প্রত্যাশিত সময়ের আগেই করোনার টিকা পাওয়া সম্ভব: ফাউসি

বিজ্ঞাপন
default-image

কোভিড-১৯–এর টিকার চলমান ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালগুলো যদি ব্যাপক কোনো ইতিবাচক ফল নিয়ে আসে, তবে প্রত্যাশিত সময়ের আগেই টিকা পাওয়া সম্ভব। এ কথা বলেছেন যুক্তরাষ্ট্রের ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব অ্যালার্জি অ্যান্ড ইনফেক্সাস ডিজিজেসের পরিচালক অ্যান্টনি ফাউসি। কেউজার হেলথ নিউজকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে এ কথা বলেছেন প্রথিতযশা এই মার্কিন বিজ্ঞানী। খবর সিএনএনের।
দুটি টিকার চলমান ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালে অংশ নিয়েছেন ৩০ হাজার স্বেচ্ছাসেবী। এ বছরের শেষ নাগাদ ট্রায়াল শেষ হওয়ার কথা। তবে ফাউসি বলেছেন, অন্তর্বর্তী ফলাফল যদি ব্যাপকভাবে ইতিবাচক বা নেতিবাচক হয়, তবে নির্দিষ্ট সময়ের আগেই স্বাধীন বোর্ড ট্রায়াল প্রক্রিয়ায় সমাপ্তি টানতে পারে।

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

ফাউসি বলেন, ‘ডেটা ও সেফটি মনিটরিং বোর্ড–ডিএসএমবি (ক্লিনিক্যাল ট্রায়াল পর্যবেক্ষণকারী স্বাধীন বিশেষজ্ঞদের কমিটি) যদি বলে যে ফলাফল ভালো, তখন আমরা টিকাকে নিরাপদ ও কার্যকর বলে মনে করতে পারি। সে ক্ষেত্রে গবেষকদের একটি “নৈতিক দায়িত্ব আছে” ট্রায়াল দ্রুত শেষ করা। এর পাশাপাশি তাঁদের দায়িত্ব টিকা মানুষের জন্য প্রস্তুত করা।’

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

ফাউসি বলেন, সরকারিভাবে নিয়োগ দেওয়া ডিএসএমবির সদস্যদের প্রতি তাঁর আস্থা আছে।
ফাউসির এ মন্তব্য এমন একটি সময়ে এল, যখন দ্রুত টিকার ব্যবস্থা করার জন্য যুক্তরাষ্ট্রে ট্রাম্প প্রশাসনের চাপের কথা জোর চালু আছে। দেশটির খ্যাতনামা টিকা বিশেষজ্ঞরা বলেছেন, নির্বাচনে জিততে ট্রাম্প দ্রুত টিকা পাওয়ার জন্য চাপ দিতে পারেন।
তবে ফাউসি তাঁর সাক্ষাৎকারে বলেছেন, ‘যদি টিকার বিষয়ে কোনো সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়, তবে আগে নিশ্চিত হতে হবে আমাদের হাতে ভালো প্রমাণ আছে আর টিকাটি নিরাপদ ও কার্যকর। আমি রাজনৈতিক চাপ নিয়ে চিন্তিত নই।’

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

যুক্তরাষ্ট্রে মূলত তিনটি টিকার ক্লিনিক্যাল ট্রায়াল চলছে। এর মধ্যে প্রথম দুটির মধ্যে একটি চলছে মডার্না ও ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব হেলথের অধীন, অন্যটি যৌথভাবে করছে ফাইজার ও বায়োটেক। দুটির ক্লিনিক্যাল ট্রায়াল শুরু হয়েছে গত জুলাই মাসের শেষ দিকে। এর পাশাপাশি অ্যাস্ট্রাজেনেকাও তাদের টিকার ট্রায়াল চলতি সপ্তাহে শুরু করেছে যুক্তরাষ্ট্রে। সেখানেও ৩০ হাজার স্বেচ্ছাসেবকের ওপর এটি প্রয়োগ করা হবে।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0
বিজ্ঞাপন