default-image

টহল গাড়িতে থাকার সময় স্পিকারে বারবার ট্রাম্পের প্রতি সমর্থন জানানোয় নিউইয়র্কের এক পুলিশ কর্মকর্তাকে বরখাস্ত করা হয়েছে। নিউইয়র্কের ব্রুকলিনে ২৪ অক্টোবর এ ঘটনা ঘটে।

ওয়াশিংটন পোস্টের প্রতিবেদনে বলা হয়, নিউইয়র্কের ব্রুকলিনে এক টহল গাড়িতে থাকা পুলিশ কর্মকর্তা গাড়ির স্পিকার ব্যবহার করে বারবার বলছিলেন, ‘ট্রাম্প ২০২০’। শুধু তাই নয়, তিনি পথচারীদের প্রতি আহ্বান জানান, যেন তাঁরা এ ঘটনার ভিডিও করেন এবং তা সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুক ও ইউটিউবে পোস্ট করেন।

এ সম্পর্কিত এক ভিডিও ফুটেজে পুরো ঘটনাটি ধরা পড়ে। ভিডিও ফুটেছে দেখা যায়, ওই কর্মকর্তা টহল গাড়িতে থাকা লাউড স্পিকারে আশপাশের পথচারীদের আহ্বান করছেন, ‘ছবি তুলুন, ছবি তুলুন, ভিডিও করুন। ফেসবুক ও ইউটিউবে পোস্ট করুন।’

কর্তব্যরত ওই পুলিশ কর্মকর্তার এই কাণ্ডের বেশ কয়েকটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে। আজ সোমবার পর্যন্ত ভিডিওগুলো দেখেছেন ২০ লাখের বেশি মানুষ। এতে নিউইয়র্কের স্থানীয় কমিউনিটি ও প্রশাসনের অনেকে ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন।

এ ঘটনার পর ওই পুলিশ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিয়েছে নিউইয়র্ক পুলিশ বিভাগ (এনওয়াইপিডি)। এ সম্পর্কিত এক টুইটার পোস্টে এনওয়াইপিডি জানায়, গতকাল রোববার ঘটনা জানার সঙ্গে সঙ্গে ওই পুলিশ কর্মকর্তাকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। বরখাস্ত থাকা অবস্থায় তিনি কোনো বেতন পাবেন না। এনওয়াইপিডি ওই কর্মকর্তার নাম প্রকাশ না করে জানিয়েছে, তাঁর বিরুদ্ধে তদন্ত চলছে। পুলিশ বিভাগের গাড়িতে থাকা লাউড স্পিকার রাজনৈতিক কাজে ব্যবহারের অভিযোগ আনা হয়েছে তাঁর বিরুদ্ধে। তাঁর এ আচরণ পুলিশের আচরণবিধি লঙ্ঘন করেছে, যেখানে কর্তব্যরত বা ইউনিফর্ম পরিহিত অবস্থায় কোনো রাজনৈতিক দলের প্রার্থী বা রাজনৈতিক কোনো অভিমত জনপরিসরে প্রচারে কড়া নিষেধাজ্ঞা রয়েছে।

বিজ্ঞাপন

ঘটনার নিন্দা জানিয়ে এ সম্পর্কিত এক বিবৃতিতে নিউইয়র্ক পুলিশের কমিশনার ডারমট শিয়া বলেন, এ ধরনের আচরণ শতভাগ অগ্রহণযোগ্য। রাজনৈতিক দৃষ্টিভঙ্গি নির্বিশেষে সব নাগরিকের প্রতি সমান আচরণ করতে বাধ্য নিউইয়র্ক পুলিশ।

এ সম্পর্কিত এক টুইটার পোস্টে এনওয়াইপিডির চিফ অব ডিপার্টমেন্ট টেরেন্স এ মোনাহান লেখেন, ‘যখন আপনার পরনে পুলিশের পোশাক থাকবে, তখন আপনাকে অবশ্যই রাজনীতি-নিরপেক্ষ থাকতে হবে।’

এ অবস্থায় নিউইয়র্ক নগরের মেয়র বিল ডি ব্লাজিও এ ধরনের ঘটনা যেন আর না ঘটে, তা নিশ্চিত করতে দ্রুত ব্যবস্থা নেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন। বিশেষত নির্বাচনের ঠিক আগ মুহূর্তে এমন ঘটনা যেন না ঘটে, তা নিশ্চিতে দ্রুত ব্যবস্থা নেওয়া হবে জানিয়ে ব্লাজিও বলেন, ‘আমি পরিষ্কার বলতে চাই, এনওয়াইপিডির কোনো কর্মকর্তা কর্তব্যরত অবস্থায় যদি কোনো রাজনৈতিক মত প্রচার করেন, তবে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। আমরা এ ক্ষেত্রে ত্বরিত ব্যবস্থা নেব। এ ধরনের বিষয় সহ্য করা হবে না।’

এর আগে মায়ামি শহরেও একই ঘটনা ঘটেছিল। মায়ামির পুলিশ কর্মকর্তা ড্যানিয়েল উবেদার বিরুদ্ধে এখন বিভাগীয় তদন্ত চলছে। গত সপ্তাহে একটি ভোটকেন্দ্রে পোশাক পরিহিত অবস্থায় দায়িত্ব পালনের সময় তিনি ‘ট্রাম্প ২০২০’ লেখা মাস্ক পরে ছিলেন।

মন্তব্য পড়ুন 0