default-image

নিউইয়র্কের বাংলাদেশ কনস্যুলেট জেনারেল ও কুইন্স পাবলিক লাইব্রেরির যৌথ উদ্যোগে আগামী ২২ ফেব্রুয়ারি দুপুর ১২টা থেকে ১টা পর্যন্ত ভার্চুয়াল আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উদ্‌যাপিত হবে। ভাষা শহিদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে ও অমর একুশের চেতনা নিউইয়র্কের মূলধারায় ছড়িয়ে দেওয়ার লক্ষ্যে বাংলাসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশের নিজস্ব ভাষা ও সংস্কৃতির সম্মিলনে আয়োজিত এই আন্তর্জাতিক ভার্চুয়াল অনুষ্ঠানটি সম্প্রচারিত হবে (https://www.facebook.com/QPLNYC)।

নিউইয়র্কের বাংলাদেশ কনস্যুলেট জেনারেল ও কুইন্স পাবলিক লাইব্রেরি যৌথভাবে ২০১৯ সাল থেকে প্রতিবছর বিভিন্ন ভাষা ও সংস্কৃতির প্রবাসী/কমিউনিটির সদস্য এবং কুইন্সের নির্বাচিত কিছু জনপ্রতিনিধির অংশগ্রহণে এই দিবস পালন করে আসছে, যা কুইন্সের মূলধারায় ইতিমধ্যে ব্যাপক সাড়া জাগিয়েছে। বিশ্বব্যাপী করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের কারণে চলতি বছরে দিবসটি ভার্চুয়াল মাধ্যমে উদ্‌যাপনের সিদ্ধান্ত হয়েছে। এবারের ভার্চুয়াল অনুষ্ঠানে পররাষ্ট্র মন্ত্রী ড. এ কে আবদুল মোমেন, পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী মো. শাহরিয়ার আলম, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উদ্‌যাপন জাতীয় বাস্তবায়ন কমিটির প্রধান সমন্বয়ক ও সাবেক মুখ্যসচিব ড. কামাল আবদুল নাসের চৌধুরী, যুক্তরাষ্ট্রের কংগ্রেসওমেন গ্রেস মেং, কুইন্স বোরো প্রেসিডেন্ট ডোনাভান রিচার্ডস, নিউইয়র্ক স্টেট সিনেটর জন সি ল্যু, জর্জিয়া স্টেট সিনেটর বাংলাদেশি মার্কিন শেখ রহমান, অ্যাসেম্বলিওমেন ক্যাটালিনা ক্রুজ, যুক্তরাষ্ট্রে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত এম শহীদুল ইসলাম, জাতিসংঘে নিযুক্ত বাংলাদেশের স্থায়ী প্রতিনিধি রাবাব ফাতিমাসহ ১০টি দেশের রাষ্ট্রদূত/কনসাল জেনারেলসহ গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ অনুষ্ঠানে বক্তৃতা করবেন। এ ছাড়া, পৃথিবীর সব ভাষাকে সম্মান জানাতে এই অনুষ্ঠানে বাংলা ভাষাসহ অন্যান্য বিদেশি ভাষার সাংস্কৃতিক পরিবেশনা থাকবে।

বিজ্ঞাপন

কনসাল জেনারেল সাদিয়া ফয়জুননেসা ও কুইন্স পাবলিক লাইব্রেরির প্রেসিডেন্ট ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ডেনিস এম ওয়ালকটের যৌথ উদ্যোগে অনুষ্ঠেয় অমর একুশের এই গুরুত্বপূর্ণ ভার্চুয়াল অনুষ্ঠানে পৃথিবীর যেকোনো স্থান হতে যোগ দেওয়া যাবে।

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী এবং স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীর মাহেন্দ্রক্ষণে অনুষ্ঠেয় অমর একুশের এই ভার্চুয়াল অনুষ্ঠানে যোগ দিতে নিউইয়র্কের বাংলাদেশ কনস্যুলেটের পক্ষ থেকে বাংলাদেশি-মার্কিন, বীর মুক্তিযোদ্ধা, সাংবাদিক, নতুন প্রজন্মের মার্কিনসহ কমিউনিটির সবাইকে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে।

নিউইয়র্ক থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন