জর্জিয়ায় এক আসনে দুই বাংলাদেশি প্রার্থী

বিজ্ঞাপন
default-image

আমেরিকার আসন্ন ২০২০ সালের জাতীয় নির্বাচনে কেন্দ্রীয় কংগ্রেস প্রতিনিধি পদে জর্জিয়া অঙ্গরাজ্যের ডিস্ট্রিক্ট–৭ আসনে দুই বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত মার্কিন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন বলে ঘোষণা দিয়েছেন। দুইজনই ডেমোক্রেটিক পার্টির হয়ে লড়বেন বলে আশা প্রকাশ করছেন। 

কংগ্রেসে প্রার্থিতা ঘোষণা দেওয়া এই দুজনের এদের একজন হচ্ছেন ওরফে হাদী ও তরুণ রাজনীতিবিদ নাবিলাহ ইসলাম। ড. রশিদ ইতিমধ্যে তিনবার আমেরিকার মূলধারার নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছেন। তিনি ২০১০ সালে প্রথমবারের মতো ডেমোক্রেটিক পার্টির প্রার্থী হিসেবে জর্জিয়া স্টেট হাউস অব রিপ্রেজেনটেটিভ পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছিলেন। এরপর ২০১২ সালে জর্জিয়া স্টেট সিনেটর পদে দ্বিতীয়বার প্রার্থী হন। ২০১৬ সালে ইউএস কংগ্রেস নির্বাচনে প্রার্থী হন। আসন্ন ২০২০ সালের নির্বাচনে তিনি জর্জিয়া স্ট্রেট ডিস্ট্রিক্ট–৭ কংগ্রেস আসন থেকে কংগ্রেসম্যান পদে নির্বাচন করবেন বলে ঘোষণা দিয়েছেন।
এই প্রজন্মের তরুণ রাজনীতিবিদ নাবিলাহ ইসলাম জর্জিয়া স্ট্রেট ইউনিভার্সিটি থেকে স্নাতক করেছেন। এর আগে তিনি আটলান্টা সিটি কাউন্সিলম্যান অ্যান্ড ডিকেন্স যিনি গুইনেট কাউন্টি ইয়ং ডেমোক্রেটিক পার্টির সভাপতি এবং বিগত প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে হিলারি ক্লিনটনের আমেরিকার দক্ষিণাঞ্চলীয় অঙ্গরাজ্যগুলোর প্রচারব্যস্থার দায়িত্ব পালন করেন।
কংগ্রেসনাল ডিস্ট্রিক্ট–৭ রিপাবলিকানদের শক্ত নির্বাচনী ঘাঁটি। ১৯৯০ সালের পর থেকে এই আসনটি রিপাবলিকানদের দখলে রয়েছে। বর্তমানে এই আসনে রয়েছেন রিপাবলিকান পার্টির তুখোড় নেতা অ্যাটর্নি উইলিয়াম রবার্ট উডল। তিনি রব উডল নামেই বেশি পরিচিত।
আমেরিকার আসন্ন ২০২০ সালের জাতীয় নির্বাচনে রবার্ট উডল নির্বাচন করবেন না বলে ঘোষণা দিয়েছেন। এরপরই এই আসনে রিপাবলিকান ও ডেমোক্রেটিক পার্টি থেকে অন্তত ১৬ জন নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করার ঘোষণা দিয়েছেন বলে প্রাথমিক সূত্রে জানা যায়। এঁদের মধ্যে নয়জন রিপাবলিকান ও সাতজন ডেমোক্রেটিক প্রার্থী।
ডেমোক্রেটিক পার্টির মধ্যে দুজন রয়েছেন বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত মার্কিন ড. রশিদ মালিক ও নাবিলাহ ইসলাম ছাড়া অন্যরা হলেন ক্যারোলাইন বোডক্স, জন ইভান, যহরা কারিনশাক, ডেভিড কিম ও বেরেন্ডা লোপেজ রমিরো। বোডক্স গত নির্বাচনে রব উডলের কাছে মাত্র ৪১৯ ভোটে হেরে যান।
ওই আসনে ডেমোক্রেটিক বা রিপাবলিকান পার্টি থেকে চূড়ান্ত মনোনয়ন পাওয়ার লড়াই প্রাথমিক নির্বাচন হবে আগামী ১৯ মে। প্রাথমিক নির্বাচনে যে প্রার্থী ৫০ শতাংশের বেশি ভোট পাবেন, তিনিই চূড়ান্ত নির্বাচনে লড়াইয়ের মনোনয়ন পাবেন।
ডিস্ট্রিক্ট–৭ কংগ্রেসনাল আসনে দুই বাংলাদেশি প্রার্থিতা ঘোষণা করার বিষয়টি এখন বাংলাদেশি কমিউনিটির বিভিন্ন দোকান, রেস্টুরেন্টে আলোচনার বিষয়বস্তু হয়ে দাঁড়িয়েছে। অভিবাসী ও মার্কিনি নাগরিকসহ মোট সাতজনের মধ্যে দুজনই বাংলাদেশি। প্রতিযোগিতামূলক প্রাথমিক বাছাইয় নির্বাচনে দুই বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত মার্কিন প্রার্থী হলে কেউ কি সফল হতে পারবেন?
অভিজ্ঞ রাজনীতিকদের মতে, দুজন বাংলাদেশি প্রার্থী না হয়ে সমঝোতার মাধ্যমে একজনের প্রার্থী হওয়া উচিত। না হলে আম–ছালা দুই হারানোর শঙ্কা থেকে যায়।
অন্যদিকে দুই প্রার্থীই চূড়ান্ত মনোনয়ন পাওয়ার ব্যাপারে আশাবাদী। ড. রশিদ মালিক প্রথম আলো উত্তর আমেরিকাকে বলেন, ২০১৬ সালে দলের প্রাথমিক নির্বাচনে তিনি এই আসনে ১ লাখ ১৪ হাজার ২২০ ভোট পেয়েছিলেন, যা মোট ভোট সংখ্যার ৪৫ শতাংশ। তিনি আগামী নির্বাচনে চূড়ান্ত মনোনয়ন পাবেন এবং কংগ্রেসম্যান নির্বাচিত হবেন।
নাবিলাহ ইসলাম সাংবাদিকদের বলেন, আটলান্টা সিটি কাউন্সিল ম্যান অ্যান্ডে ডিকেন্স ও প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে হিলারি ক্লিনটনকে সহযোগিতা করার অভিজ্ঞতা তাঁর আছে। অবশ্যই তিনি চূড়ান্তভাবে মনোনয়ন পাবেন এবং তিনিই হবেন আমেরিকায় বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত প্রথম কংগ্রেসম্যান।
পিকচার ক্যাপশন: বাঁ থেকে ড. রশিদ মালিক ও নাবিলাহ ইসলাম

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0
বিজ্ঞাপন