default-image

করোনা মহামারির কারণে ২০২০ সাল সবার জন্য স্মরণীয় হয়ে থাকবে। ২০২০ সালের শেষের দিকে এসে আগামী বছর আয়কর দাখিলের পরিকল্পনায় সুবিধা দেবে। কেয়ার অ্যাক্টে ২০২০ সালের আয়কর প্রদানের ক্ষেত্রে বাড়তি কিছু সুবিধা দেওয়া হয়েছে। আয়কর দাখিলের সঠিক পরিকল্পনা আগামী বছরের আয়কর দাখিল সাশ্রয়ী করবে। বছর শেষ হওয়ার আগেই পরিকল্পনা করলে অনেক সুবিধা পাওয়া যায়। ট্যাক্স পরিকল্পনা আসলে কি? যাদের আয় বেশি, তাদের কর কমিয়ে আনা এবং যাদের আয় কম, তাদের ভালো রিফান্ড পেতে সাহায্য করা এবং বিভিন্ন বাদযোগ্য খরচ বাদ দেওয়া। ২০২০ সালের ট্যাক্স পরিকল্পনায় নিম্নোক্ত বিষয়গুলো বিবেচনায় নিয়ে পরিকল্পনা করলে আপনার ট্যাক্স রিটার্ন সাশ্রয়ী হবে।

দাতব্য প্রতিষ্ঠান অনুদান

আগের আয়কর বর্ষগুলোতে যারা খাতওয়ারি বাদের (Itemized Deduction) যোগ্য ছিল, তারা দাতব্য প্রতিষ্ঠানে দেওয়া অনুদান বাদ দিতে পারতেন। এ বছর সর্বোচ্চ ৩০০ ডলার পর্যন্ত দাতব্য অনুদান বাদ দিতে পারবেন। বিভিন্ন দাতব্য প্রতিষ্ঠানে দেওয়া অনুদান, নগদ টাকা, গাড়ি কিংবা অন্য যেকোনো দান এই আওতায় পড়বে। অনুদান দেওয়ার ক্ষেত্রে ট্যাক্সে বাদ যোগ্য করা হয়েছে। করোনা মহামারির কারণে বিভিন্ন অলাভজনক প্রতিষ্ঠানে অনুদান দিয়েছেন, যা বছরে সর্বোচ্চ ৩০০ ডলার পর্যন্ত আয় থেকে বাদ দেওয়া যাবে।

হোম অফিসের খরচ

করোনাভাইরাসের কারণে অনেকেই বাসা থেকে ব্যবসা পরিচালনা কিংবা অফিসের কাজ করছেন। কেবল যারা নিয়মিত বাসা কিংবা বাড়ি থেকে অফিসের কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছে, তারা বাড়িভাড়া কিংবা মর্টগেজ পেমেন্ট থেকে আনুপাতিক হারে হোম অফিস খরচ আয় থেকে বাদ দিতে পারেন। বাড়ির ইন্টারনেট বিল ও অন্যান্য অফিসের কাজে ব্যবহার্য খরচ বাদ দেওয়া যাবে। আইআরএসের সাইটে বলা বলা আছে, কর্মচারীরা হোম অফিসের খরচ বাদ দিতে পারবে না। এটা নির্ভর করবে আপনার চাকরির প্রকৃতি ও কোম্পানির দেওয়া বেতন–ভাতাদির ফরম্যাটের ওপর। এ ব্যাপারে আপনার অ্যাকাউন্টারের সঙ্গে যোগাযোগ করে আপনি কোয়ালিফায়েড কিনা জেনে নিন।

বিজ্ঞাপন

শিশু ও বয়স্ক নির্ভরশীল ব্যক্তিদের দেখাশোনার ব্যয়

করোনাভাইরাসের কারণে স্কুল অধিকাংশ সময় বন্ধ ছিল। যাদের বাবা–মা উভয়েই কাজ করে এবং শিশুকে চাইল্ড কেয়ারে রাখে, তারা একজন সন্তানের ক্ষেত্রে ৩ হাজার ডলার ও দুই বা ততোধিক সন্তানের ক্ষেত্রে সর্বোচ্চ ৬ হাজার ডলার পর্যন্ত ক্রেডিট নিতে পারেন। এ ক্ষেত্রে সন্তানের বয়স ১৩ বছরের নিচে হতে হবে। বয়স্কদের ক্ষেত্রে ট্যাক্স ফাইলে নির্ভরশীল ব্যক্তি শারীরিক কিংবা মানসিকভাবে অক্ষম হলে কেবল এই ট্যাক্স সুবিধা নেওয়া যাবে।

শিক্ষাখাতে ব্যয়

কলেজপড়ুয়া শিক্ষার্থীরা যুক্তরাষ্ট্রের আমেরিকান অপরচুনিটি অ্যাক্ট অনুযায়ী সর্বোচ্চ একজন শিক্ষার্থী সর্বোচ্চ ২ হাজার ৫০০ ডলার পর্যন্ত ক্রেডিট নিতে পারেন। এ ক্ষেত্রে একজন শিক্ষার্থী যুক্তরাষ্ট্রে স্বীকৃত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ভর্তি হতে হবে এবং নির্দিষ্ট সময় পর্যন্ত পড়াশোনা চালিয়ে যেতে হবে। এ ছাড়া অন্যান্য কিছু নিয়মকানুন রয়েছে যেগুলো মেনে চললে ক্রেডিট পাওয়া যাবে।

শিশুদত্তক গ্রহণের ব্যয়

শিশু দত্তক গ্রহণ করলে সর্বোচ্চ ১৪ হাজার ৩০০ ডলার পর্যন্ত ফেডারেল ট্যাক্স ক্রেডিট পাওয়া যাবে। এই ক্রেডিট একজন দত্তক শিশুর জন্য একবারই পাওয়া যাবে। এই ক্রেডিট মূলত বাবা–মায়ের আয়ের ওপর নির্ভরশীল। দত্তক শিশুর বয়স ১৮ বছরের কম হতে হবে এবং সৎ-ছেলে বা মেয়েকে দত্তক নেওয়া যাবে না।

উপার্জিত আয়ের ওপর ট্যাক্স ক্রেডিট

উপার্জিত আয়ের পরিমাণের ওপর নির্ভর করে ট্যাক্স ক্রেডিট দেওয়া হয়। সবাই এই ক্রেডিটের সঙ্গে অত্যন্ত পরিচিত। এটাকে আমরা রিফান্ড বলে থাকি। নিম্নআয়ের শ্রমজীবীদের জন্য এই ট্যাক্স ক্রেডিট দেওয়া হয়। এই ট্যাক্স ক্রেডিট পেতে হলে আপনাকে অবশ্যই ট্যাক্স ফাইল করতে হবে এবং ক্ষেত্র বিশেষে পূর্বশর্ত পূরণ করতে হবে। উপার্জিত আয়ের ওপর ট্যাক্স ক্রেডিট ট্যাক্সের পরিমাণ কমিয়ে দেয় ও রিফান্ড বাড়াতে সহায়তা দেয়। এ বছর মনে রাখতে হবে, বেকার ভাতা অনুপার্জিত আয়, এটা উপার্জিত আয়ের সঙ্গে যুক্ত হবেন না। যারা ট্যাক্স না দিয়ে বেকার ভাতা নিয়েছেন, তাদের অবশ্যই ট্যাক্স দিতে হবে। বেকার ভাতা নিয়ে থাকলে অবশ্যই ট্যাক্স ফাইল করার আগে আপনার অ্যাকাউন্টের সঙ্গে পরামর্শ নিন।

চাইল্ড ট্যাক্স ক্রেডিট

প্রতি সন্তান অনুযায়ী ২ হাজার ডলার পর্যন্ত চাইল্ড ট্যাক্স ক্রেডিট দেওয়া হয়। সন্তানের বয়স করবর্ষের মধ্যে ১৭ বছর নিচে হতে হবে। চাইল্ড ট্যাক্স ক্রেডিট আয়কর কমাতে বিশেষভাবে সহায়তা করে এবং যাদের আয় কম, তাদের রিফান্ড বাড়াতে সহায়তা করে। সন্তান ব্যতীত অন্যান্য নির্ভরশীল ব্যক্তির জন্য ৫০০ ডলার পর্যন্ত ক্রেডিট পাওয়া যাবে। আইআরএসের গাইডলাইনে স্পষ্টভাবে বলা আছে, কাকে নির্ভরশীল ব্যক্তি হিসেবে ট্যাক্স ফাইলে দেখানো যাবে।

মূলধন ক্ষতির সমন্বয়

শেয়ারবাজার কিংবা অন্যান্য মূলধন জাতীয় বিনিয়োগের ক্ষেত্রে কোনো ক্ষতি হলে, সেখান থেকে ৩ হাজার ডলার পর্যন্ত এক করবর্ষে বাদযোগ্য। এটি বিবাহিত যৌথ ফাইলের ক্ষেত্রে এবং বিবাহিত একক ফাইলের ক্ষেত্রে ১ হাজার ৫০০ ডলার পর্যন্ত বাদযোগ্য। ক্ষতি বেশি হলে পরবর্তী বছরের আয় থেকে বাদ দেওয়া যাবে কিংবা এর মধ্যে কোন লাভ হলে সেখান থেকেও বাদ দেওয়া যাবে। বিভিন্ন মূলধনের লাভ-ক্ষতির হিসাব পৃথক রেখে আয়করের সঙ্গে সমন্বয় করা বাঞ্ছনীয়।

এনার্জি ট্যাক্স ক্রেডিট

বাসস্থানে সৌর-বিদ্যুৎ কিংবা বিদ্যুৎ সাশ্রয়ী সামগ্রী স্থাপনের ফলে বিদ্যুৎ ব্যবহার কমলে এনার্জি ট্যাক্স ক্রেডিট পাওয়া যাবে। বিদ্যুতের সামগ্রী স্থাপনের ক্ষেত্রে ১০ শতাংশ পর্যন্ত খরচ বাদযোগ্য। বিদ্যুৎ সাশ্রয়ী সামগ্রী ব্যবহারের ফলে যে খরচ হবে, সেখান থেকে সর্বোচ্চ ৫০০ ডলার পর্যন্ত ক্রেডিট পাওয়া যাবে।

চিকিৎসা ব্যয় বাদ

২০২০ সালের আইআরএসের গাইডলাইন অনুযায়ী, বিবাহিত একক ফাইলের ক্ষেত্রে আয়কর দাতা চিকিৎসা ব্যয় বাবদ ১২ হাজার ৪০০ ডলার এবং বিবাহিত যৌথ ফাইলের ক্ষেত্রে ২৪ হাজার ৮০০ ডলার চিকিৎসা খরচ হিসাবে বাদ দিতে পারবে। স্ট্যান্ডার্ড ডিডাকশন নিলে চিকিৎসা ব্যয় বাদ দেওয়া যাবে না। খাতওয়ারি বাদ্যযোগ্য হলেই কেবল বাদ দেওয়া যাবে। আপনাকে বিশেষজ্ঞের সঙ্গে পরামর্শ করে দেখতে হবে, কোনটা লাভজনক।

এ ছাড়া রিয়েল এস্টেট ট্যাক্স, মর্টগেজ ইন্টারেস্ট ইত্যাদি বার্ষিক আয় থেকে বাদযোগ্য।

ট্যাক্স বিলম্বকরণের মাধ্যমে আয়কর প্রদান ও আয়কর সীমা কমিয়ে আনার সুবিধা পাওয়া যায়। এ ক্ষেত্রে কিছু কার্যকর পরিকল্পনা রয়েছে, যেগুলো গ্রহণ করে বর্তমানে ট্যাক্স প্রদান থেকে বাচা যায়। আয় নির্দিষ্ট হিসাবে মাধ্যমে স্থানান্তরের মাধ্যমে সঞ্চয় ও বিনিয়োগ করে করমুক্ত আয় করা যায়, যা অবসরকালে আপনার ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা করতে সহায়তা করবে। (দ্বিতীয় কিস্তি পরের সংখ্যায়)

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0