default-image

নিউইয়র্ক অঙ্গরাজ্য গভর্নর অ্যান্ড্রু কুমো নিউইয়র্ক নগরের কিছু এলাকায় তিন ধাপের লকডাউন শর্তাবলি আরোপ করেছেন। কোভিড-১৯ এর সংক্রমণ আবারও বেড়ে যাওয়ায় পুরো ব্রুকলিন এবং কুইন্সের রকল্যান্ড, নাসাউ ও বিংহ্যামটন এলাকার কিছু এলাকায় আবার লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে।

এ সম্পর্কিত বিবৃতিতে অ্যান্ড্রু কুমো বলেন, করোনা সংক্রমিত এলাকায় লকডাউনের এসব নির্দেশনাবলি কার্যকর হবে। ৭ অক্টোবর থেকে আজ শুক্রবারের মধ্যে কার্যকর হওয়া নতুন এ লকডাউন ১৪ দিন কার্যকর থাকবে। ১৪ দিন পর পরিস্থিতি পুনর্মূল্যায়ন করে পরবর্তী নির্দেশনা দেওয়া হবে বলেও জানান গভর্নর কুমো।

লকডাউনের এ নির্দেশনাবলি তিনটি রঙের মাধ্যমে চিহ্নিত করা হয়েছে। সবচেয়ে বেশি সংক্রমণের এলাকা ‘রেড জোন’, অতি সংক্রমণের আশপাশের এলাকা ‘অরেঞ্জ জোন’ ও অরেঞ্জ জোনের চারপাশের এলাকা ‘ইয়েলো জোন’ হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে। সংক্রমণের প্রকৃত তথ্য ধরে তিনটি রঙের মাধ্যমে এলাকাগুলোকে চিহ্নিত করা হয়েছে পোস্টাল জিপ কোড অনুযায়ী।

বিজ্ঞাপন

‘রেড জোনভুক্ত এলাকায় স্কুল বন্ধ থাকবে। এসব এলাকায় ১০ জনের বেশি লোকের সমাবেশ বন্ধ থাকবে, ধর্মালয়ের ধারণক্ষমতার ২৫ শতাংশ ব্যবহার করা যাবে এবং জরুরি নয়—এমন সব ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকবে। এসব এলাকার রেস্তোরাঁগুলো কেবল টেক আউটের জন্য খোলা থাকবে।

অরেঞ্জ জোনে ধর্মীয় সমাবেশে ধারণক্ষমতার ৩৩ শতাংশের বেশি যাওয়া যাবে না এবং ১০ জনের বেশি লোকের কোনো সমাবেশ করা যাবে না। এ ছাড়া ব্যায়ামাগার, হেয়ার সেলুনের মতো ঝুঁকিপূর্ণ ব্যবসা বন্ধ থাকবে। এসব এলাকার রেস্তোরাঁগুলোর বাইরে এক টেবিলে সর্বোচ্চ চারজনের খাবার পরিবেশন করা যাবে এবং স্কুলে কেবলই রিমোট লার্নিং থাকবে।

ইয়েলো জোনে ধর্মীয় সমাবেশে ধারণক্ষমতার ৫০ শতাংশ ব্যবহার করা যাবে। সমাবেশ করা যাবে সর্বোচ্চ ২৫ জনের। ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান খোলা থাকবে। আর রেস্তোরাঁ ভেতরে ও বাইরে খোলা থাকবে। স্কুলগুলোয় বাধ্যতামূলক সাপ্তাহিক কোভিড-১৯ পরীক্ষা করাতে হবে। আগামী সপ্তাহের শুরু থেকেই এমন পরীক্ষা চালু হবে।

গভর্নর কুমো বলেন, কার্যকর পরিকল্পনার মাধ্যমেই সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণ করতে হবে। এসব নির্দেশনা কঠোরভাবে পালনের জন্য গভর্নর সবাইকে আহ্বান জানিয়েছেন।

মন্তব্য পড়ুন 0