default-image

ম্যাডেলিয়ানের ঋণ মওকুফের দাবিতে আন্দোলনে নেমেছেন নিউইয়র্ক নগরের ক্যাবচালকেরা। এ দাবিতে ১০ ফেব্রুয়ারি তাঁরা নগরের ব্রুকলিন ব্রিজ বন্ধ করে দেন। তাঁদের দাবির প্রতি সংহতি প্রকাশ করেছেন সিনেটর চাক শুমার।

নিউইয়র্কের হলুদ ক্যাবচালক ও মালিকেরা নিজেদের অস্তিত্ব নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে আন্দোলন করছেন। নিউইয়র্ক নগরে ট্যাক্সি চালাতে ম্যাডেলিয়ান মালিকানার জন্য ঋণ মওকুফের দাবি জানাচ্ছিলেন তাঁরা।

এক সময় নিউইয়র্ক নগরে ক্যাব চালানোর জন্য ম্যাডেলিয়ান মালিকানা খুবই লাভজনক হয়ে উঠেছিল। একটি ম্যাডেলিয়ানের মূল্য ১২ লাখ ডলারের বেশি উঠেছিল। উবার ও অন্যান্য অ্যাপসভিত্তিক ট্যাক্সি সার্ভিস চালু হলে নিউইয়র্ক নগরের ঐতিহ্য হলুদ ক্যাব শিল্পে ধস নামে।

করোনার কারণে গত মার্চ থেকে নিউইয়র্ক নগর বছরের অধিকাংশ সময় লকডাউনে ছিল। লকডাউন উঠে গেলেও পর্যটন শিল্প কার্যত বন্ধ রয়েছে। হাজার হাজার ক্যাবচালক একজন যাত্রী পেতে অনেক ক্যাবচালককে সড়কে ক্রমাগত ঘুরতে দেখা যায়। নগরের অসংখ্য ক্যাবচালক কার্যত বেকার হয়ে পড়েন। ম্যাডেলিয়ান মালিকেরা নগরের নানা ধরনের ট্যাক্স, ইনস্যুরেন্স ও ম্যাডেলিয়ান কেনার জন্য নেওয়া ঋণের কিস্তি পরিশোধ করতে পারছেন না।

বিজ্ঞাপন

বিপুলসংখ্যক বাংলাদেশি নিউইয়র্ক নগরের হলুদ ক্যাব ব্যবসার সঙ্গে দীর্ঘদিন ধরে জড়িত। ম্যাডেলিয়ান মালিক এসব প্রবাসীরাও বিপাকে পড়েছেন।

করোনা সহায়তা তহবিলের মাধ্যমে ফেডারেল সরকার নাগরিকদের নানা প্রণোদনা দিচ্ছে। নগরের ম্যাডেলিয়ান মালিকেরা সংকটকালীন প্রণোদনার অংশ হিসেবে তাদের ঋণ মওকুফের দাবিতে এখন আন্দোলনে নেমেছেন।

ব্যানার ফেস্টুন নিয়ে ১০ ফেব্রুয়ারি বিকেলে শত শত ক্যাবচালক প্রচণ্ড শীত উপেক্ষা করে ব্রুকলিন ব্রিজে জমায়েত হন। এ সময় নগরের যান চলাচল অচল হয়ে পড়ে। নিউইয়র্ক ট্যাক্সি অ্যালায়েন্সের নেতারা এ সময় তাদের ওপর থেকে ঋণের বোঝা মওকুফ করার দাবি জানাতে থাকেন। একপর্যায়ে ক্যাবচালকেরা সিনেটর চাক শুমারের কার্যালয়ের সামনে সংবাদ সম্মেলন করেন। এতে ক্যাবচালকদের সাহায্যে এগিয়ে আসার জন্য তাঁর প্রতি আহ্বান জানানো হয়।

কংগ্রেসে সংখ্যাগরিষ্ঠ দলের নেতা সিনেটর চাক শুমার পরে নিউইয়র্কের ক্যাবচালকদের আন্দোলন ও তাদের ঋণ মওকুফের দাবির প্রতি তাঁর সমর্থন ব্যক্ত করেন।

নিউইয়র্ক থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন