default-image

(ভাষা শহীদ স্মরণে)

এ বি এম সালেহ উদ্দীন

শতাব্দীকাল ধরে

শ্রেণি সংগ্রাম, শোষণ, নিপীড়ন, কষ্ট-ক্লেশ আর যুদ্ধে যুদ্ধে

শেষ পর্যন্ত আমি খুঁজে পেয়েছি মাতৃভাষা।

অজস্র কবিতার ছন্দময়তায়

আমার ভাষাটি এখন স্বকীয়মান

ভোরের শীতার্ত সকাল অথবা রোদের ক্ষিপ্রতা,

সন্ধ্যার স্নিগ্ধ বাতায়ন, রুপালি জ্যোৎস্না

মনোমুগ্ধকর তারার রাতে

ভাষাটি আমায় ছায়া দেয়, মায়া ছড়ায়

প্রশান্ত আলোয় স্বপ্ন ছড়ায় সৃষ্টিসুখের উচ্ছ্বাসে।

শ্যামল বাংলার মৃত্তিকা কোলে

আমার ভাষাটি এখন অনেক সবল ও গতিময়।

এই ভাষার মাঝে

দীপ্যমান হয়ে ওঠে প্রিয় অতীত

ফাগুনের মিষ্টি সকাল, বিন্দু বিন্দু শীত

রমনার কৃষ্ণচূড়ায় সাজানো

বর্ণমালার শহীদ মিনার। স্লোগানমুখর অলি-গলি,

মিছিলের রাজপথ।

চোখের পাতায় ভেসে আসে রক্তাক্ত ছবি

রফিক, জব্বার, সফিক, সালাম আর বরকতের লাশ!

লোহিত কণায় অঙ্কিত হয় মুক্তিযুদ্ধ একাত্তর।

এই ভাষার মাঝে আমি স্পষ্ট দেখতে পাই

একগুচ্ছ মাতৃদেশ, আমার প্রিয় বাংলাদেশ। যার ললাট ছায়ায় জেগে থাকে বাংলাভাষা। ওরা গল্প করে ভালোবাসার

গল্প করে মুক্তির, গল্প করে স্বাধীনতার...

বিজ্ঞাপন
সাহিত্য থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন