বিজ্ঞাপন

যুক্তরাষ্ট্রে জন্ম নেওয়া সাকিব রোববার বেলা সাড়ে তিনটার দিকে কুইন্সের মেইন স্ট্রিটের রোজভেল্ট আইল্যান্ড জিমনেশিয়ামে যান। বিকেল চারটার দিকে সাঁতারের জন্য সুইমিং পুলে ডাইভ দেন। পানিতে পড়ার পর তাঁকে ভাসতে দেখে লাইফ গার্ডরা সঙ্গে সঙ্গে পানিতে নেমে তাঁকে উদ্ধার করে অ্যাম্বুলেন্সে মাউন্ট সিনাই হাসপাতালে পাঠান।

হাসপাতালে নেওয়ার পর কর্তব্যরত চিকিৎসক পরীক্ষা করে সাকিবকে মৃত ঘোষণা করেন। হাসপাতাল থেকে বাসায় ফোন করে বলা হলে পরিবারের সবাই হাসপাতালে যান। পরিবারের সম্মতিতে গত সোমবার সাকিব চৌধুরীর ময়নাতদন্ত করে পরিবারের কাছে লাশ হস্তান্তর করা হয়।

সাকিব চৌধুরীর মরদেহ পার্কচেস্টার জামে মসজিদের নিজস্ব ফিউনারেল হোমে রাখা হয়েছে। স্থানীয় সময় মঙ্গলবার জোহরের নামাজের পর পার্কচেস্টার জামে মসজিদে তাঁর জানাজা অনুষ্ঠিত হবে। পরে নিউ জার্সির টোটোয়াস্থ পার্কচেস্টার জামে মসজিদের কবরস্থানে তাঁকে দাফন করা হবে বলে মসজিদের সেক্রেটারি নুরুল ইয়াহিয়া জানিয়েছেন।

নিউইয়র্কে গত এক বছরে ছয়জন তরুণের অকালমৃত্যু হয়েছে।

উত্তর আমেরিকা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন