নিউইয়র্কের জ্যামাইকায় ফারুক মিয়া (৬০) নামের একজন প্রবাসী বাংলাদেশি আত্মহত্যা করেছেন।

গত ২৯ আগস্ট আনুমানিক ভোর চারটার দিকে ঘরের জানালায় লাগানো এসির সঙ্গে বাঁধা দড়িতে ঝুলন্ত অবস্থায় ফারুকের লাশ পাওয়া যায়। তাঁর ঘর থেকে একটি চিরকুট উদ্ধার হয়েছে। সেখানে তিনি নিজ হাতে লিখে গেছেন, তাঁর মৃত্যুর জন্য কেউ দায়ী নয়।

বাংলাদেশের মুন্সিগঞ্জের ফারুক মিয়া জ্যামাইকায় ভাগনির বাসায় ভাড়া থাকতেন। তিনি স্ত্রী ও দুই সন্তান রেখে গেছেন।

বিজ্ঞাপন

ফারুক মিয়ার আত্মীয় সূত্রে জানা গেছে, ফারুক মিয়া শারীরিক অসুস্থতায় ভুগছিলেন। এ কারণে প্রায় প্রতিদিন তাঁকে স্থানীয় কুইন্স হাসপাতালে যেতে হতো। তিনি এক সময় ম্যানহাটনের ফিফথ অ্যাভিনিউয়ে জুইস মিউজিয়ামে কাজ করতেন। পরে অবসর নেন। প্রথম স্ত্রীর মৃত্যুর পর তিনি দ্বিতীয় বিয়ে করেন।

জানা গেছে, ঘটনার দিন ভোরে ফারুককে বিছানায় না দেখে খোঁজ করতে গিয়ে তাঁকে ঝুলন্ত অবস্থায় দেখেন স্ত্রী। তাঁর চিৎকার শুনে আশপাশের সবাই ছুটে আসেন। পরে পুলিশ এসে মরদেহ তাদের হেফাজতে নিয়ে নেয়।

গত ৩১ আগস্ট আসরের নামাজের পর জ্যামাইকার দারুস সালাম মসজিদে মরহুমের জানাজা শেষে মরদেহ বাংলাদেশে পাঠিয়ে দেওয়া হয়।

বিজ্ঞাপন
নিউইয়র্ক থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন