বিজ্ঞাপন

সকাল পৌনে ৮টার দিকে ঈদগাহে গিয়ে দেখা যায়, প্রবেশ পথে মুসল্লিদের দীর্ঘ লাইন। স্বেচ্ছাসেবীরা ব্যস্ত তাপমাত্রা মাপা ও তথ্য সংগ্রহে। খোলা মাঠে নামাজ পড়তে আশপাশের এলাকাসহ দূরদূরান্ত থেকেও মুসল্লিরা আসেন। কিন্তু তথ্য প্রদান ও দেহের তাপমাত্রা মাপার কারণে মুসল্লিদের ঈদগাহে ঢুকতে বিলম্ব হয়। সকাল সোয়া ৮টায় নামাজ শুরুর কথা থাকলেও ৯টা বেজে যায় নামাজ শুরু করতে। এ সময় প্রথমদিকে ঈদগাহে আসা মুসল্লিদের কারও কারও ধৈর্যচ্যুতি ঘটে।

ঈদগাহে সমবেত মুসল্লিদের উদ্দেশ্যে বয়ান ও খুতবা দেন ফুলতলি জামে মসজিদের ইমাম ও খতিব মুফতি ড. সাঈয়্যেদ মুতাওয়াক্কিল বিল্লাহ রব্বানী বদরপুরী। নিজেদের তথ্য দেওয়ার মাধ্যমে সহযোগিতার জন্য মুসল্লিদের ধন্যবাদ জানান মসজিদ পরিচালনা কমিটির নেতৃবৃন্দ। শুভেচ্ছা বক্তৃতা করেন সিটি কাউন্সিলে ডেমোক্র্যাট প্রাইমারিতে প্রার্থী খালেদ আলামেরি ও হেলাল শেখ। খুতবা ও মোনাজাতে মুসলিম উম্মাহসহ বিশ্ব শান্তির জন্য দোয়া করা হয়।

এদিকে পিএস সিক্সটি ফোর স্কুলের পার্কের ঈদগাহ ছাড়াও ওজোন পার্কের বায়তুন নুর জামে মসজিদের উদ্যোগে সমজিদের সামনে ৮৯ স্ট্রিটে বিপুলসংখ্যক মুসল্লির অংশগ্রহণে ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হয়। একই এলাকার আল ফুরকান জামে মসজিদ ও ওজোন পার্ক জামে মসজিদে ঈদের নামাজে মুসল্লিদের উপস্থিতি ছিল চোখে পড়ার মতো।

ঈদগাহে নামাজ আয়োজন সম্পর্কে ফুলতলি জামে মসজিদের সেক্রেটারি জামাল উদ্দিন বলেন, সিটির পার্ক বিভাগ, স্বাস্থ্য বিভাগ এবং পুলিশ বিভাগ থেকে কঠোর স্বাস্থ্যবিধি মানার শর্তে জামাত আয়োজনের অনুমতি দেওয়া হয়। বিগত বছরের তুলনায় এবার পরিসর বাড়ানো হয়েছে। তা ছাড়া এভাবে প্রতি মুসল্লির তথ্য সংগ্রহে করে ঈদগাহে প্রবেশে বিষয়ে অভিজ্ঞতার ঘাটতির কারণে কিছুটা বিলম্ব এবং আয়োজনে ত্রুটি থাকতে পারে। এ জন্য তিনি দুঃখ প্রকাশ করেন।

নিউইয়র্ক থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন