জাতীয় বিপ্লব ও সংহতি দিবসের আলোচনা সভায় অতিথি ও নিউইয়র্ক স্টেট বিএনপির নেতা–কর্মীরা
জাতীয় বিপ্লব ও সংহতি দিবসের আলোচনা সভায় অতিথি ও নিউইয়র্ক স্টেট বিএনপির নেতা–কর্মীরা

নিউইয়র্ক স্টেট বিএনপি ‘জাতীয় বিপ্লব ও সংহতি দিবস’ উদ্‌যাপন করেছে। ৮ নভেম্বর জ্যাকসন হাইটসের ডাইভার্সিটি প্লাজায় এ উপলক্ষে আলোচনা সভার আয়োজন করে স্টেট বিএনপি।

আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন নিউইয়র্ক স্টেট বিএনপির সভাপতি মোহাম্মদ অলি উল্লাহ আতিকুর রহমান। সঞ্চালনা নিউইয়র্ক স্টেট বিএনপির সাধারণ সম্পাদক সাইদুর রহমান।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কেন্দ্রীয় বিএনপির সাবেক আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক গিয়াস আহমেদ। আমন্ত্রিত অতিথি ছিলেন—কেন্দ্রীয় বিএনপির সদস্য রফিকুল ইসলাম, যুক্তরাষ্ট্র বিএনপির সাবেক সহসভাপতি সোলাইমান ভূঁইয়া, রাজনৈতিক বিশ্লেষক ও সাবেক ছাত্রনেতা মার্শাল মুরাদ, যুক্তরাষ্ট্র বিএনপির সাবেক যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মো. আনোয়ারুল ইসলাম, জাসাসের কেন্দ্রীয় কমিটির আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক গোলাম ফারুক, যুক্তরাষ্ট্র যুবদলের সাধারণ সম্পাদক আবু সাইদ আহমেদ, যুক্তরাষ্ট্র শ্রমিক দলের সভাপতি জাহাঙ্গীর এম আলম ও সাধারণ সম্পাদক মো. আনোয়ারুল ইসলাম।

বিজ্ঞাপন

উদ্বোধনী বক্তব্য রাখেন নিউইয়র্ক স্টেট বিএনপির প্রধান উপদেষ্টা ভিপি জসিম। অন্যান্য নেতৃবৃন্দের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন—জাহাঙ্গীর আলম, আমানত হোসেন, আমিনুর রহমান, শহিদুল ইসলাম সিকদার, এনামুল কবির, মো. হুমায়ুন কবির, মোস্তাক আহমেদ, আবুল কামাল, দেওয়ান কাউসার, নিউইয়র্ক স্টেট যুবদলের সভাপতি কাজী আমিনুল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক রেজাউল আজাদ ভূঁইয়া, বি এম বাদশা, খলকুর রহমান, ফয়সল মাহমুদ, আরিফুর রহমান, শরীফ চৌধুরী, মিজানুর রহমান, মুক্তিযোদ্ধা মশিউর রহমান, মো. জসিম উদ্দিন, মো. ইয়াকুব আলী, মো. রুহুল আমিন, মো. মোতাহার হোসেন, তোফায়েল আহমেদ, মোফাজ্জল ভূঁইয়া, ফিরোজ হায়দার, আতাউর রহমান, জহিরুল ইসলাম, জাহাঙ্গীর চৌধুরী, এমদাদুল ইসলাম, শাহজাহান সাজু, ইফসুফ আলী তালুকদার, কামাল উদ্দিন, আবু মিয়া, নুরুন নবী চৌধুরী, আবু সালেহ প্রমুখ।

বক্তারা বলেন, স্বাধীনতা পরবর্তী সময়ে দেশকে মহা দুর্ভিক্ষের দ্বারপ্রান্ত থেকে উদ্ধার ও বাকশাল থেকে গণতন্ত্রের পথে দেশকে বিশ্বের কাছে পরিচিত করার পদক্ষেপই ছিল ৭ নভেম্বরের লক্ষ্য। রাষ্ট্রনায়ক জিয়াউর রহমান দেশকে বিশ্বের দরবারে প্রতিষ্ঠা করেছিলেন বিএনপি গঠনের মাধ্যমে। ভঙ্গুর অর্থনীতি ও বিদ্বেষ ভুলে দেশে গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠার মাধ্যমে দেশের সব জাতি গোষ্ঠীকে এক কাতারে আনতে সফল হয়েছিলেন।

বক্তারা আরও বলেন, জাতীয় বিপ্লব ও সংহতি দিবসের প্রেরণায় উজ্জীবিত হয়ে আবারও মহা বিপ্লবের জন্য প্রস্তুতি নিতে হবে। দেশ ও প্রবাস থেকে ঐক্যবদ্ধ আন্দোলনের মাধ্যমে দেশে আবারও গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা করার লক্ষ্যে কর্মসূচি পালন করতে হবে।

আলোচনা সভার শেষ পর্যায়ে যুক্তরাষ্ট্র বিএনপির সাবেক যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক গোলাম ফারুককে কেন্দ্রীয় জাসাসের যুগ্ম সাধারণ নির্বাচিত হওয়ায় নিউইয়র্ক স্টেট বিএনপির পক্ষ থেকে সম্মাননা প্রদান করা হয়।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0