default-image

এখন থেকে কোনো লক্ষণ দেখা দেওয়ার পাঁচ বছর আগেই স্তন ক্যানসার নির্ণয় করা সম্ভব হবে। স্তন ক্যানসার এক মারাত্মক ব্যাধি। প্রতি বছর দুই লাখের বেশি মানুষ স্তন ক্যানসারে আক্রান্ত হচ্ছেন।
শুধু যে নারীরা এই রোগের শিকার হন, তা নয়, পুরুষদেরও এই রোগের ঝুঁকি আছে। তবে নারীদের থেকে অনেক কম। সম্প্রতি লন্ডন টাইমস–এর এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, নটিংহাম বিশ্ববিদ্যালয় জানিয়েছে, এখন থেকে রক্ত পরীক্ষার মাধ্যমে টিউমার ধরা পড়ার বা শারীরিক অন্য কোনো লক্ষণ ধরা পড়ার ৫ বছর আগে থেকে এই রোগ নির্ণয় করা সম্ভব হবে। চিকিৎসকদের মতে, টিউমার যখন ধরা পড়ে ততক্ষণে ২০ শতাংশের বেশি ক্যানসার শরীরে ছড়িয়ে পড়ে। তখন রেডিয়েশন, কেমোথেরাপি বা সার্জারির প্রয়োজন পড়ে।
৫০ থেকে ৭০ বছর বয়সী নারীদের প্রতি তিন বছর পর পর ব্রেস্ট স্ক্রিনিং বা ম্যামোগ্রাম করানো উচিত। ম্যামোগ্রাম হচ্ছে এক্স-রের মাধ্যমে নারীদের স্তনের অবস্থা পরীক্ষা করা। সাধারণত প্রাথমিক অবস্থায় ক্যানসার এত ছোট থাকে যে, বাইরে থেকে সেটা বোঝা সম্ভব হয় না। কিন্তু ম্যামোগ্রামের মাধ্যমে খুব ছোট থাকা অবস্থাতেই বা প্রাথমিক পর্যায়েই ক্যানসার নির্ণয় করা যায়। প্রাথমিক পর্যায়ে ধরা পড়লে ক্যানসার থেকে সুস্থ হয়ে ওঠার সম্ভাবনা বেশি থাকে। আর এই পরীক্ষার জন্য মাত্র কয়েক মিনিট সময় লাগে।
স্তন ক্যানসারের ক্ষেত্রে কিছু কিছু জিনগত পরিব্যক্তিও অনেক সময়েই দায়ী হয়ে থাকে। এমনকি সারা বিশ্বের পরিসংখ্যান অনুযায়ী, ৫ থেকে ১০ শতাংশ স্তন ক্যানসার জিনগত পরিব্যক্তির কারণেই হয়ে থাকে। ডাক্তারি মতে, যেসব নারীর বা মায়েদের ৫০ বছরের আগেই স্তন ক্যানসার ধরা পড়েছে, তাদের ক্ষেত্রে স্তন ক্যানসার হওয়ার সম্ভাবনা ১ দশমিক ৭ শতাংশ বৃদ্ধি পায়। যেখানে এই সংখ্যাটি নেমে ১ দশমিক ৪ শতাংশ হয়ে যায়, সে সব নারীর ক্ষেত্রে যাদের স্তন ক্যানসার ৫০ বছর বা তারপরে গিয়ে ধরা পড়েছে।
আবার পরীক্ষা করে দেখা গেছে, যেসব নারীর আত্মীয়দের মধ্যে স্তন ক্যানসার রোগীর সংখ্যা যথাক্রমে শূন্য, এক বা দুই—সে সব ক্ষেত্রে তাদের ৮০ বছরের আগে স্তন ক্যানসার হওয়ার সম্ভাবনা যথাক্রমে ৭ দশমিক ৮ ভাগ, ১৩ দশমিক ৩ ভাগ এবং ২১ দশমিক ১ ভাগ। শুধু তাই নয় এসব ক্ষেত্রে স্তন ক্যানসারের কারণে মৃত্যুহারের পরিমাণ যথাক্রমে ২ দশমিক ৩ ভাগ, ৪ দশমিক ২ ভাগ এবং ৭ দশমিক ৬ ভাগ। এমনকি যেসব নারীর ফার্স্ট ডিগ্রি আত্মীয়দের মধ্যে যদি কারওর স্তন ক্যানসার ধরা পড়ে, তবে তাদের ৪০-৫০ বছরের মধ্যে স্তন ক্যানসার হওয়ার সম্ভাবনা সাধারণ মানুষের থেকে প্রায় দ্বিগুণ বৃদ্ধি পেয়ে থাকে। পাঁচ শতাংশের কম ক্ষেত্রে দেখা যায়, জিনগত পরিব্যক্তি স্মরণ ক্যানসারে খুবই গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে।

বিজ্ঞাপন
উত্তর আমেরিকা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন