default-image

আগামী ২২ জুন অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে নিউইয়র্ক নগরের মেয়র নির্বাচনের দলীয় বাছাই পর্ব। এ নির্বাচনে মেয়র পদে এরিক অ্যাডামসকে সমর্থন জানিয়েছে বাংলাদেশি কমিউনিটি।

আনুষ্ঠানিক এ সমর্থন জানাতে ২৫ এপ্রিল জ্যাকসন হাইটসের ডাইভার্সিটি প্লাজায় একটি অনুষ্ঠানের আয়োজন করে বিভিন্ন স্তরের বাংলাদেশি আমেরিকান পেশাজীবীদের নিয়ে গঠিত ‘রাইজ আপ নিউইয়র্ক’ নামের একটি গ্রুপ।

বৃষ্টি উপেক্ষা করে ওই দিন সেখানে প্রায় ১০০ কমিউনিটি লিডার উপস্থিত ছিলেন। আনুষ্ঠানিক সমর্থনের আগে নানা সময় ব্যক্তিগতভাবে এরিক অ্যাডামসের সঙ্গে দেখা করেছেন ‘রাইজ আপ নিউইয়র্কে’র অনেক সদস্য। এ ছাড়া গ্রুপটির নানা অংশের সঙ্গে ভার্চ্যুয়ালি একাধিক বৈঠক হয়েছে এরিক অ্যাডামসের।

সিটির মেয়র পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করার জন্য এই মুহূর্তে অন্য যারা মাঠে নেমেছেন, নাগরিকদের দৃষ্টি আকর্ষণের ক্ষেত্রে তাঁদের থেকে ঢের এগিয়ে আছেন এরিক অ্যাডামস। বেশ জোরেশোরেই প্রচার চালিয়ে যাচ্ছেন তিনি। শুধু বাংলাদেশি কমিউনিটি নয়; ইতিমধ্যেই বিভিন্ন অর্থনৈতিক ও নৃতাত্ত্বিক সম্প্রদায়ের সমর্থন আদায়েও সক্ষম হয়েছেন তিনি।

এরিক অ্যাডামসের জন্ম নিউইয়র্কে। ২০ বছরেরও বেশি সময় ধরে তিনি দায়িত্ব পালন করেছেন নিউইয়র্ক পুলিশ বিভাগে (এনওয়াইপিডি)। মেধার স্বাক্ষর রেখে সেখানে ক্যাপ্টেন পদে উন্নীত হয়েছিলেন। এনওয়াইপিডি থেকে অবসরের পর ব্রুকলিন থেকে স্টেট সিনেটর হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন। এরপর ২০১৩ সাল থেকে এখন পর্যন্ত টানা দায়িত্ব পালন করে যাচ্ছেন ব্রুকলিন বরো প্রেসিডেন্ট হিসেবে। এবার মেয়র পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতার জন্য মাঠে নেমেছেন তিনি।

বিজ্ঞাপন

এরিক অ্যাডামস যে বাংলাদেশি কমিউনিটির সমর্থন আদায় করে নিয়েছেন, তার পেছনে আছে অনেক শ্রম। দীর্ঘ প্রচেষ্টায় তিনি ব্যক্তিগত সম্পর্ক গড়ে তুলেছেন। যোগ দিয়েছেন অসংখ্য সামাজিক অনুষ্ঠানে।

২৫ এপ্রিল আয়োজিত অনুষ্ঠানে রাইজ আপ নিউইয়র্কের সহপ্রতিষ্ঠাতা শামসুল হক বলেন, এরিক অ্যাডামস একজন প্রতিভাবান নেতা, অভিজ্ঞ পেশাদার এবং সত্যিকারের নিউইয়র্কার। ফৌজদারি বিচার ব্যবস্থার প্রয়োজনীয় সংস্কারে তাঁর যে জ্ঞান ও অভিজ্ঞতা রয়েছে, তা নিউইয়র্ক সিটিকে সুরক্ষিত রাখতে খুবই কাজে দেবে।

নিজেকে বাংলাদেশিদের ‘পুরোনো বন্ধু’ আখ্যা দিয়ে এরিক অ্যাডামস বলেন, ‘আমি শ্রমজীবী মানুষের সঙ্গে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে লড়াই করছি, ভবিষ্যতেও করব। প্রাপ্ত বয়স্কদের আরও ভালো মজুরি, আরও সাশ্রয়ী মূল্যের আবাসন, স্বাস্থ্যসেবা এবং রাস্তায় নিরাপদ চলাফেরা নিশ্চিত করার চেষ্টা করব।’

নিউইয়র্ক থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন