default-image

যুক্তরাষ্ট্রে নিউইয়র্ক নগরীর পাতাল ট্রেনে (সাবওয়ে) একের পর এক লোকজন ছুরিকাহত হওয়ার ঘটনা ঘটছে। গত এক সপ্তাহে এমন ঘটনায় দুজনের মৃত্যু হয়েছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করার জন্য অতিরিক্ত ৫০০ পুলিশ সদস্য মোতায়েন করা হয়েছে।

১৩ ফেব্রুয়ারি পুলিশ কমিশনার ডারমট শিয়া এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানিয়েছেন।

গত কয়েক সপ্তাহে নিউইয়র্কের পাতাল রেলে একের পর এক ছুরিকাহত হওয়ার ঘটনা ঘটেছে। অনেক ক্ষেত্রে কিশোরেরা এসব অপরাধের সঙ্গে জড়িত থাকে বলে তাদের তাৎক্ষণিকভাবে গ্রেপ্তার করা সম্ভব হয় না।

সাম্প্রতিক সময়ে রেললাইন ও প্ল্যাটফর্মে ছুরিকাহত সবাইকে গৃহহীন বলে নিউইয়র্ক পুলিশ জানিয়েছে। গৃহহীনদের প্রতি বিদ্বেষের কারণে এক বা একাধিক ব্যক্তি এমন অপরাধ করছে বলে পুলিশের পক্ষ থেকে ধারণা করা হচ্ছে। কারণ ছুরি দিয়ে আঘাত করলেও এসব ঘটনার সঙ্গে অর্থ বা মূল্যবান সামগ্রী ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটছে না।

বিজ্ঞাপন
default-image

গত কয়েক মাসে নিউইয়র্কে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির এমনিতেই অবনতি হয়েছে। তবে এমন পরিস্থিতি শক্ত হাতে নিয়ন্ত্রণের ঘোষণা দিয়েছেন নগরীর পুলিশ প্রধান ডারমট শিয়া। তিনি বলেন, আগের ২৪ ঘণ্টায় এমন চারটি হামলার ঘটনার তথ্য পাওয়া গেছে। কুইন্সের ফার রকওয়ে মট অ্যাভিনিউ স্টেশনে ট্রেনের বগির মধ্যে এক যাত্রীকে ছুরিকাঘাত করে পালিয়েছে দুর্বৃত্ত। পরে ওই যাত্রীকে পুলিশ মৃত অবস্থায় উদ্ধার করে।

এর দুই ঘণ্টা পর ওয়েস্ট ২০৭ স্ট্রিট স্টেশনে আসনের নিচ থেকে ছুরিকাহত এক নারীকে উদ্ধার করে পুলিশ। ওই নারীকেও মৃত ঘোষণা করা হয়েছে।

ডারমট শিয়া বলেন, এসব পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ ও মোকাবিলা করতে অতিরিক্ত ৫০০ পুলিশ সদস্য মোতায়েন করা হয়েছে।

নিউইয়র্ক থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন