কবিতা

নিউইয়র্কারের রোববার

কাজী শিমুল আখতার

আজ রোববার তোমার আমার আরাম করার দিন

কিন্তু তবে কে শোধিবে উইকেন্ডের ঋণ?

তোমার ভাগে লন্ড্রি করা, রান্না আমার ভাগে

ঘর গোছানো, বাজার করা আর কী বলো লাগে?

দুপুর বেলা দাওয়াত আছে যেতেই হবে হায়,

দেশের মানুষ দাওয়াত দিলে ফেরানো কি যায়?

দাওয়াত খাব, পাল্টা দাওয়াত দিতেও তো হবে

নেক্সট উইকের বাজারটাও করে রাখি তবে।

ছেলে দুটো জিমে যাবে, নিয়ে যেও তুমি

ছোট খোকার হোম-ওয়ার্কটা সামলে নেব আমি।

ফিরে এলে দাওয়াত শেষে খানিকটা রেস্ট নিয়ে

মায়ের সঙ্গে করব দেখা ভাইয়ের বাসায় গিয়ে।

সারাটা সপ্তাহ জুড়ে মা যে আশায় থাকে

পাঁচ ছেলে-মেয়ে একই সঙ্গে করবে সালাম মাকে।

মায়ের স্নেহে সিক্ত হয়ে ফিরতে হবে রাত

টুকটাক গোছানো সেরে তবেই হব কাত।

পরের দিনই শুরু হবে দুস্তর জীবন,

ফের পাব রেস্ট উইকেন্ডে ভাবছে অবুঝ মন।

বিজ্ঞাপন

প্রত্যাশিত ভোর

মলয় বিশ্বাস

নতুন ভোরে অনেক আশা

বিভেদ কাটিয়ে ঐক্যের প্রত্যাশা

নতুন প্রাণ, নতুন গান

নতুন প্রত্যয়, পরাজিত হোক ভয়

নতুন সূর্যোদয়ে খুলে যাক

বদ্ধ দুয়ারের অর্গল

লকডাউন, শাটডাউনের

দুঃসহ স্মৃতি মুছে যাক

কোলাহল মুখরতায়।

অসত্যের বিপরীতে জয় হোক সত্যের

অসাম্যের বিপরীতে সাম্যের

অন্যায়ের বিরুদ্ধে ন্যায়ের;

সন্ত্রাস, লুটতরাজের বিপরীতে

সুশৃঙ্খল, সভ্য সমাজের।

ঔদ্ধত্যের বিপরীতে বিনয়ের

অস্বচ্ছতার বিপরীতে স্বচ্ছতার

বিস্মৃতির অতলে তলিয়ে যাক

শ্বেতাঙ্গ, কৃষ্ণাঙ্গ, বাদামি অঙ্গের ভেদাভেদ

নতুন ভোরে সমস্বরে বলতে চাই

অল লাইভস ম্যাটার।

অতি কাঙ্ক্ষিত এই ভোরে

আমরা আবার ফিরে যাই

বৈশ্বিক জলবায়ু পরিবর্তন আন্দোলনে

ফিরে আসুক দূষণমুক্ত নির্মল বাতাস

এই স্বপ্নিল ভোরে আমাদের প্রত্যাশা

একটি কার্যকর, টেকসই কোভিড-১৯

প্রতিরোধ ব্যবস্থা প্রতিষ্ঠার

দুর্বিনীত একলা চলো নীতির

বিপরীতে ঐক্যবদ্ধ বৈশ্বিক তানে

জয় হোক মানবতার।

সাহিত্য থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন