default-image

মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন বলেছেন, তদন্তে নারীদের অভিযোগের প্রমাণ পাওয়া গেলে নিউইয়র্কের গভর্নর অ্যান্ড্রু কুমোকে পদত্যাগ করা উচিত। এ কারণে কুমো বিচারের সম্মুখীনও হতে পারেন।

১৬ মার্চ এবিসি টিভির উপস্থাপক জর্জ স্টিফানোপোলোসকে দেওয়া প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের সাক্ষাৎকার প্রচারিত হয়। জর্জ এ সময় গভর্নর কুমোকে নিয়ে বাইডেনের কাছে প্রশ্ন করে বলেন, ‘জানি আপনি বলবেন অব্যাহত তদন্তের কথা। যদি ওই তদন্তে সত্যতা পাওয়া যায়, তাহলে কি গভর্নর কুমোর পদত্যাগ করা উচিত?’ এর জবাবে বাইডেন বলেন, অবশ্যই। এ ক্ষেত্রে অ্যান্ড্রু কুমোকে বিচারের সম্মুখীনও হতে হবে।

সিনেটর চার্লস শুমারসহ অন্য প্রভাবশালী ডেমোক্র্যাটরা অ্যান্ড্রু কুমোর পদত্যাগ দাবি করছেন। তাঁরা বলছেন, রাজ্যের গভর্নর হিসেবে কার্যকর দায়িত্ব পালনের যোগ্যতা হারিয়েছেন কুমো। কুমোর পদত্যাগের এমন দাবি নিয়ে প্রেসিডেন্ট বাইডেনকে প্রশ্ন করা হলে তিনি বলেন, তাঁরা (ডেমোক্র্যাটরা) তাঁদের বিবেচনা থেকে এমন দাবি জানাচ্ছেন।

বিজ্ঞাপন
এ পর্যন্ত অ্যান্ড্রু কুমোর বিরুদ্ধে সাতজন নারী যৌন হয়রানির অভিযোগ এনেছেন। এঁদের মধ্যে তিনজনই গভর্নরের অধস্তন কর্মী হিসেবে কাজ করেছেন

প্রেসিডেন্ট বাইডেন বলেছেন, একজন নারী যখন এমন অভিযোগ নিয়ে এগিয়ে আসেন, তখন তিনি সত্য বলছেন বলে প্রথমে অনুমান করা উচিত।

এ পর্যন্ত অ্যান্ড্রু কুমোর বিরুদ্ধে সাতজন নারী যৌন হয়রানির অভিযোগ এনেছেন। এঁদের মধ্যে তিনজনই গভর্নরের অধস্তন কর্মী হিসেবে কাজ করেছেন।

এসব অভিযোগ অস্বীকার করে কুমো বিবৃতিতে বলেছিলেন, অশালীনভাবে তিনি কাউকে স্পর্শ করেননি। তবে অনিচ্ছাকৃতভাবে কিছু বলে ফেললে, তাঁর কোনো কথায় কেউ ভুল বুঝে থাকলে তাঁর জন্য তিনি আন্তরিকভাবে দুঃখিত।

পদত্যাগের দাবি ওঠা প্রসঙ্গে কুমো বলেছেন, তদন্তে যৌন হয়রানির অভিযোগ প্রমাণ না হলে তিনি পদত্যাগ করবেন না।

গভর্নর কুমো নিজেই রাজ্যের অ্যাটর্নি জেনারেলকে এ নিয়ে স্বাধীন তদন্ত করার নির্দেশ দিয়েছেন। অ্যাটর্নি জেনারেল লেটিশিয়া জেমস এ নিয়ে তদন্ত শুরু করেছেন বলে জানিয়েছেন।

নিউইয়র্ক থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন