বিজ্ঞাপন

নির্বাচনের তোড়জোড় শুরুর পর থেকে ইতিমধ্যে ৪০ জন এই পদে প্রচারের কাগজপত্র জমা দিয়েছেন। অবশ্য বর্তমান মাত্র ১০ জনের মধ্যে বেশ হাড্ডাহাড্ডি লড়াই চলছে। এর মধ্যে আলোচনায় রয়েছেন ডেমোক্রেটিক দলের সাবেক প্রেসিডেন্ট পদপ্রার্থী অ্যান্ড্রু ইয়াং, সাবেক পুলিশ কর্মকর্তা এরিখ অ্যাডামস, প্রগতিশীল কর্মী ডায়ান মোরেলস, আইনজীবী মায়া উইলি ও নিউইয়র্ক নগরের কম্পট্রোলার স্কট স্ট্রিংগার।

এঁদের মধ্যে স্কট স্ট্রিংগারের সম্ভাবনা বেশ ভালো থাকলেও ইতিমধ্যে তাঁর বিরুদ্ধে যৌন হয়রানির অভিযোগ উঠেছে। তিনি অবশ্য এই অভিযোগ পুরোপুরি অস্বীকার করেছেন। এরপরে রয়েছেন স্যানিটেশন বিভাগের সাবেক কমিশনার ক্যাথরিন গার্সিয়া, যিনি জলবায়ু পরিবর্তন মোকাবিলায় কাজ করার আশ্বাস দিয়েছেন।

নির্বাচনের দৌড়ে বেশ এগিয়ে আছেন এরিক অ্যাডামস। তিনি সাবেক একজন পুলিশ কর্মকর্তা এবং প্রথম কৃষ্ণাঙ্গ ব্যক্তি যিনি ব্রুকলিন বরো প্রেসিডেন্ট হিসেবে সাফল্যের সঙ্গে দায়িত্ব পালন করে যাচ্ছেন।

নির্বাচনের দৌড়ে সবার চেয়ে এগিয়ে আছেন অ্যান্ড্রু ইয়াং, যিনি ডি ব্লাজিওর মতো ইউনিভার্সাল বেসিক আয়ের প্রস্তাব নিয়ে নির্বাচনের মাঠে নেমেছেন। ইয়াং নির্বাচনী প্রচারে নিউইয়র্ক নগরকে বিটকয়েন ও ক্রিপ্টোকারেন্সি কেন্দ্র হিসেবে গড়ে তোলার উচ্চাভিলাষ প্রকাশ করেছেন।

তবে ইয়াংয়ের চেয়ে নতুন নির্বাচনী জরিপে কিছুটা এগিয়ে রয়েছে অ্যাডামস। অন্যদিকে স্ট্রিংগারের বিরুদ্ধে যৌন হয়রানির অভিযোগ সত্ত্বেও জরিপে জনপ্রিয়তার নিরিখে তিনি তৃতীয় অবস্থানে রয়েছেন।

জেনে রাখা ভালো, এবার নিউইয়র্কে প্রথমবারের মতো র‌্যাংকিংয়ের মাধ্যমে ভোটদান বাস্তবায়ন শুরু হতে যাচ্ছে। শুধু একজনকে ভোট না দিয়ে পছন্দের ক্রমানুসারে প্রার্থীদের তালিকাভুক্ত করে ভোট দেওয়া যাবে। ধরুন, আপনার তিনজন প্রার্থীকেই ভালো লাগে, তাহলে তাদের মধ্যে যাকে সবচেয়ে বেশি ভালো লাগে, তাকে এক নম্বরে, তারপর যাকে একটু কম ভালো লাগে তাকে দুই নম্বরে তালিকাভুক্ত করে ভোট দেওয়া যাবে।

নিউইয়র্ক থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন