বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

শাহ শহীদুল হক বলেন, ‘আমি ৩২ বছর থেকে জনসেবায় নিয়োজিত। ১৯৯৭ সালে যখন ৬৩ জন বাংলাদেশি মিশিগানে ডিভি কেলেঙ্কারিতে গ্রেপ্তার হয়েছিল, তখন আমিই আমেরিকান আইনজীবীর মাধ্যমে তাঁদের জামিনের ব্যবস্থা করেছি। নাইন-ইলেভেনর পরে এফবিআই যখন ধরপাকড় করার পরিকল্পনা করেছিল, তখন মুসলিম সম্প্রদায় ছিল অসহায়। সে সময় আমি মুসলিমদের পাশে দাঁড়িয়ে এফবিআইয়ের সঙ্গে সেমিনার করে আলাপ আলোচনার মাধ্যমে নিরাপত্তা বিধান করেছি। আমি স্পেশাল রেজিস্ট্রেশনের জন্য হোমল্যান্ড সিকিউরিটি থেকে বাংলাদেশিদের জন্য আলাদা ব্যবস্থা করেছি, যাতে সবার নিরাপত্তার ব্যবস্থা ছিল। আমি এ পর্যন্ত অনেক বাংলাদেশিকে রাজনৈতিক আশ্রয় লাভে সাহায্য করেছি।’

তিনি আরও বলেন, ‘কোভিড-১৯ সময়ে সাত হাজারের বেশি পরিবারকে সাহায্য করেছি। আপনারা জানেন, ওয়ার্ল্ড হিউম্যান রাইটস ডেভেলপমেন্ট ইউএসএ একটি অরাজনৈতিক সংগঠন। আমি এ সংগঠনের প্রধান হিসেবে কাজ করে যাচ্ছি। আমি সব সময় আপনাদের পাশে ছিলাম এবং বর্তমান ও ভবিষ্যতেও আপনাদের পাশে থাকব। আমি আমার কর্মের ফল চাই।’ শাহ শহীদুল হক বলেন, বর্তমানে ৯১১-এ কল করলে পুলিশ আসে না, আর যদিও আসে তবে দুই ঘণ্টা লেগে যায়। জননিরাপত্তার অভাবে অনেকে নিউইয়র্ক ছেড়ে চলে যাচ্ছে। জ্যাকসন হাইটসে রাতে চলা ফেরা করা সম্পূর্ণ অনিরাপদ। ডাইভার্সিটি প্লাজা এখন মাদকের আখড়ায় পরিণত হয়েছে। ডিস্ট্রিক্ট লিডার অ্যাট লার্জ নামক পদ নয়, আমরা হব ডিস্ট্রিক্ট লিডার, কাউন্সিলম্যান, স্টেট সিনেটর, আপনারা আমার পথ সুগম করুন।’

সংবাদ সম্মেলনে কাউন্সিলম্যান পদপ্রার্থীকে প্রশ্ন ও উত্তর পর্বে সার্বিকভাবে সমর্থন ও সহযোগিতা করেন নির্বাচন পরিচালনা কমিটির প্রধান উপদেষ্টা বাংলাদেশ সোসাইটি ও ট্রাস্ট্রি বোর্ডের সভাপতি এম এ আজিজ, নির্বাচন পরিচালনা কমিটির চেয়ারম্যান গিয়াস আহমেদ, কো-চেয়ারম্যান বিশিষ্ট কণ্ঠশিল্পী বেবী নাজনীন, কো-চেয়ারম্যান এ বি এম ওসমান গণি, কো-চেয়ারম্যান নাজমুল আলম ও মুন্সিগঞ্জ বিক্রমপুর অ্যাসোসিয়েশনের সাবেক সভাপতি শাহাদাত হোসেন। দোয়া পাঠ করেন মোহাম্মদী সেন্টারের ইমাম কাজী কাইয়ূম। সংবাদ সম্মেলন পরিচালনা করেন নির্বাচন পরিচালনা কমিটির মিডিয়া ও প্রচার সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম।

সমর্থন জানাতে উপস্থিত ছিলেন প্রিমিয়াম সুইট এবং প্রিমিয়াম গ্রুপ অব কোম্পানির চেয়ারম্যান সোহাগ আজম, জ্যাকসন হাইটস বিজনেস অ্যান্ড মার্চেন্ট অ্যাসোসিয়েশনের জেনারেল সেক্রেটারি মোহাম্মদ আলম নমী, বীর মুক্তিযোদ্ধা রুহুল আমীন, বীর মুক্তিযোদ্ধা এম এ মান্নান, বীর মুক্তিযোদ্ধা মশিউর রহমান ও বীর মুক্তিযোদ্ধা গোলাম মেহরাজ।

নিউইয়র্ক থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন