default-image

করোনাভাইরাসের কারণে দীর্ঘ প্রায় এক বছর বন্ধ থাকার পর নিউইয়র্কের ব্রুকলিনে বিনোদন পার্ক কোনি আইল্যান্ড আবার জনসাধারণের জন্য খুলে দেওয়া হয়েছে। ৯ এপ্রিল নগরের মেয়র বিল ডি ব্লাজিও ফিতা কেটে জনসাধারণের জন্য কোনি আইল্যান্ডের লুনা পার্ক উন্মুক্ত করে দেন।

নিউইয়র্ক ডেইলি নিউজের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, গত বছর যুক্তরাষ্ট্রে করোনার সংক্রমণ শুরু হওয়ার সময় ব্রুকলিনের বিনোদন পার্ক কোনি আইল্যান্ড সর্বসাধারণের জন্য বন্ধ করে দেওয়া হয়।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, দীর্ঘ প্রায় এক বছর পর বিনোদনকেন্দ্রে ঢুকতে পেরে নগরবাসী উচ্ছ্বসিত।

ইভান নিভেন নামের একজন ব্যক্তি তাঁর তিন বছর বয়সী ছেলে সন্তান জেমসকে নিয়ে কোনি আইল্যান্ডের লুনা পার্কে এসেছেন। তিনি বলেন, এত দিন এই জায়গাটা মৃত ছিল। সব কেমন সুনসান অবস্থায় ছিল। দুই সপ্তাহ আগেও এখানে এসেছিলাম। তখন মাত্র কয়েকজন মানুষ ছিল। আর আজ এখানে সব আছে। চারদিকে আলো ঝলমলে করছে।

ব্রুকলিনের বে রিজ এলাকা থেকে ১১ বছর বয়সী জ্যাক নামের এক কিশোর ঘুরতে এসেছে লুনা পার্কে। সে শুরুতেই সাইক্লোন রাইডে উঠেছে। জ্যাক জানিয়েছে, আজ খুব মজা হচ্ছে। কারণ, অনেক দিন আমরা এসব আনন্দ থেকে দূরে ছিলাম।

বিজ্ঞাপন
default-image

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রথম সাইক্লোন রাইডেই ছিলেন নগরের মেয়র বিল ডি ব্লাজিও, কাউন্সিলের স্পিকার কোরি জনসন ও ডিস্ট্রিক্ট-৩৬ এর সিটি কাউন্সিল মেম্বার রবার্ট কর্নেগি।

মেয়র ব্লাজিও বলেন, আজ থেকে সব রাইড চালু হয়ে গেল। আমাদের হৃদয়ের দ্বারও খুলে গেল। কারণ, আমরা সবাই এই কোনি আইল্যান্ডকে ভালোবাসি।

প্রতিবেদনে আরও বলা হয়, কোনি আইল্যান্ড চালুর দিনে সিনেটে সংখ্যাগরিষ্ঠ দলের নেতা চাক শুমার, নগরের কম্পট্রোলার স্কট স্ট্রিংগার ও কাউন্সিলম্যান ব্র্যাড ল্যান্ডার উপস্থিত ছিলেন। এ ছাড়া এবার নগরের মেয়র পদে নির্বাচন করার ঘোষণা দেওয়া অ্যান্ড্রু ইয়াং তাঁর ছেলেকে নিয়েও উপস্থিত ছিলেন।

লুনা পার্কের ফুড স্ট্যান্ডে আগে চিজ স্টেক বিক্রি করতেন ৬২ বছর বয়সী জেমস হ্যান্ড্রিক। কোনি আইল্যান্ড চালুর খবর শুনে তিনিও আবার ব্যবসা সাজিয়েছেন। এত দিন কাজ হারিয়ে বেকার ছিলেন তিনি। হ্যান্ড্রিক বলেন, গত বছর বিভীষিকাময় ছিল। সত্যিকার অর্থেই তখন কোনো কাজ ছিল না।

নিউইয়র্ক থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন