জনগোষ্ঠীর প্রতিনিধিকে। দুই দফা মেয়র হিসেবে দায়িত্ব পালনের পর মেয়র বিল ডি ব্লাজিও চেনা মুখ হলেও তাঁর দিনকাল ভালো যাচ্ছে না। গভর্নর পদে প্রার্থিতার জন্য ব্লাজিওর বিরুদ্ধে ইতিমধ্যে সমালোচনা শুরু হয়ে গেছে।

করোনা মহামারিতে যুক্তরাষ্ট্রে সবচেয়ে বড় বিপর্যয়ের মুখে পড়েছিল নিউইয়র্ক। সংকটের সময় মেয়র ব্লাজিও এবং গভর্নর অ্যান্ড্রু কুমো সংকট মোকাবিলায় ঝাঁপিয়ে পড়েছিলেন। মহামারি মোকাবিলায় গভর্নর কুমোর নামই স্বাভাবিক কারণে উচ্চারিত হয়েছে সবার আগে। এর মধ্যে নানা কারণে অ্যান্ড্রু কুমোর সঙ্গে ব্লাজিওর বৈরী সম্পর্কও তখন প্রকাশ্য হয়ে উঠেছিল। কুমোর পদত্যাগের দাবিও জানিয়েছেন বিল ডি ব্লাজিও বেশ আগে।

মহামারি পেরোনো নিউইয়র্কে এখন অপরাধ বেড়েছে। মেয়র বিল ডি ব্লাজিওর বিরুদ্ধে অপরাধ নিয়ন্ত্রণে ব্যর্থতার ব্যাপক অভিযোগ উঠেছে। নাগরিক আন্দোলনের জের ধরে পুলিশ সংস্কারের বড় পদক্ষেপ নিয়েছেন ব্লাজিও। নগরের পুলিশের সঙ্গেও তাঁর দূরত্ব সৃষ্টির কথা এখন প্রকাশ্য। রাইকার্স আইল্যান্ডের কারাগার নিয়ে অস্থিরতা সামাল দিতে তিনি ব্যর্থ হয়েছেন। দুর্ধর্ষ অপরাধীদের রাখার জন্য নগর প্রান্তের রাইকার্স আইল্যান্ডে সহিংসতা হচ্ছে। কারেকশন অফিসারদের ওপর হামলা হয়েছে। কারাবন্দীরা মানবেতর অবস্থায় আছে বলে একের পর এক রিপোর্ট আসার পরও সমস্যার সমাধান হয়নি। এর দায় পড়ছে মেয়র ব্লাজিও ওপর।

মহামারি পরবর্তী সংকট মোকাবিলাও সহজ হচ্ছে না বিল ব্লাজিওর জন্য। করোনা টিকার বাধ্যবাধকতা নিয়ে নগরের স্কুলশিক্ষক ও স্বাস্থ্য কর্মীদের মধ্যে অসন্তোষ চলছে। ইউনিয়নগুলো কার্যত মেয়রের বিপক্ষেই অবস্থান নিয়েছে।

নিউইয়র্ক নগরেতে সড়ক দুর্ঘটনাও বেড়েছে। দ্রুত গাড়ি চালিয়ে পথচারীকে আহত-নিহত করার ঘটনা ঘটছে। বাড়ছে গাড়ি চুরির ঘটনাও। এসব আইনশৃঙ্খলার বিষয়ে নগরের মানুষের অভিযোগ মেয়র ব্লাজিওর বিরুদ্ধে।

নিউইয়র্কের ফোর্ডাম ইউনিভার্সিটির অধ্যাপক ক্রিন্টিনা গ্রির বলেছেন,অবহেলা, অলসতা এবং প্রতিদিনের অবহেলাই নগরে মেয়র বিল ব্লাজিওর ভাবমূর্তি হয়ে দাঁড়িয়েছে।

এমন ভাবমূর্তি নিয়ে মেয়র বিল ডি ব্লাজিও গভর্নর ক্যাথি হকুলের বিপক্ষে কতটা পেরে উঠবেন, তা এখনো নিশ্চিত নয়। ডেমোক্রেটিক দলের রাজনীতিতে উদারনৈতিকদের সমর্থন রয়েছে তাঁর প্রতি। নগরকেন্দ্রের বাইরে এ সমর্থন নিয়ে মধ্যপন্থী ডেমোক্র্যাট ক্যাথি হকুল বা আসছে রাজ্য গভর্নর নির্বাচনে দাঁড়ানো অন্য প্রার্থীদের কীভাবে মোকাবিলা করবেন—এ নিয়ে ব্লাজিও সমর্থকেরাও নিশ্চিত নন। তবে রাজনীতির মাঠে থাকার জন্য বিল ডি ব্লাজিও যে গভর্নর পদে নির্বাচন করবেন বেশ জোরালোভাবে, এ কথা নিশ্চিত বলা যায়।

নিউইয়র্ক থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন