default-image

কোভিড-১৯ মোকাবিলায় ‘হটস্পট’ এলাকা নিয়ন্ত্রণের নির্দেশনাবলি কার্যকর করতে ব্যর্থ হলে রাজ্য সরকারের পক্ষ থেকে তহবিল জোগান বন্ধ করে দেওয়া হবে। সামাজিক ব্যবধান, ব্যবসা-বাণিজ্য লকডাউন, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান নিয়ে দেওয়া নির্দেশ নগরকে কঠোরভাবে কার্যকর করতে হবে। রাজ্যের গভর্নর অ্যান্ড্রু কুমো ১৪ অক্টোবর এই সতর্কতা জারি করেছেন।

নিউইয়র্ক নগর, অরেঞ্জ কাউন্টি, রকল্যান্ড কাউন্টি, রমাপো টাউনশিপ, স্প্রিংভ্যালি কর্তৃপক্ষের কাছে এ নিয়ে রাজ্য সরকারের পক্ষ থেকে নোটিশ দেওয়া হয়েছে বলে গভর্নর জানিয়েছেন।

গভর্নর কুমো বলেন, ঝুঁকিপূর্ণ এলাকার স্কুলগুলোকেও এ ধরনের নোটিশ পাঠানো হচ্ছে। জানানো হচ্ছে, কোভিড-১৯ নিয়ন্ত্রণের নির্দেশ ও লকডাউন না মানলে তাদের রাজ্য থেকে দেওয়া বরাদ্দ বন্ধ করে দেওয়া হবে।

রেড জোন হিসেবে চিহ্নিত কোন না কোন এলাকায় স্কুলে নির্দেশ কার্যকর করা হচ্ছে না অভিযোগ তুলে গভর্নর কুমো বলেন, রেড জোন স্কুলগুলোকে বাধ্যতামূলকভাবে বন্ধ রাখতে হবে। রাজ্য থেকে নোটিশ দেওয়াকে আর জনসচেতনতার নয় উল্লেখ করে গভর্নর কুমো বলেন, এটা এখন কার্যকর করার পদক্ষেপ।

বিজ্ঞাপন

বিশেষ এলাকা বিশেষ করে রক্ষণশীল ইহুদি এলাকায় এমন নির্দেশনা না মানার বিষয়টি রাজ্য গুরুত্বের সঙ্গে দেখছে বলে গভর্নর জানান। তিনি বলেন, ইহুদি কমিউনিটিকে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে, সামাজিক ব্যবধান ও কোভিড-১৯ নিয়ন্ত্রণের নির্দেশনা মানা না হলে রাজ্য সরকারের তহবিল বন্ধ করে দেওয়া হবে।

গত মঙ্গলবার নিউইয়র্কের রেড জোনে কোভিড–১৯ সংক্রমণের হার ছয় দশমিক দুই শতাংশ ছিল বলে গভর্নর জানান। একই দিনে রাজ্যে ৯৩৮ জন করোনাসংক্রমণ নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি ও নতুন সাতজনের মৃত্যুর কথা জানানো হয়েছে।

নিউইয়র্কের রাজ্যের গভর্নর অ্যান্ড্রু কুমো আশঙ্কা করছেন, এমন নজরদারি ও অঞ্চল বিশেষ নিয়ে সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণের কাজ বছরব্যাপী চালিয়ে যেতে হতে পারে। এর মধ্যে ভ্যাকসিন আসলেও অনেকেই ভ্যাকসিন গ্রহণ করবে না বলে তিনি মনে করেন।

মন্তব্য পড়ুন 0