default-image

করোনাভাইরাসে সংক্রমিত হয়ে নিউইয়র্কে এ পর্যন্ত ৩৩ হাজারের বেশি মানুষের মৃত্যু হয়েছে। আর এতে নিউইয়র্কের প্রায় চার হাজার শিশু তাদের বাব-মার একজনকে হারিয়েছে। গত ৩০ সেপ্টেম্বর প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

ইউনাইটেড হসপিটাল ফান্ড অ্যান্ড বোস্টন কনসালটিং গ্রুপ গত মার্চ থেকে জুলাই মাস পর্যন্ত তথ্য বিশ্লেষণ করে এ তথ্য প্রকাশ করেছে।

সংস্থাটি বলেছে, করোনায় নিউইয়র্কের ৪ হাজার ২০০ শিশু তাদের মা, বাবা বা একজন অভিভাবক হারিয়েছে। এসব শিশুর ৫৭ শতাংশের বাস নগরীর ব্রঙ্কস, কুইন্স ও ব্রুকলিনে।

বিজ্ঞাপন
করোনায় নিউইয়র্কের ৪ হাজার ২০০ শিশু তাদের মা, বাবা বা একজন অভিভাবক হারিয়েছে। এসব শিশুর ৫৭ শতাংশের বাস নগরীর ব্রঙ্কস, কুইন্স ও ব্রুকলিনে

নিউইয়র্কের প্রতি এক হাজার শিশুর মধ্যে একজন অভিভাবক হারা হয়েছে করোনা মহামারিতে। এর মধ্যে কৃষ্ণাঙ্গ ও হিস্পানিক শিশুর সংখ্যা বেশি। কৃষ্ণাঙ্গ শিশুদের প্রতি ৬০০ জনের মধ্যে একজন এবং হিস্পানিক শিশুদের মধ্যে প্রতি ৭০০ জনে একজন অভিভাবক হারা হয়েছে বলে বিশ্লেষণে বলা হয়েছে। একই জরিপে দেখা গেছে, ক্ষতিগ্রস্ত ৪ হাজার ২০০ শিশুর অর্ধেকই এখন চরম দারিদ্র্যের মধ্যে বাস করছে।

করোনাভাইরাস নতুন প্রজন্মকে প্রভাবিত করবে বলে বলা হচ্ছে। অভিভাবক হারা শিশুদের দারিদ্র্যের সঙ্গে সংগ্রাম করে যেতে হবে। দুর্বল মানসিক ও শারীরিক স্বাস্থ্য নিয়ে বেড়ে ওঠা এসব শিশু সমাজের মূল স্রোতে যাওয়ার আগেই হোঁচট খাবে। এই শিশুদের সাহায্য সহযোগিতা করার ওপর জোর দিতে হবে। ফেডারেল ও স্থানীয় সাহায্য প্রসারিত করে স্বল্পমেয়াদি ও দীর্ঘমেয়াদি সাহায্য করে যেতে হবে বলে বলা হচ্ছে।

মন্তব্য করুন