default-image

বাংলাদেশ আমেরিকান সোসাইটির (বিএএস) পক্ষ থেকে বাংলাদেশের শরিয়তপুরের নড়িয়া উপজেলায় করোনাভাইরাস মহামারিকালে কর্মহীন ও বন্যা দুর্গতদের মধ্যে খাদ্য ও আর্থিক সহায়তা দেওয়া হয়েছে। গত ২৮ আগস্ট এ সহায়তা দেওয়া হয়।

শরিয়তপুরের নড়িয়া উপজেলার ৫০০ পরিবারকে এক হাজার টাকা করে দেওয়া হয়। এ সময় বাংলাদেশের পানিসম্পদ উপমন্ত্রী এ কে এম এনামুল হক উপস্থিত ছিলেন। স্থানীয় কেদারপুর উচ্চবিদ্যালয় মাঠে এ খাদ্য ও অর্থ সহায়তা বিতরণ করা হয়। কেদারপুর ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান আবুল বাশার দেওয়ানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তানভীর আল নাসীফ, সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান ওহাব ব্যাপারী, উপজেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি ফজলুল হক, বাদশা শেখ, সাধারণ সম্পাদক হাসানুজ্জামান খোকন, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শহিদুল ইসলাম, শহিদুল ইসলাম সিকদার, সাংগঠনিক সম্পাদক সিরাজুল ইসলাম প্রমুখ। অনুষ্ঠানের সার্বিক সহযোগিতায় ছিলেন ইলিয়াস সিকদার, আলমগীর হোসেন ও শেখ সাদী আহমেদ।

বিজ্ঞাপন

পদ্মার ভাঙনে শরিয়তপুরের নড়িয়া উপজেলার প্রায় ১ লাখ লোক পানিবন্দী। বন্যার পানিতে ভাসছে নড়িয়ার ১২টি ইউনিয়নের শতাধিক গ্রাম। কর্মহীন হয়ে পড়ায় মানবেতর জীবনযাপন করছে বানভাসি মানুষ। ভেঙে পড়েছে গ্রামীণ যোগাযোগ ব্যবস্থা। এই সংকটময় সময়ে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিল বিএএস।

বিএএসের পক্ষ থেকে জানানো হয়, কিছুদিন আগে জুম মিটিংয়ের মাধ্যমে করোনা ও বন্যায় বিপর্যস্ত মানুষকে সাহায্য করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। লস অ্যাঞ্জেলেসে অনুষ্ঠিত সেই জুম সভায় সভাপতিত্ব করেন সংগঠনের সভাপতি সাইদুল হক। সাধারণ সম্পাদক হুমায়ুন কবিরের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত সভায় বক্তব্য রাখেন মোয়াজ্জেম হোসেন চৌধুরী, মাসুদ রব চৌধুরী, শিপার চৌধুরী, জয়নুল আবেদীন, মোখলেস ভূঁইয়া, সাজিয়া হক, ইলিয়াস সিকদার, খন্দকার মোর্শেদ, রফিকুল ইসলাম, সিদ্দিকুর রহমান, রাজু, কাজী গোলাম রহমান প্রমুখ। পরে সংগঠনের সদস্যদের মধ্য থেকে ১৫ হাজার ডলার সংগ্রহ করা হয়।

বিজ্ঞাপন

সভার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী গত ২৬ আগস্ট মুরাদ আহমেদের তত্ত্বাবধানে করোনাভাইরাসের প্রভাবে কর্মহীন হয়ে পড়া ও বন্যা দুর্গতদের মধ্যে খাদ্য সহায়তা প্রদান করা হয়। সে সময় টাঙ্গাইল সদর উপজেলার কাতুলি, হুগরা, বাঘিল, হাজরাঘাট অঞ্চলের ৪০০ পরিবারের মধ্যে এ সহায়তা দেওয়া হয়। দ্বিতীয় দফায় অর্থ সহায়তা দেওয়া হলো শরিয়তপুরের নড়িয়া উপজেলায়।

নিউইয়র্ক থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন