default-image

নিউইয়র্কে মানবাধিকার উন্নয়ন সংস্থা হিউম্যান সাপোর্ট করপোরেশনের বিনা মূল্যে টিকাদান কর্মসূচি অনুষ্ঠিত হয়েছে।

গত ৩০ আগস্ট বাঙালি অধ্যুষিত ব্রঙ্কসের স্টার্লিং-বাংলাবাজার এলাকায় মামুন’স টিউটোরিয়ালে হিউম্যান সাপোর্ট করপোরেশনের অষ্টম বর্ষের প্রথম বিনা মূল্যে টিকাদান কর্মসূচির আয়োজন করা হয়। বিকেল পাঁচটা থেকে রাত নয়টা পর্যন্ত এই কর্মসূচি চলে।

কানাই শীলকে টিকা দানের মাধ্যমে এ কর্মসূচির উদ্বোধন করা হয়। হিউম্যান সাপোর্ট করপোরেশনের সভাপতি ও যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের প্রবাসীকল্যাণ সম্পাদক মো. সোলায়মান আলীর সভাপতিত্বে এ কর্মসূচিতে অন্যদের মধ্যে অংশগ্রহণ করেন—মামুন’স টিউটোরিয়ালের স্বত্বাধিকারী শেখ আল মামুন, মুমতাজ জাহান, ওয়াল গ্রিন ফার্মাসিস্ট ও ফার্মেসি ম্যানেজার এনেচানিয়েত ওকেইন, সংগঠনের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক তপন সেন, বাংলাদেশি-আমেরিকান কালচারাল অ্যাসোসিয়েশনের সাবেক সভাপতি আবদুল হাসিম, সভাপতি আহবাব চৌধুরী, ফেঞ্চুগঞ্জ অর্গানাইজেশন অব আমেরিকার সাবেক সভাপতি জুনেদ আহমদ চৌধুরী, বাংলাদেশ সোসাইটি অব ব্রঙ্কসের সাবেক সভাপতি মাহবুব আলম, মো. শামীম মিয়া, মা ট্রাভেলস এজেন্সির সিইও আবুল কালাম আজাদ, শ্যামল কান্তি চন্দ প্রমুখ।

বিজ্ঞাপন

এই কর্মসূচির গ্র্যান্ড স্পনসর ছিল ওয়াল গ্রিন ও সিভিএস ফার্মেসি। সংগঠনের সভাপতি মো. সোলায়মান আলী ও ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক তপন সেন বলেন, স্বাস্থ্য সচেতনতা বৃদ্ধি ও কমিউনিটির সবার সুস্থতার জন্য বিনা মূল্যে ভ্যাকসিন কর্মসূচির আয়োজন করতে পেরে আমরা আনন্দিত। যাদের হেলথ ইনস্যুরেন্স নেই বা যারা নবাগত, বিনা মূল্যে টিকাদানের সুযোগ তাঁরা বেশি গ্রহণ করেন। যাদের হেলথ ইনস্যুরেন্স আছে তাঁরা নিজ নিজ প্রাইমারি ডাক্তারের অফিস বা ফার্মেসি থেকে এই ভ্যাকসিন নিতে পারেন। কিন্তু যারা আন ডকুমেন্টেড বা ভিজিটর, তাঁরা মূলত এই কর্মসূচিতে উপকৃত হন।

মো. সোলায়মান আলী বলেন, প্রথম দফা কর্মসূচিতে অর্ধশতাধিক মানুষ বিনা মূল্যে টিকা নেওয়ার সুযোগ পেয়েছেন। অষ্টম বর্ষে এবার তিন দিনব্যাপী এই কর্মসূচি ব্রঙ্কস ও কুইন্সে অনুষ্ঠিত হবে।

বিজ্ঞাপন

বছরের দ্বিতীয় কর্মসূচি আগামী ৬ সেপ্টেম্বর জ্যামাইকা হিলসাইডের স্কলাস্টিকা টিউটোরিয়ালে এবং তৃতীয় দফা কর্মসূচি ২০ সেপ্টেম্বর জ্যাকসন হাইটসের স্কলাস্টিকা টিউটোরিয়ালে অনুষ্ঠিত হবে।মো. সোলায়মান আলী আরও বলেন, উত্তর আমেরিকায় প্রতি বছর কয়েক হাজার মানুষ ফ্লু ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণ করেন।

তাই শীতে ফ্লু সিজনে প্রতি বছরই ইনফ্লুয়েঞ্জা ভাইরাসের প্রতিষেধক হিসেবে এই ভ্যাকসিন অধিক কার্যকরী ভূমিকা পালন করে।

নিউইয়র্ক থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন