default-image

যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের উপপ্রচার সম্পাদক তৈয়বুর রহমানের আত্মার মাগফিরাত কামনায় দোয়া মাহফিল ও শোকসভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

ভিডিও কনফারেন্সে গত ২৮ অক্টোবর সন্ধ্যায় আয়োজিত শোক সভায় সভাপতিত্ব করেন যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সভাপতি সিদ্দিকুর রহমান। সভা পরিচালনা করেন সংগঠনের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক আবদুস সামাদ আজাদ।

এই শোক সভায় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও তাঁর পরিবারের সদস্য ও মৃত্যুবরণকারী দলীয় নেতা-কর্মী বিশেষ করে যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগ নেতা ওয়াহিদুর রহমান, নূরুল ইসলাম, ফৈয়জ আলী, সিরাজ উদ্দিন আহমেদ, কামাল আহমেদ, নজমুল ইসলাম, বেলাল তরফদার, জসিম উদ্দিনসহ নিহতদের বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনা করা হয়। এ ছাড়া যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের মানবাধিকার বিষয়ক সম্পাদক মিসবাহ আহমেদসহ দলীয় নেতা-কর্মীদের সুস্থতা কামনা করা হয়।

দোয়া পরিচালনা করেন বাইতুল ইসলাম জামে মসজিদ ও ইসলামিক সেন্টারের ইমাম খতিব মাওলানা রহমত উল্লাহ।

বিজ্ঞাপন

সভায় যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক নিজাম চৌধুরী, সম্পাদকমণ্ডলীর সদস্য মহিউদ্দিন দেওয়ান, আবদুল হাসিব, এনাম, কৃষিবিদ আশরাফুজ্জামান, মনছুর খান, দেওয়ান বজলু, মোহাম্মদ সোলায়মান আলী, আবদুল মালেক, কার্যকরী সদস্য শাহানারা রহমান, নিউইয়র্ক মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ইমদাদ চৌধুরী, কানেকটিকাট স্টেট আওয়ামী লীগের সভাপতি জেহাদুল হক, সাধারণ সম্পাদক হুমায়ুন আহমেদ চৌধুরী, পেনসিলভানিয়া স্টেট আওয়ামী লীগের সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা আবু তাহের ও সাধারণ সম্পাদক আবু সাঈদ খান, বোস্টন আওয়ামী লীগের সভাপতি ইউসুফ চৌধুরী ও সাধারণ সম্পাদক ইকবাল হোসেন, নিউইয়র্ক স্টেট আওয়ামী লীগের সহসভাপতি শেখ আতিক, মিশিগান স্টেট আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ আবু মুসা, জর্জিয়া স্টেট আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মাহমুদ হোসেন, যুগ্ম সম্পাদক নুরুল তালুকদার, ফ্লোরিডা স্টেট আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মুজিবুর রহমান, ফিলাডেলফিয়া ট্রাই কাউন্টি আওয়ামী লীগের সভাপতি আবুল খায়ের মাহমুদ, যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের নেতা কফিল চৌধুরী, নিউইয়র্ক আইনজীবী পরিষদের সভাপতি মোর্শেদা জামান, বাংলাদেশ আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাবেক আন্তর্জাতিক সম্পাদক শাখাওয়াত বিশ্বাস, যুবলীগের নেতা শাহ সেলিম, যুক্তরাষ্ট্র স্বেচ্ছাসেবক লীগের যুগ্ম সম্পাদক সৈয়দ কিবরিয়া, প্রচার সম্পাদক মোহাম্মদ আলম, যুক্তরাষ্ট্র ছাত্রলীগের নেতা জেড এ জয়, জাহাঙ্গীর এইচ মিয়া, শহিদুল হক, হুমায়ুন কবির, মুক্তিযোদ্ধা যুব কমান্ড কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য সহিদুল ইসলাম, উপদেষ্টা মোহাম্মদ জহিরুল ইসলামসহ বিপুলসংখ্যক নেতা-কর্মী যোগ দেন।

সভাপতি সিদ্দিকুর রহমান বলেন, তৈয়বুর রহমান এত মেধাবী ছিলেন,আগে বুঝতে পারিনি। তাঁর সম্পর্কে অনেক কিছুই জানতাম না, যা মৃত্যুর পর জেনেছি। তিনি বৈশ্বিক মহামারির সময় দলীয় নেতা-কর্মীদের এক সঙ্গে কাজ করার আহ্বান জানান।

গত ২৫ অক্টোবর ঢাকার জিগাতলার বাসা থেকে তৈয়বুর রহমানের মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। তাঁর গ্রামের বাড়ি বাগেরহাট জেলার মোড়েলগঞ্জ উপজেলায়।

মন্তব্য পড়ুন 0