নিউইয়র্কের ব্রঙ্কসে মুসল্লিদের ওপর হামলা চালিয়েছে এক কৃষ্ণাঙ্গ তরুণ। এতে কয়েকজন মুসল্লি আহত হয়েছেন। ২৮ আগস্ট জুমার নামাজের সময় স্থানীয় একটি মসজিদে এ হামলার ঘটনা ঘটে। পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে তরুণকে গ্রেপ্তার করেছে।

বিজ্ঞাপন
default-image

নর্থ ব্রঙ্কস এলাকার ২০৬ রশোম্ভ অ্যাভিনিউতে নর্থ ব্রঙ্কস ইসলামিক সেন্টারে জুমার নামাজের জন্য মুসল্লিরা মসজিদে সমবেত হতে থাকেন। একপর্যায়ে মসজিদের ভেতরে জায়গা না হওয়ায় মুসল্লিরা নামাজের জন্য ফুটপাত ও রাস্তায় অবস্থান নেন। নামাজ শুরুর আগেই মোটরবাইক নিয়ে এক কৃষ্ণাঙ্গ যুবক আক্রমণাত্মক কথা বলতে থাকে এবং একপর্যায়ে অকস্মাৎ মসজিদের মুসল্লিদের ওপর বাইক উঠিয়ে দেয়। এতে কয়েকজন মুসল্লি সামান্য আহত হন।

মুসল্লিরা তরুণকে ঘেরাও করে ৯১১-এ কল করলে দ্রুত এনওয়াইপিডির বিপুলসংখ্যক পুলিশ এসে এলাকাটি ঘিরে ফেলে। পাশাপাশি অ্যাম্বুলেন্স ও ফায়ার সার্ভিসের গাড়ি ঘটনাস্থলে পৌঁছে। পরিস্থিতি নাজুক হওয়ার আগেই উত্তেজিত মুসল্লিদের কবল থেকে পুলিশ কৃষ্ণাঙ্গ যুবকটিকে নিজেদের হেফাজতে নিয়ে যায়। হামলাকারী তরুণের নাম-পরিচয় জানা না গেলেও সে আফ্রিকান বংশোদ্ভূত বলে জানা গেছে। উল্লেখিত ঘটনায় আহতদের চিকিৎসার ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

পরে জানা গেছে, হামলাকারী যুবকটি ব্রঙ্কস এলাকায় বসবাস করে এবং মাঝেমধ্যেই কারও না কারও সঙ্গে বাগ্‌বিতণ্ডায় জড়িয়ে পড়ে। শুক্রবার জুমার নামাজের সময় মসজিদের বাইরে নামাজের জন্য অপেক্ষমাণ একজন বাংলাদেশি আমেরিকান তরুণের সঙ্গে আকস্মিক ওই কৃষ্ণাঙ্গ তরুণ বাকবিতণ্ডায় জড়িয়ে পড়ে। এতে উপস্থিত মুসল্লিরা ক্ষিপ্ত হয়ে উঠে এবং বাইকসহ তাকে আটক করে পুলিশ কল করলে পরিস্থিতি শান্ত হয়। জানা গেছে, উপস্থিত পুলিশ কর্মকর্তা ও কমিউনিটি নেতৃবৃন্দের সহযোগিতায় ঘটনার মীমাংসা করা হয়। এ ঘটনায় কোন মামলা হয়নি। হামলাকারী যুবককে সতর্ক করা হয়েছে।

নিউইয়র্ক থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন